কক্সবাজার-৩ আসনে আ.লীগের মনোনয়ন দৌঁড়ে এগিয়ে সোহাগ

ছবি: বার্তা২৪

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে কক্সবাজার-৩ আসনে (সদর ও রামু) আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দৌঁড়ে এগিয়ে আছেন আনিসুল হক চৌধুরী সোহাগ। মূলত কক্সবাজারের পর্যটনকে ঘিরে নতুন স্বপ্ন তুলে ধরায় তিনি এখন ভোটারদের আলোচনার বিষয়। স্থানীয় ভোটাররা মনে করেন, নির্বাচিত হয়ে কক্সবাজারের পর্যটন চিত্র বদলে দেওয়ার স্বপ্ন দেখাতে পারে এমন একজনকে খুঁজছিলেন আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতারা।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগ জোটগতভাবে প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ওই তালিকায়ও এগিয়ে আছেন আনিসুল হক সোহাগ। তিনি এলাকায় মূলত কৃষক লীগের তৃণমূলের নেতা এবং পর্যটন উদ্যোক্তা হিসেবে পরিচিত। কক্সবাজারকে নতুন করে সাজাতে সোহাগের যে পরিকল্পনা আছে সেটা ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড দেখেছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী, সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে তিনি আগামী ১০ বছরের মধ্যে কক্সবাজারকে ১০ বিলিয়ন ডলারের পর্যটন শিল্পখাত হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চান।

জানা গেছে, কক্সবাজার-৩ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য সাইমুম সারওয়ার কমল। আগামী নির্বাচনে এই আসন থেকে নির্বাচন করতে ২৭ জন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ফোরকান আহমেদও আছেন। তবে একমাত্র সোহাগ ছাড়া কেউই কক্সবাজারের পর্যটন শিল্প নিয়ে কোনো পরিকল্পনা তুলে ধরেননি। তাই তরুণ ও ক্লিন ইমেজ বিবেচনায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দৌঁড়ে এগিয়ে আছেন সোহাগ। বিশেষ করে নতুন ভোটারদের আগ্রহের কেন্দ্রে আছেন মারমেইড বিচ রিসোর্টের এই প্রতিষ্ঠাতা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Nov/19/1542630239793.jpg

কক্সবাজার আওয়ামী লীগ নেতারাও মনে করছেন, ভোটে জিততে হলে কক্সবাজারে সব আসনে ক্লিন ইমেজধারী লোক দরকার। পর্যটন থেকে কর্মসংস্থান চান এখানকার বাসিন্দারা। এতদিন জনপ্রতিনিধিদের ভূমিকা না থাকায় সেখানের পর্যটন খাত আমলা নির্ভর ছিল। এমনকি জেলা প্রশাসনের অনেক উদ্যোগ নিয়েও সমালোচনা হয়েছে। এ অবস্থায় পুরাতনদের চেয়ে নতুন প্রার্থীদের প্রতি আগ্রহ দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের।

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রার্থী আনিসুল হক চৌধুরী সোহাগ বার্তা২৪.কম’কে বলেন, ‘কক্সবাজারের পর্যটন খাত নিয়ে আমার উন্নয়ন পরিকল্পনা মনোনয়ন ফরমের সাথে জমা দিয়েছি। আওয়ামী লীগের স্থানীয় সমর্থক ও নেতকর্মীরাও আমাকে সংসদ সদস্য হিসেবে দেখতে চান। আমি কক্সবাজারের প্রকৃত পর্যটন বিকশিত করতে চাই, যেখানে বিশ্বের অন্যান্য পর্যটন শহরের চেয়ে বেশি আকর্ষণ থাকবে। সংসদ সদস্য নির্বাচিত হতে পারলে এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারবো।’

তিনি আরো বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে দেশ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে সেই ধারাবাহিকতায় কক্সবাজারেরও উন্নয়ন প্রয়োজন। তাই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ধারণ করে পর্যটন নগরীকে সাজানোর পরিকল্পনা করছি।’

নির্বাচন এর আরও খবর

//election count down