নয়াপল্টনের ঘটনায় 'নিরাপরাধীদের' হয়রানি না করার নির্দেশ ইসি’র

ছবি: বার্তা২৪

নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে দলটির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনায় 'নিরাপরাধীদের' হয়রানি না করতে পুলিশকে নির্দেশনা দিচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

একই সঙ্গে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে সংঘর্ষের ঘটনা তদন্তে পুলিশের আইজিপিকে চিঠি দেবে ইসি।

ইসি সূত্রে জানা গেছে, বিএনপি কার্যালয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় বিভিন্ন গণমাধ্যমে ধারনকৃত ভিডিও ফুটেজ ও অন্যান্য তথ্য প্রমাণাদিসহ সংগ্রহ করে একটি প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য পুলিশকে নির্দেশনা দেবে কমিশন। তবে ঘটনার সঙ্গে সরাসরি সংশ্লিষ্ট নয় এমন কাউকে হয়রানি না করতে নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি এ ঘটনায় নিরপরাধী ব্যক্তিকে মামলায় জড়িয়ে নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট না করতে নির্দেশনা দিয়ে চিঠি দেবে কমিশন।

চিঠির নির্দেশনায় বলা হচ্ছে, মিডিয়ায় প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী ১৪ নভেম্বর বিএনপির পল্টন কার্যালয়ে দলীয় মনোনয়পত্র সংগ্রহ ও জমাদানকালে লোক সমাগমে রাস্তায় যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ রাস্তায় যানচলাচল পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার পদক্ষেপ গ্রহন করে। এ নিয়ে দুপুরে মিছিলে অংশগ্রহনকারীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ হয়।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়, উচ্ছৃঙ্খল লোকজন কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করে এবং পুলিশের দুইটি গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে। এতে কর্তব্যরত পুলিশসহ অনেকে আহত হয়। এ বিষয়ে ধারনকৃত স্থিরচিত্র, ভিডিও ফুটেজ ও অন্যান্য তথ্য প্রমাণাদিসহ একটি প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য নির্বাচন কমিশন নির্দেশনা প্রদান করেছেন। ঘটনার সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে সংশ্লিষ্ট নয় এমন কোন ব্যক্তিকে যেন অকারণে হয়রানি করা না হয় এবং একই সাথে এ ঘটনার জন্য নিরপরাধী ব্যক্তিকে কোন মামলায় জড়ানোর কারণে নির্বাচনী পরিবেশ ও সুষ্ঠু আবহ যেন বিঘ্নিত না হয়।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহম্মদ খান বার্তা২৪কে বলেন, ‘পল্টনের ঘটনায় পুলিশের আইজিপিকে চিঠি দিচ্ছে কমিশন। চিঠিটি আগামিকাল পাঠানো হতে পারে।’

এদিকে তফসিল ঘোষণার পর দলের ৪৭২ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে দাবি করেছে বিএনপি। আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার বরাবর এ সংক্রান্ত একটি তালিকা জমা দিয়েছে বিএনপি।

 

নির্বাচন এর আরও খবর

//election count down