১২ বছর পর নীলফামারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, নীলফামারী
বক্তব্য রাখছেন বিএম মোজাম্মেল হক, ছবি: সংগৃহীত

বক্তব্য রাখছেন বিএম মোজাম্মেল হক, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দীর্ঘ ১২ বছর পর নীলফামারী সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার (২০ অক্টোবর) নীলফামারী শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

১২ বছর আগে মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়া এ কমিটির ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, বিশেষ অতিথি হিসেবে স্থানীয় সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

অ্যাড. আলিমুদ্দিন বসুনিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী-১ আসনের সংসদ সদস্য আফতাব উদ্দিন সরকার, মহিলা সংসদ সদস্য রাবেয়া আলিম প্রমুখ।

২০০৫ সালে কমিটি গঠনের পর এটাই কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রথম সভা। সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রথম সারির নেতাদের মতে এটা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক দুর্বলতা বলে মনে করছেন।

এদিকে সম্মেলনে সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবুজার রহমানকে সভাপতি এবং জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুদ রহমানকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করা হয়।

অপর দিকে আগামীকাল সোমবার (২১ অক্টোবর) নীলফামারী পৌর আওয়ামী লীগের কাউন্সিলকে ঘিরে দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক তোড়জোড় শুরু হয়েছে। বিশেষ করে সাধারণ সম্পাদক পদে ৪-৫ জন প্রার্থী কাউন্সিলারদের ঘুম হারাম করে ছেড়েছেন। কাউন্সিলকে ঘিরে দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে যেমন উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে তেমনি দলীয় নেতা নির্বাচন নিয়ে শুরু হয়েছে ব্যাপক জল্পনা কল্পনার।

তবে সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আল মাসুদ আলাল ছাড়াও সাবেক ছাত্রলীগ ও শ্রমিক নেতা আতিয়ার রহমান, ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহানুর আলম ছানু ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নেতা মৃণাল কান্তি রায় মাঠে নামলেও সভাপতি পদের নেতৃত্ব নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে।

বর্তমান সভাপতি মুসফিকুল ইসলাম রিন্টু ছাড়াও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হলের সাবেক ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি জাফর সাদেক তুহিন ও আনিছুর রহমান প্রচারণা চালিয়ে গেলেও পৌর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে চমক আসতে পারে বলে জোর গুঞ্জন উঠেছে।

আপনার মতামত লিখুন :