গেস্টরুমে শিক্ষার্থী নির্যাতন বিরোধী আইন প্রণয়নের দাবি



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
গেস্টরুমে শিক্ষার্থী নির্যাতন বিরোধী আইন প্রণয়নের দাবি

গেস্টরুমে শিক্ষার্থী নির্যাতন বিরোধী আইন প্রণয়নের দাবি

  • Font increase
  • Font Decrease

গেস্টরুমে শিক্ষার্থী বন্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উচিত আইন প্রণয়ন করা। আইন তৈরি করা হলে শিক্ষার্থী নির্যাতনে কেউ আর তেমন সাহস দেখাবে বলে মনে করেন ছাত্র অধিকার পরিষদ।

শুক্রবার (২০ মে) শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নির্যাতন বন্ধ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেন বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়টির সন্ত্রাস রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে ছাত্র অধিকার পরিষদ সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লার সভাপতিত্বে ও ঢাবি শাখার সহ-সভাপতি আসিফ মাহমুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হওয়া এক সমাবেশে এমনটা দাবি জানায় বক্তারা।

সমাবেশে বিন ইয়ামিন মোল্লা বলেন, দেশ স্বাধীন করেছিল এই ছাত্ররা। আজ তাদেরই স্বাধীন দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পরাধীন অবস্থায় বসবাস করতে হয়। এই ক্ষমতালোভী দখলদাররাই ছাত্রদের পরাধীন করে রেখেছে। বাংলাদেশ স্বাধীন হলেও কার্যত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর হলে ছাত্ররা স্বাধীন নয়। তাদের দোষ তারা ছাত্রলীগের কথা শুনে না, তাদের প্রোগ্রামে যায় না, তারা মিছিলে ডাকলে মিছিলে যায় না। না গেলে তাদের টর্চারসেলে নিয়ে টর্চার করা হয়। গণরুমে নিয়ে তাদের নির্যাতন করা হয়।

ঢাবি ছাত্র অধিকার পরিষদের সহ সভপাতি আসিফ মাহমুদ বলেন, ২০১৮ এর পরবর্তীতে হলগুলোতে যতবার নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে ততবারই আমরা আজকের এ জায়গাতে দাঁড়িয়েছে। খুব কম সংখ্যকই নির্যাতনে অভিযুক্তরা শাস্তি পেয়েছেন। নির্যাতনের ঘটনায় নির্যাতিতরা তাঁদের নিজের পক্ষে কথা বলে না। শাস্তির দাবি জানাতে গিয়ে পরবর্তী আমাদেরকেই বিপত্তিতে পড়তে হয়। এমন নির্যাতনের ঘটনায় আর কাউকে যেন না পড়তে সেজন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এছাড়া ডাকসু নির্বাচনের পাশাপাশি শীগ্রই গেস্টরুম নির্যাতন বিরোধী আইনের দাবি জানান তিনি।

ডাকসুর সাবেক সমাজ সেবা সম্পাদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতি আখতার হোসেন বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেকটি হলে কোথায় কখন, কিভাবে কোন শিক্ষার্থীর উপর যাঁরা নির্যাতন চালিয়েছেন তাঁদের নাম লিপিবদ্ধ করা হচ্ছে। আজ হোক আর হোক কিংবা ১০০ বছর পর হলেও তাদের কাঠগড়ায় দাঁড় করাব আমরা।

তিনি আরো বলেন, ডাকসু নির্বাচনে শিক্ষার্থীরা কিছু কথা বলার অধিকারটুকু পেয়েছিল। কিন্ত প্রশাসনের সদিচ্ছার অভাবে সেই ডাকসু নির্বাচন হচ্ছে না। অচিরেই ডাকসু নির্বাচনের পাশাপাশি গেস্টরুমে নির্যাতন বিরোধী আইন প্রণয়নের জন্য প্রশাসনকে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান এ ছাত্রনেতা।

এ সময় ছাত্র অধিকার পরিষদের আসাদ বিন রনি, আবির ইসলাম সবুজ, অর্ণব হোসাইন, নেওয়াজ খান বাপ্পি, সাকিব চৌধুরী, মো. ফরহাদ, তুহিন, ইসমাইল সম্রাট, আনাফ সাইদ খান, সোহেল মৃধা সহ আরো অনেকে বক্তব্য রাখেন।

শিল্পগুরু সফিউদ্দীন আহমেদ সম্মাননা পেলেন ৭ বিশিষ্ট শিল্পী



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
শিল্পগুরু সফিউদ্দীন আহমেদ সম্মাননা পেলেন ৭ বিশিষ্ট শিল্পী

শিল্পগুরু সফিউদ্দীন আহমেদ সম্মাননা পেলেন ৭ বিশিষ্ট শিল্পী

  • Font increase
  • Font Decrease

শিল্পগুরু সফিউদ্দীন আহমেদের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা অনুষদ ও প্রিন্টমেকিং বিভাগের যৌথ উদ্যোগে দেশের ৭ জন বিশিষ্ট শিল্পীকে ‘শিল্পগুরু সফিউদ্দীন আহমেদ সম্মাননা-২০২২’ প্রদান করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৪ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়টির চারুকলা অনুষদের বকুলতলায় এক অনুষ্ঠানে সম্মাননা প্রাপ্ত শিল্পীদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়।

সম্মাননা প্রাপ্ত শিল্পীরা হলেন- শিল্পী অধ্যাপক মোহাম্মদ কিবরিয়া (মরণোত্তর), শিল্পী অধ্যাপক রফিকুন নবী, শিল্পী মনিরুল ইসলাম, শিল্পী অধ্যাপক মাহমুদুল হক, শিল্পী কালিদাস কর্মকার (মরণোত্তর), শিল্পী শহিদ কবীর এবং শিল্পী অধ্যাপক আবুল বারক্ আলভী।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের রুটিন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশের আধুনিক শিল্পকলা জগতের পথিকৃৎ শিল্পগুরু সফিউদ্দীন আহমেদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, তিনি অত্যন্ত সৎ, নিষ্ঠাবান, বিনয়ী, শান্ত ও স্বল্পভাষী মানুষ ছিলেন। সাহসী এই শিল্পী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে অসংখ্য ছবি এঁকেছেন। শিল্পের উৎকর্ষ সাধনে তিনি আজীবন কাজ করে গেছেন। তার জীবন, কর্ম, শিল্প ও রুচিবোধ, দেশপ্রেম, ক্সশল্পিক চিন্তা এবং মানবিক মূল্যবোধ বহন করে সামনে এগিয়ে নেওয়ার জন্য তিনি তরুণ প্রজন্মের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রিন্টমেকিং বিভাগের চেয়ারম্যান শেখ মোহাম্মদ রোকনুজ্জামানের সভাপতিত্বে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেন, শিল্পী আহমেদ নাজির, দুর্জয় ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান দুর্জয় রহমান জয়, শিল্পগুরু সফিউদ্দীন আহমেদ জন্মশতবর্ষ উদ্যাপন পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক রোকেয়া সুলতানা, সদস্য-সচিব অধ্যাপক মো. আনিসুজ্জামান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, দেশের আধুনিক ছাপচিত্রের জনক শিল্পগুরু সফিউদ্দীন আহমেদ। ছাপচিত্রের পাশাপাশি রেখাচিত্র ও তেলচিত্রের ভুবনকেও উৎকর্ষমণ্ডিত করেছেন এই পথিকৃৎ শিল্পী। দেশের শিল্প-আন্দোলন ও প্রয়াসকে নানাভাবে সঞ্জীবিত করেছেন। ১৯২২ সালের সালের ২৩ জুন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন এ বরেণ্য শিল্পী।

;

ঢাবি আইবিএ'র বিবিএ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ঢাবি আইবিএ'র বিবিএ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবি আইবিএ'র বিবিএ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট (আইবিএ)-এর বিবিএ প্রোগ্রামের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (২৪ জুন) সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে বিশ্ববিদ্যালয়টি গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে। আইবিএ’র ভর্তি পরীক্ষায় মোট ১২০টি আসনের বিপরীতে ৬,৩৩৬ জন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।

এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের রুটিন দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, উপ-ভাইস চ্যান্সেলর (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল এবং কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ আব্দুল মোমেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূইয়া, প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী, বিবিএ প্রোগ্রামের কো-অর্ডিনেটর ড. রেজওয়ানুল হক খানসহ ইনস্টিটিউটের শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

;

‘স্যার আজকে আমার মন ভালো নেই’ লিখে বিপাকে জবি শিক্ষার্থী



জবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
স্যার আজকে আমার মন ভালো নেই

স্যার আজকে আমার মন ভালো নেই

  • Font increase
  • Font Decrease

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) এক শিক্ষার্থী মিডটার্ম পরীক্ষার খাতায় ‘স্যার আজকে আমার মন ভালো নেই’ লিখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করায় শাস্তির মুখোমুখি হতে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) লেখাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। অভিযুক্ত ওই শিক্ষার্থীর নাম তানভীর মাহতাব। তিনি ইংরেজী বিভাগের (২০২০-২০২১) শিক্ষাবর্ষে অধ্যয়নরত। তার দেশের বাড়ি নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচরে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মিডটার্ম পরীক্ষার অতিরিক্ত একটি উত্তরপত্র নিয়ে যান ওই শিক্ষার্থী। পরে বুধবার রাতে সেই উত্তরপত্রে ‘স্যার আজকে আমার মন ভালো নেই’ লিখে নিজের ফেসবুক আইডিতে পোস্ট দেন তিনি। তারপর লেখাটি ভাইরাল হয়ে যায়। পরে ওই শিক্ষার্থী পোস্টটি ডিলিট করে দেন।

এ বিষয়ে তানভীর মাহতাব বলেন, তিনি এ নিয়ে তার টাইমলাইনে ফানি পোস্ট দিয়েছেন। পরে বুঝতে পেরে তিনি পোস্টটি ডিলিট দিয়ে দেন। তিনি বুঝতে পারেননি বিষয়টি এইরকম ভাইরাল হয়ে যাবে। তিনি আরও বলেন, ইনভিজিলেটরের স্বাক্ষর তিনি করেছেন।

ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. মমিন উদ্দীন বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে আমরা পরিষ্কারভাবে এখনও কিছু জানি না। ওই শিক্ষার্থীকে রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে দেখা করতে বলা হয়েছে। তখন আমরা বিষয়টি সম্পর্কে সম্পূর্ণভাবে জেনে পরবর্তী পদক্ষেপ নিবো। ভাইরাল হওয়া অতিরিক্ত উত্তরপত্রে ইনভিজিলেটর স্বাক্ষরটি ইংরেজি বিভাগের কোনো শিক্ষকের নয় বলে জানিয়েছেন বিভাগের চেয়ারম্যান।

বিষয়টি গুরুতর অপরাধ হলে ওই শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা বহিষ্কার করতে পারি না। এটা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেবে। তবে আমরা বিষয়টি নিয়ে রোববার ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত দিবো।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমি এখনও কিছু জানি না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এ কে এম আক্তারুজ্জামান বলেন, বিষয়টি নিয়ে বিভাগ যা বলবে তা। তাছাড়া উত্তরপত্রটি আমি দেখিনি। তাই এবিষয়ে কিছু বলা যাচ্ছে না।

;

জবিসাস ও ঢাকসাস প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত



জবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
জবিসাস ও ঢাকসাস প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত

জবিসাস ও ঢাকসাস প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা কলেজ সাংবাদিক সমিতি ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির মধ্যে প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) বেলা ১১টায় ঢাকা কলেজের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে উক্ত ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। ম্যাচে ঢাকা কলেজ সাংবাদিক সমিতিকে (ঢাকসাস) তিন উইকেটে পরাজিত করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (জবিসাস)।

খেলায় টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ঢাকা কলেজ সাংবাদিক সমিতি। নির্ধারিত ১০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ৬৩ রান সংগ্রহ করে তারা। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩ বল হাতে রেখেই লক্ষ্যে উতরে যায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি টিম। ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হন জবিসাসের ক্যাপ্টেন আহসান জোবায়ের।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আহসান জোবায়ের বলেন, আমরা নিজেরা ক্যাম্পাস সাংবাদিকদের মধ্যকার সম্পর্ক বৃদ্ধির জন্য এমন আয়োজন করেছি। ভবিষ্যতেও আমরা এমন সুন্দর আয়োজন অব্যাহত রাখবো।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা কলেজ সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আনাস ভূঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হাকিম, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আহসান জোবায়ের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ প্রমুখ।

;