হিজাবও ফ্যাশনেবল!



ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইফস্টাইল
মার্জিত পছন্দই ফ্যাশনেবল থাকতে সাহায্য করবে, ছবি: সংগৃহীত

মার্জিত পছন্দই ফ্যাশনেবল থাকতে সাহায্য করবে, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বহু আগে থেকেই লায়লা হিজাব পরেন।

এক্ষেত্রে কখনো ব্যতিক্রম হয়নি। হোক সেটা একেবারে সাদামাটা ক্লাসে যাওয়া কিংবা পাঁচ তারা হোটেলে জমকালো কোন অনুষ্ঠান। পোশাক, কাফতান কিংবা বোরকার সাথে মানানসই হিজাব থেকেছে সবসময়।

সবচেয়ে চমৎকার ব্যাপার হলো, হিজাব পরেও লায়লা অন্যান্যদের সামনে স্ট্যান্ড আউট করেন খুব সহজেই। তার পুরো গেটআপ ও লুকের মাঝে থাকে এক অন্যরকম আভিজাত্য ও গাম্ভীর্য। তাকে দেখলেই বোঝা যায়, হিজাবেও দারুণ ফ্যাশনেবল থাকা যায়।

অনেকেই ভাবেন হিজাব পরলে মোটেও ফ্যাশনেবল থাকা সম্ভব নয়। অথচ খুব সাধারণ হিজাব পরেও চমৎকার ফ্যাশনেবল থাকা সম্ভব। তবে তার জন্য প্রয়োজন কয়েকটি বিষয়ের দিকে লক্ষ রাখা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/01/1559381086014.jpg

প্রথমেই আসা যাক পোশাক ও হিজাবের রঙ নির্বাচনের বিষয়ে। সাধারণ সালোয়ার কামিজ, কাফতান কিংবা বোরকা- পোশাক যেটাই হোক না কেন, তার সাথে মিল রেখে হিজাবের কাপড় ও রঙ নির্বাচন করতে হবে বুঝেশুনে। ইদানিং কালো বোরকা ও স্কার্ফের প্রচলন কমে এসেছে অনেকটা। সেক্ষেত্রে হালকা রঙগুলোর দিকে প্রাধান্য দেওয়া যেতে পারে। একদম কটকটা লাল কিংবা গোলাপি রঙগুলো এড়িয়ে চোখে আরাম দেয় এমন রঙগুলো বেছে নেওয়া হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

এরপর নজর দিতে হবে হিজাব তথা স্কার্ফ পরার দিকে। অনেকেই মাথার উপর অনেক উঁচু করে হিজাব পরেন। যা আদতে ভীষণ দৃষ্টিকটু। একটু ঘাঁটাঘাঁটি করলে দেখা যাবে, ফ্যাশন সচেতন হিজাবি নারীরা একদম সাধারণভাবে হিজাব পরে থাকেন। হিজাব যত বেশি সাধারণ প্যাঁচে পরা যাবে, দেখতে ততই ফ্যাশনেবল ও মার্জিত লাগবে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/01/1559381103637.jpg

এবারে আসা যাক সাজসজ্জার দিকে। যারা নিয়মিত হিজাব পরেন ভারি সাজসজ্জা এড়িয়ে চললেও হালকা সাজে আপত্তি থাকে না। সেক্ষেত্রে হালকা তবে উজ্জ্বল রঙগুলো প্রাধান্য দিতে হবে। সাজসজ্জার বড় একটি অংশ হলো চোখের সাজ। চোখকে সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তোলার পাশাপাশি মিষ্টি রঙের লিপস্টিক ঠোঁটে এনে দেবে পরিপূর্ণতা।

এবারে অন্যান্য অনুষঙ্গের দিকে এগুনো যাক। হিজাব পরলে স্বাভাবিকভাবেই দুল পরার প্রশ্ন আসে না। তবে ইদানিং অনেকেই লম্বা চেইনওয়ালা মালা পরার দিকে ঝুঁকছেন। সেক্ষেত্রে হিজাবের রঙ ও সাজের সাথে মিল রেখে গলার মালা নির্বাচন করতে হবে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/01/1559381213508.jpg

তবে মালা পরতে অস্বস্তি বোধ করেন অনেকেই। বিধায় মালাও থাকে না অনুষঙ্গের খাতায়। সেক্ষেত্রে হাতঘড়ি, হাতব্যাগ ও জুতা হওয়া চায় স্ট্যান্ডার্ড মানের। এই তিনটি অনুষঙ্গের উপর নির্ভর করে পুরো গেটআপের অনেকটা।

অতিরিক্ত পাথর বসানো হাতঘড়ি, হাতব্যাগ ও জুতা এড়িয়ে মার্জিত রঙের লেদারের ও হালকা কাজের মাঝে এই অনুষঙ্গগুলো নির্বাচন করতে পারলে সবচেয়ে ভালো হবে।

সর্বোপরি ফ্যাশন সচেতন হওয়ায় সাথে হিজাব পরা কিংবা না পরার কোন সম্পর্ক নেই। ঈদে সবার ভিড়ে নিজেকে যতটা গুছিয়ে উপস্থাপন করা যাবে, ততটাই ফ্যাশনেবল দেখাবে।

আরও পড়ুন: আভিজাত্যে মনোহর মুক্তার গহনা

আরও পড়ুন: ঈদ ট্রেন্ডে থাকবে ‘ন্যুড মেকআপ লুক’