ডিজিটাল প্রযুক্তিই পারে দুর্নীতিকে জিরো টলারেন্সে নামিয়ে আনতে



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
"ডিজিটাল বাংলাদেশ: ভিয়েতনাম ও বাংলাদেশের জন্য সুযোগ ও চ্যালেঞ্জ" বিষয়ক সেমিনারে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক /ছবি: শাহরিয়ার তামিম

"ডিজিটাল বাংলাদেশ: ভিয়েতনাম ও বাংলাদেশের জন্য সুযোগ ও চ্যালেঞ্জ" বিষয়ক সেমিনারে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক /ছবি: শাহরিয়ার তামিম

  • Font increase
  • Font Decrease

দুর্নীতি দমনে ডিজিটাল প্রযুক্তি ভূমিকা রাখছে। শুধু ডিজিটাল প্রযুক্তিই পারে দুর্নীতিকে জিরো টলারেন্সে নামিয়ে আনতে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বুধবার (২৪ জুলাই) হোটেল ওয়েস্টিনে ভিয়েতনাম দূতাবাস ও বেটার বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন আয়োজিত  "ডিজিটাল বাংলাদেশ: ভিয়েতনাম ও বাংলাদেশের জন্য সুযোগ ও চ্যালেঞ্জ" বিষয়ক সেমিনারে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ডিজিটাল ভিলেজ নির্মাণে সকলের ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করতে হবে। বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের অধীনে দেশের সকল জেলায় হাই-টেক পার্ক অথবা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

পলক বলেন, ভিয়েতনাম আইসিটি সেক্টরে বাংলাদেশ সরকার যে কোনো প্রকার সহযোগিতা দিতে সব সময় প্রস্তুত।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/24/1563954437291.jpg

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী  বাংলাদেশের আইসিটি সেক্টর সম্পর্কে বিভিন্ন পরিস্থিতি তুলে ধরে বলেন, ‘বিশ্বে ৪০টি দেশে এই মুহূর্তে আমরা আইসিটি খাত থেকে রফতানি করি। এখন দেশে আইসিটি প্রোডাক্টের ১০০ কোটি ডলারের বেশি লোকাল বাজার রয়েছে। আমরা আইসিটি খাতে টার্গেট নির্ধারণ করেছি। ২০২১ সালের মধ্যে ৫০০ কোটি ডলার রফতানি করব। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাক্রমে ২০২১ সাল নাগাদ আমাদের জিডিপিতে ৫ শতাংশ অবদান থাকবে আইসিটি শিল্প। পাশাপাশি ২০ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা আগামী পাঁচ বছরে করতে সক্ষম হব।

বাংলাদেশে ভিয়েতনামের রাষ্ট্রদূত ট্র্যান ভ্যান খোয়া বলেন, আমরা শুধু বাণিজ্য সহযোগী নই, এমনই বন্ধু যে সব ক্ষেত্রই বাংলাদেশকে জয়ী দেখতে চাই। ভিয়েতনাম ব্যবসায়ীদের জন্য আইসিটি সেক্টরে বাংলাদেশ একটি ভাল বিনিয়োগের স্থান।

ভিয়েতনামের সফটওয়্যার কোম্পানি এফপিটি এর চেয়ারম্যান হং নাম থিন বলেন, সাইবার নিরাপত্তা খুবই জরুরি। বড় কোনো দেশ থেকে নয় আমাদের নিজেদেরই সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার প্রযুক্তি বের করতে হবে।

বেটার বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মাসুদ এ খান বলেন, বাংলাদেশ ১৭ কোটি মানুষের দেশ। এ বিপুল মানুষকে জনশক্তিতে পরিণত করতে হবে। বাংলাদেশ-ভিয়েতনাম দুই দেশ মিলে কাজের বিভিন্ন ক্ষেত্র বের করে একে অন্যকে সহযোগিতা করতে পারে।

সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর সেবা খাতের শীর্ষস্থানীয় বাণিজ্য সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এর সভাপতি হয়েছেন সৈয়দ আলমাস কবীর

সৈয়দ আলমাস কবির বলেন, বাংলাদেশ ও ভিয়েতনাম যদি সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতে একে অন্যকে যুক্ত করে তাহলে নিজেদের ত্রুটিগুলো সংশোধন করে বিশ্বে শীর্ষ স্থান অর্জন করতে পারে। ভিয়েতনাম ও বাংলাদেশ দুই দেশই পোশাক শিল্পে শীর্ষ স্থানে রয়েছে। দুই দেশ এক হলে এই খাতে আরো উন্নয়ন সম্ভব।

 

   

ডিসপ্লে আর লুকে দুর্দান্ত ভিভো ওয়াই ১৭ এস



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ফ্রস্টেড এলিগেন্স ডিজাইনের দারুণ চমকে দেশে যাত্রা শুরু করছে ভিভো ওয়াই১৭এস। আকর্ষণীয় গ্লিটার পার্পেল এবং ফরেস্ট গ্রিন রঙের ভিভো ওয়াই১৭এস স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, ৮৪০ নিটস হাই ব্রাইটনেস ডিসপ্লে, ৫০ মেগাপিক্সেল এইচডি ক্যামেরাসহ দারুণ সব ফিচার।

স্মার্টফোনে রঙের ব্যবহারে বরাবরই বেশ রুচিশীল গ্লোবাল স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভিভো। এবার ভিভো ওয়াই১৭এস এর ব্যাক সাইডের রঙ নির্বাচনেও পাওয়া যাচ্ছে এমনই রুচিশীলতার পরিচয়।

প্রথম লুকেই গ্লিটার পার্পেল কিংবা ফরেস্ট গ্রিন রং দেবে চোখের আরাম, মনে আসবে এক ধরনের প্রশান্তির অনুভূতি আর সেই অভিব্যক্তি মুখের ভাষায় হবে ‘‘অসাধারণ”। ব্যাক সাইডে ক্যামেরার চারপাশে স্কয়ার শেপের অভিনব গ্লসি ডিজাইন নজর কাড়বে সবার। ২.৫ডি কার্ভড ডিজাইন এবং কম্পোজিট ম্যাটেরিয়ালের সিল্কি স্মুথ ফিনিশ দেবে দুর্দান্ত গ্রিপ। তাই লুকে বাজিমাত করার পাশাপাশি মাত্র ১৮৬ গ্রামের স্মার্টফোনটি ব্যবহারের ক্ষেত্রে পাওয়া যাবে স্মুথ ও লাইট অভিজ্ঞতা।

এবার আসি, কেমন পারফরমেন্স করবে ভিভো ওয়াই১৭এস। স্মার্টফোনটির ডান পাশেরই রয়েছে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গার প্রিন্ট স্ক্যানার যা অত্যন্ত দ্রুত লক-আনলক করতে সক্ষম। রয়েছে ফেস ওয়াক। এই দুইটি ফিচার যেমন দ্রুত কাজ করে সময় বাঁচাবে তেমনি ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা দিয়ে ব্যবহারকারীকে রাখবে নিশ্চিন্ত। চাইলে ব্যবহারকারী ঠিক করতে পারবে তার স্মার্টফোন অন্যরা দেখার সময় কোনো অ্যাপ বা ইন্টারফেস দেখতে পারবে কি না। এমনকি নিরাপত্তার স্বার্থে লোকেশন এবং ব্যক্তিগত তথ্য বাদ দিয়ে ছবি শেয়ার করতে পারবে ব্যবহারকারী।

প্রসেসর হিসেবে মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৫ এবং অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে ফানটাচ ওএস১৩ রয়েছে ভিভো ওয়াই১৭এস এ। দু’য়ে মিলে এক অসাধারণ অভিজ্ঞতা দেবে স্মার্টফোনটি। ৬.৫৬ ইঞ্চি এলসিডি মাল্টিটাচ ক্যাপাসিটিভ ডিসপ্লেতে পাওয়া যাবে ১৬১২ × ৭২০ রেজুলেশন। এর ২৬৯ পিপিআই পিক্সেল ডেন্সিটি রঙের আসল উজ্জ্বলতা তুলে ধরে দেবে কন্টেন্ট উপভোগের অন্যন্য অভিজ্ঞতা। ৮৪০ নিটস পর্যন্ত ব্রাইটনেস থাকায় যেকোনো আলোতে ডিসপ্লে ব্যবহারে আলো-জটিলতা থেকে মুক্তি মিলবে সহজেই। যা এই বাজেটের মধ্যে এবারই প্রথম।

একাধিক অ্যাপ ব্যবহারের পাশাপাশি স্পিলিট স্ক্রিন মুড অন করে দুইটি অ্যাপ এক সাথে একই স্ক্রিনে কাজ করা যাবে। মাল্টিটাস্কিং এ অন্যন্য অভিজ্ঞতা পাওয়া যাবে ভিভো ওয়াই১৭এসে। রয়েছে ৬ জিবি র‌্যামের পাশাপাশি আরো ৬ জিবি র‌্যাম বাড়ানোর সুযোগ। স্টোরেজের দুশ্চিন্তা দূর করতে রয়েছে ১২৮ জিবি রমের সুবিধা।

১৩ ঘণ্টা টানা সট ভিডিও দেখা, ১৯ ঘণ্টার বেশি অনলাইনে কন্টেন্ট উপভোগ কিংবা ৬০ ঘণ্টা অনলাইনে গান শোনা-ভিভো ওয়াই১৭এস এর পাঁচ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি সুবাদে এই সকল সুবিধা উপভোগ করতে পারবে গ্রাহক। সাথে রয়েছে ১৫ ওয়াটের টাইপ সি ফ্ল্যাশ চার্জার। একবার চার্জে সারা দিনে ব্যবহারের দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা মিলবে নিমিষেই।

৫০ মেগাপিক্সেল রেয়ার ক্যামেরা লেন্সের পাওয়া যাবে ১.৮ এফ এ্যাপারচার। পারফেক্ট সেলফির জন্য রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং ২ মেগাপিক্সেল বোকেহ। সাথে রয়েছে চমৎকার সব ক্যামেরা মুড। রাতের ছবির জন্য রয়েছে সুপার নাইট মুড। রাতের দুর্দান্ত সব ছবি ধরা দেবে এই ক্যামেরা মুডে। আরো রয়েছে প্যানোরামা, লাইভ ফটো, স্লো-মো, টাইম-ল্যাপস, প্রো, ডকুমেন্টস মোড। তাই ক্যামেরায় নিজের হোক কিংবা অন্যের, ছবি হবে দশে দশ।
ভিভোর যেকোনো অথোরাইজড শো রুম কিংবা ই-স্টোরের আগামী ৭ অক্টোবর থেকে ১৫,৯৯৯ টাকায় হাতের নাগালে পাওয়া যাবে দুর্দান্ত ভিভো ওয়াই১৭এস ।

;

২৫ বছরে গুগল



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

২৭ সেপ্টেম্বর, আজ জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগলের ২৫তম জন্মদিন। এ উপলক্ষে গুগল বিশেষ ডুডল তৈরি করেছে। এতে গুগলের শুরুটা হয়েছিল কীভাবে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

১৯৯৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর ল্যারি পেইজ ও সের্গেই ব্রিন একটি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে গুগল প্রতিষ্ঠা করেন। ২০০৪ সালের ১৯ আগস্ট এটি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে পরিণত হয়। সময়ের সঙ্গে নিত্যনতুন পণ্য ও সেবা যোগ করে গুগল প্রতিনিয়ত নিজেদের আকার ও উপযোগিতা বাড়িয়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে।

বিশ্বের দেশগুলো থেকে দেড় শতাধিক ভাষায় কয়েক বিলিয়ন বার সার্চ করা হয় বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে। বিশাল এই কর্মযজ্ঞ সামলাতে অবশ্য প্রতিষ্ঠানটিকে কম খাটতে হয় না। এসব তথ্য প্রক্রিয়াকরণ ও তথ্য সংরক্ষণের জন্য বিশ্বব্যাপী গুগল গড়ে তুলেছে বিশালাকার একেকটি ডেটা সেন্টার।

গুগল সার্চ ইঞ্জিনের শুরুতে নাম রাখা হয়েছিল গুগোল (googol)। কিন্তু কোম্পানি নিবন্ধনের সময় বানান ভুল হওয়ার কারণে এর নাম গুগল (Google) হয়ে যায়। ১৯৯৮ সালে গুগল এক লাখ মার্কিন ডলার বিনিয়োগের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে। সেই বিনিয়োগ করেছিলেন সান মাইক্রোসিস্টেমের সহপ্রতিষ্ঠাতা অ্যান্ডি বেসটোলসহাইম।

;

স্মার্টফোনে আসক্তি বাড়ছে শিক্ষার্থীদের



মৃত্যুঞ্জয় রায়, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সাতক্ষীরা
স্মার্টফোনে আসক্তি বাড়ছে শিক্ষার্থীদের

স্মার্টফোনে আসক্তি বাড়ছে শিক্ষার্থীদের

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনা মহামারির পর থেকেই স্মার্টফোন যেন কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে শিক্ষার্থীদের। করোনাকালে মানুষের জীবনে এসেছে অনেক পরিবর্তন এবং সেই সঙ্গে ইন্টারনেট মানুষকে আধুনিকায়ন হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে।

কিন্তু করোনাকালের পর থেকেই সব শিক্ষার্থীরা যেন আসক্তি হয়ে পড়েছে স্মার্টফোনে থাকা টিকটক ভিডিও, অনলাইন গেম এবং অনলাইন জুয়ায়। সেই সঙ্গে বেড়ে চলেছে ইন্টারনেটের অপব্যবহার।

তেমনি সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কের শাকদহা নামক ব্রিজে গাড়ি দিয়ে যেতে যেতেই দেখা মেলে কিছু যুবকের লাঠি  হাতে নিয়ে টিকটক ভিডিও করার দৃশ্য।

দেখা যায়, তারা একে অপরকে মারছে আর সেই দৃশ্য তাদের স্মার্টফোনে ভিডিও ধারণ করে নিচ্ছে। শুধু শহরের শাকদহা ব্রিজ নয়, বাইপাস সড়ক যেন টিকটকারদের আস্তানা। বিকেলে বের হলে দেখা মেলে স্মার্টফোন ও ডিজিটাল ক্যামেরা হাতে নিয়ে ভিডিও করার দৃশ্য।

স্মার্টফোনের এই ভিডিও ধারণ করে কি হবে এমন প্রশ্নে নাম গোপন করা এক যুবক বলেন, আমরা বন্ধুরা মিলে শখের বসে এগুলো করি। আমাদের ভালো লাগে আমরা ভিডিও করে টিকটক, ইউটিউব, এবং ফেসবুকে আপলোড করি। সেই ভিডিওতে হাজার হাজার ভিউ হলে আমাদের অনেক ভালো লাগে। শখের বসে ভিডিও করে অনেক সাড়া পাচ্ছি, মাঝে মাঝে নিজেদেরকে সেলিব্রিটি মনে হয় এমনই বলছিলেন নাম গোপন করা ওই যুবক।

শুধু টিকটক, লাইক ভিডিও নয়। শহরে এবং গ্রামে গঞ্জে দেখা মেলে বেশিরভাগ শিশু অনলাইন গেমে আসক্তি। ফ্রি ফায়ার ও পাবজি যেন তাদের মস্তিষ্ক দখল করে নিয়েছে।

তেমনি গ্রামের এক দোকানে গেলেই দেখা মেলে চোরাটে বসে অনেক গুলো যুবক গেম খেলছে এবং পাশ থেকে সবাই উঁকি মেরে দেখছে। সবার মন যেন গেমে, কেউ ডাকলে বা কল দিলে ধরা বা শোনার সময় নেই তাদের।

তাদের আত্মীয় স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শিক্ষার্থীরা রাত দিন সব সময় গেম খেলে সময় কাটান। তারা অনেক অনেক দিন সারা রাত ও গেম খেলে পার করেন। তারা যেন আসক্ত হয়ে গেছে। স্কুল থেকে এসেই তারা ফোন নিয়ে গেম খেলতে বসে। গেম খেলা যেন তাদের প্রতিদিনের রুটিন হয়ে গেছে। তিন বেলা ভাত খায় আর গেম এটাই তাদের জীবন। স্মার্টফোন তাদের জীবনে কাল হয়ে আসছে কিন্তু তাদের বোঝানোর কোনো উপায় না।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, এই সময়ে যুবকরা অনলাইন গেম, টিকটক, অনলাইন জুয়ায় খুব আসক্তি হয়েছে। তারা মরিয়া হয়ে উঠেছে এসব অনলাইন গেমে অনেকেই আসক্তি হয়ে আত্মহত্যাও করছে। তাই আমাদের উচিত সোচ্চার হওয়া। সব বাবা মা যদি তাদের সন্তানদের নিজের দখলে রাখতে পারতো তাহলে এমন অধপতন হতো না। আমরা সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করবো এসব অনলাইন গেম, টিকটক, অনলাইন জুয়া যেন বন্ধ করে দেয়।

;

চলতি বছরে নতুন যে ৬ ফিচার যুক্ত হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপে



টেক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপে নতুন ফিচার যোগ করেছে মেটা। ‘হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেল’ নামের এই ফিচারের মাধ্যমে পছন্দের ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের চ্যানেল যেমন খুঁজে পাওয়া যাবে, তেমনি খোলা যাচ্ছে নিজেরও চ্যানেলও। গত জুনে প্রাথমিকভাবে কয়েকটি দেশে চালু হওয়ার পর, এটি এখন মিলছে ১৫০টি দেশে।  সম্প্রতি সংযুক্ত আরব আমিরাতেও হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেল লঞ্চ করা হয়েছে।

এছাড়া কিছু দিন পর পর নতুন ফিচার নিয়ে হাজির হয় হোয়াটসঅ্যাপ। এবার দারুণ সব আপডেট যুক্ত করেছে হোয়াটসঅ্যাপ। এতে করে ব্যবহারকারীরা পাবেন বাড়তি সুবিধা।

পাঠানো মেসেজ এডিট করা

আপনি যদি এখনও পাঠানো মেসেজ এডিট করার অপশনটি না দেখে থাকেন তা্হলে এখুনি দেখুন।  ভুলে করে একটি মেসেজ দিয়েছেন, ভাবছেন পড়ে ফেললে কেমন হবে। তাহলে এখুনি এডিট করে নিন। যাকে মেসেজটি পাঠিয়েছেন তিনি যদি না দেখে থাকে, আপনি ১৫ মিনিট সময় পাবেন এটি এডিট করার জন্য।  

ইনস্ট্যান্ট ভিডিও পাঠানো

হোয়াটসঅ্যাপে শর্ট ভিডিও পাঠানোর নতুন ফিচার যুক্ত হয়েছে। এই ফিচারের সাহায্যে ইউজাররা শর্ট ভিডিও (৬০ সেকেন্ড পর্যন্ত) পাঠানোর সুবিধা পাবেন। হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নতুন এই ভিডিওর মাধ্যমে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো, কোনো কৌতুকে হাসা কিংবা সুসংবাদ জানানোর মুহূর্তের আবেগ, কারো সাথে শেয়ার করা আনন্দময় হবে।

এইচডি কোয়ালিটির ছবি পাঠানো

হোয়াটসঅ্যাপ আপনার ছবির মান নষ্ট করে তা নিয়ে চিন্তিত? ঠিক আছে, এই নতুন ফিচারে ব্যবহারকারীরা যখনই চাইবেন তখনই হাই কোয়ালিটির ছবি পাঠাতে পারবেন।

কাউকে না জানিয়ে গ্রুপ থেকে বের হওয়া

এখন থেকে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে নিরবে বের হওয়া যাবে। অ্যাডমিন ছাড়া কেউ টের পাবেন না।

পাসওয়ার্ড দিয়ে সুরক্ষিত চ্যাট

নতুন ফিচারে ব্যবহারকারী তাদের চ্যাট পৃথক ফোল্ডারে ব্যক্তিগতভাবে সুরক্ষিত রাখতেন পারবেন। একটি পাসওয়ার্ড দিয়ে এই চ্যাট সুরক্ষিত রাখা হবে।

একটি অ্যাকাউন্ট দিয়ে ৪ ফোনে ব্যবহার করা যাবে হোয়াটসঅ্যাপ

ব্যবহারকারীরা নতুন ফিচারে চারটি মোবাইল ফোনে একটি অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতে পারবেন। মাল্টি-ডিভাইস ফিচারটি দীর্ঘদিন থেকে চালু রয়েছে, যা ব্যবহারকারীদের ল্যাপটপ, ট্যাবলেটের মতো একাধিক ডিভাইসে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে দেয়৷ কিন্তু এই নতুন ফিচারটিতে ব্যবহারকারী ৪টি মোবাইল ফোনে একটি অ্যাকাউন্ট লগইন করতে পারবেন।

;