এখনো ত্রাণ পায়নি বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্ত ২০ পরিবার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট,বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম,বরগুনা
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

আঘাতের ১৪ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনো ত্রাণ পায়নি ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্ত বরগুনার তালতলী উপজেলার ২০টি পরিবার। ভাঙা ঘরে মানবেতর জীবন যাপন করছে পরিবারগুলো। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, ইউপি সদস্য আলম হাওলাদার ইচ্ছা করেই ভাঙা ঘরের তালিকায় তাদের নাম অন্তর্ভুক্ত করেনি। 

তেতুঁলবাড়ীয়া গ্রামের ভুক্তভোগী সেলিম হাওলাদার ও খাদিজা বলেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে আমাদের ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। এই ১৪ দিনেও কেউ ত্রাণ নিয়ে আসেনি।

এ দিকে ভুক্তভোগী রোজিনা বলেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের দিন সকালে ইউপি সদস্য আলম হাওলাদার এসে ভাঙা ঘর দেখে গেছেন, কিন্তু তিনি ইচ্ছা করেই আমাদের কারো নাম অন্তর্ভুক্ত করেননি। তার আত্মীয়-স্বজনের নাম তালিকায় রেখেছেন।

ইউপি সদস্য আলম হাওলাদার গাফলতির কথা অস্বীকার করে বলেন, ওই এলাকার ভাঙা ঘরের তালিকা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কাছে দিয়েছিলাম, কিন্তু তিনি নামগুলো কেটে দিয়েছেন।

নিশানবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দুলাল ফরাজী বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন এ বিষয়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার সাথে কথা বলেন। আমি কিছু জানি না- বলে ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন তিনি।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. মহসীন উল হাসানের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি।

তালতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেলিম মিঞা (ভারপ্রাপ্ত) বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, ক্ষতিগ্রস্থ এলাকার খোঁজ খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :