রাতে বিরতি, বুধবার সকাল থেকে ফের আন্দোলন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
বিফ্রিং করেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

বিফ্রিং করেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সহপাঠী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে দিনভর আন্দোলনের পর রাতে বিরতি দিয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) রাত ১০টার দিকে বিফ্রিং করে সাংবাদিকদের এ কথা জানান আন্দোলনকারীরা। তারা বলেন, আমাদের যে দাবি ছিল, ভিসির কথায় সে দাবি পূরণের আশ্বাস পাইনি। তাই আগামী বুধবার (৯ অক্টোবর) সকাল থেকে আবারও আন্দোলনে করব।

শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, বুধবারের পরিস্থিতি বিবেচনা করে আমাদের দাবিগুলোর মধ্যে পরিবর্তন আসতে পারে।

আরও পড়ুন: ৫ ঘণ্টা পর মুক্ত হলেন বুয়েট ভিসি

এদিকে, প্রায় ৫ ঘণ্টা পর উপাচার্যের (ভিসি) কার্যালয়ের প্রবেশ ও বহির্গমনের তালা খুলে দেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। তবে এখনো ক্যাম্পাস ছাড়েননি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম।

এর আগে, বিকেল ৫টা পর্যন্ত মুখোমুখি কথা বলার জন্য ভিসিকে আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। কিন্তু তাদের সঙ্গে কথা না বলে বিকেল সাড়ে ৪টায় বুয়েটের কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশের গেট দিয়ে তার কার্যালয়ে প্রবেশ করেন ভিসি। সেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন ও বিভাগীয় প্রধানদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি।

আরও পড়ুন: অধৈর্য হয়ো না, তোমাদের পাশে আছি: উপাচার্য

এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ভিসির কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন আন্দোলনকারীরা। বিকেলে সাড়ে ৫টার দিকে ভিসির কার্যালয়ের প্রবেশ ও বহির্গমনের গেটে তালা ঝুলিয়ে দেন তারা। পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে ভিসি ড. সাইফুল ইসলাম আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের মুখোমুখি হন। তাদের দাবি পূরণের আশ্বাস দেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত রোববার (৬ অক্টোবর) রাতে বুয়েটের শের-ই বাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে ডেকে নিয়ে আবরারকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাসহ ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে ১০ জনের পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আরও পড়ুন: ২ দিন পর শিক্ষার্থীদের মুখোমুখি বুয়েট ভিসি

৫ অক্টোবর নিজের ফেসবুক আইডি থেকে করা এক পোস্টের জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আবরারের বাবা বরকতউল্লাহ ১৯ জনকে আসামি করে রাজধানীর চকবাজার থানায় হত্যা মামলা দাযের করেন।

আপনার মতামত লিখুন :