ঢাবিতে শুরু হচ্ছে শহীদ স্মৃতি ভলিবল প্রতিযোগিতা

ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
সংবাদ সম্মেলনে ডাকসুর ক্রীড়া সম্পাদক শাকিল আহমেদ তানভীর

সংবাদ সম্মেলনে ডাকসুর ক্রীড়া সম্পাদক শাকিল আহমেদ তানভীর

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদদের স্মরণে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) উদ্যোগে এবার শুরু হতে যাচ্ছে ‘ডাকসু শহীদ স্মৃতি ভলিবল প্রতিযোগিতা-২০১৯।’ আগামী ২২ নভেম্বর উদ্বোধনী খেলার মধ্য দিয়ে এটি শুরু হবে।

সোমবার (১১ নভেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান ডাকসুর ক্রীড়া সম্পাদক শাকিল আহমেদ তানভীর।

এসময় লিখিত বক্তব্যে শাকিল জানান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়াঙ্গনের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে ডাকসু নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এ পর্যন্ত ডাকসু ১২টির অধিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন ও সহযোগিতা করেছে। তার ধারাবাহিকতায় ডাকসু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়ামোদি শিক্ষার্থীদের জন্য ভিন্নধর্মী ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, ডাকসুর উদ্যোগে আগামী ২২-২৩ নভেম্বর শুক্রবার ও শনিবার শারীরিক শিক্ষা কেন্দ্রে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদদের স্মরণে শিক্ষার্থীদের নিয়ে ‘ডাকসু শহীদ স্মৃতি ভলিবল প্রতিযোগিতা-২০১৯’ আয়োজন করতে যাচ্ছে। এর আগে গত ৩-৬ নভেম্বর পর্যন্ত প্রত্যেক বিভাগ ও হল সংসদের অভ্যন্তরীণ ক্রীড়া সম্পাদকের মাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে খেলায় অংশগ্রহণের নিবন্ধন আহ্বান করা হয়।

শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া বিমোহিত করেছে উল্লেখ করে শাকিল বলেন, শিক্ষার্থীরা আমাদের বিমোহিত করেছে। শিক্ষার্থীদের মধ্য হতে প্রাপ্ত আবেদনের মধ্যে গত ৭ ও ৮ নভেম্বর লটারির মাধ্যমে গঠিত হয় মেয়েদের ছয়টি দল যা দুটি গ্রুপে ভাগ করা হয় ও ছেলেদের ১২টি দল যা চারটি গ্রুপে ভাগ করা হয়। মোট ১৮টি দল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে।

দলের নামকরণ করা হয়েছে মহান মুক্তিযুদ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রদ্ধেয় ১৮ জন শহীদ শিক্ষকদের নামে। এসময় তিনি শহীদের স্মরণ করে বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে ত্রিশ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের স্বাদ। পাকি বর্বরতার থাবা থেকে রেহাই পায়নি দেশের সবোর্চ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ও।

তিনি আরও বলেন, দেশের জন্য বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়েছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ আপামর অনেকেই। তাদের স্মরণের প্রয়াস হিসেবেই ডাকসুর পক্ষ থেকে আয়োজিত হতে যাচ্ছে এই প্রতিযোগিতা।

আপনার মতামত লিখুন :