আনন্দে কোচ, তবে পা জমিনেই



এম. এম. কায়সার, স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম, ওভাল স্টেডিয়াম লন্ডন থেকে
তামিম ইকবালের সঙ্গে কোচ স্টিভ রোডস

তামিম ইকবালের সঙ্গে কোচ স্টিভ রোডস

  • Font increase
  • Font Decrease

দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর পর অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা যা বলেছিলেন, বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে নামার আগে ঠিক সেই কথাই আরেকবার বললেন কোচ স্টিভ রোডস। জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরুর আনন্দ আছে বাংলাদেশ কোচের। তবে সেই খুশিতে এখনই ডানা মেলে উড়ছেন না তিনি। বাস্তবতার জমিনেই পা তার। বললেন-‘অবশ্যই আমি অনেক খুশি প্রথম ম্যাচ জিতে কিন্তু সেই সঙ্গে মনে করিয়ে দিতে চাই, মাত্র একটা ম্যাচ গেছে আমাদের বিশ্বকাপে। এখনো আরো আটটা বাকি। সাফল্য দিয়ে শুরু করেছি। তবে সেটা নিয়ে এখন আর বেশি গালগপ্পো করতে রাজি নই আমি। সমর্থকরা সবাই খুশিতে ভাসছে। কিন্তু আমরা কোচিং স্টাফরা এখন অন্য চিন্তায়। আমরা জানি সামনের সময়ে আমাদের অনেক কঠিন দলের মুখোমুখি হতে হবে। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে শেষ সিরিজটা আমাদের ভালো কিছু কাটেনি। তবে এখন এই বিশ্বকাপে আমরা তাদেরকে মোকাবেলা করতে কিছুটা ভালো অবস্থায় আছি। মনে রাখতে হবে নিউজিল্যান্ড অনেক কঠিন প্রতিপক্ষ। বিশ্বের সেরা চার-পাঁচটা কঠিন দলগুলোর একটা নিউজিল্যান্ড।’

ওভালে ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকার বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচের পুরোটাই মাঠে বসে দেখেন বাংলাদেশ কোচ স্টিভ রোডস। উইকেট কেমন আচরণ করে সেটা জানাই ছিলো তার মিশন। ম্যাচ পরিকল্পনার জন্য তার সেই পরিশ্রম দারুণ কাজে লেগেছে। সেই একই উইকেটে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলে বাংলাদেশ। খানিকটা স্লো সেই উইকেট থেকে পুরো সুবিধা আদায় করে নেয় মাশরাফির দল। তবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটা হবে নতুন উইকেটে এবং কন্ডিশনেও কিছুটা ভিন্নতা আসছে। মঙ্গলবার দুপুর থেকে ওভালে গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি নামে। নিউজিল্যান্ড তাদের অনুশীলনের বাকি অর্ধেকটা সারে ইনডোরে। সন্ধ্যার পরে বাংলাদেশও ওপেন ফিল্ডিংয়ে ব্যাটিং- বোলিং অনুশীলন করতে পারেনি। ইনডোরে অনুশীলন করে। রাত সাতটার পর অবশ্য মাঠে ফিটনেস চর্চায় অংশ নেয় বাংলাদেশ। রাতে আর বৃষ্টি না নামলেও ওভালের আকাশ কালো মেঘে ঢাকা থাকে।

ওভালে হাসি নিয়ে শেষ করেছে বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচ। দ্বিতীয় ম্যাচেও সেই রৌদ্রজ্জল পারফরমেন্স দেখাতে পারলে নিশ্চিত থাকুন, বিশ্বকাপের পুরো হিসেবই বদলে যাবে। কাল ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে সারাক্ষণই হাসি লেগেছিলো বাংলাদেশ কোচের মুখে। বিশ্বকাপের সামনের সময় জুড়ে এই হাসিটা দীর্ঘায়িত করতে চান কোচ।