আবরারের মৃত্যু: ঢাবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল

ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ঢাবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ মুজাহিদের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

সোমবার (৭ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে সন্ত্রাসবিরোধী রাজুভাস্কর্য থেকে এ বিক্ষোভ মিছিল শুরু করেন তারা। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ফটক প্রদক্ষিণ করে বুয়েট ক্যাম্পাসের দিকে যায় শিক্ষার্থীরা।

আরও পড়ুন: বুয়েট ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু

ঢাবির ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুনের নেতৃত্বে মিছিলে অংশ নেন কয়েকশ’ শিক্ষার্থ। এ সময় তারা ‘আবরারের রক্ত বৃথা যেতে দেব না’, ‘শিক্ষা সন্ত্রাস একসাথে চলে না, উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ এ ধরনের স্লোগান ও প্ল্যাকার্ড বহন করেন।

 

মিছিলে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ হিল বাকী অভিযোগ করেন বলেন, ‘এটি একটি হত্যাকাণ্ড। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া আমাদের কি হওয়া উচিত সেটাও জানা নেই। তবে নৈতিক দায়িত্ববোধ থেকে আমি এখানে অংশগ্রহণ করেছি। কারণ, কাল এটি আমার ক্ষেত্রেও হতে পারে।’

আরও পড়ুন: আবরারের মৃত্যু: জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২ ছাত্রলীগ নেতা আটক

বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার কুষ্টিয়া শহরের পিটিআই রোডের বাসিন্দা মো. বরকত উল্লাহর ছেলে। বরকত উল্লাহ ব্র্যাকের নিরীক্ষক কর্মকর্তা আর আবরারের মা রোকেয়া খাতুন একটি কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষক।

চকবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কমকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সোহরাব হোসেন জানান, সোমবার ভোরে শেরে বাংলা হলের সিঁড়ি থেকে এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছেন তারা। মধ্য রাতের দিকে তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আবরারের পায়ে এবং হাতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলেও জানান তিনি।

অপরদিকে আবরার ফাহাদ মুজাহিদকে সিঁড়ি থেকে ফেলে দিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছেন অন্য শিক্ষার্থীরা।

আপনার মতামত লিখুন :