নাটোরে তিন ভাইয়ের ৭ বছর করে কারাদণ্ড

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, নাটোর
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নাটোরের লালপুরে হত্যা মামলায় তিন ভাইকে সাত বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) বিকেলে নাটোরের দায়রা জজ আবদুর রহমান সরদার এই দণ্ডাদেশ দেন। এসময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন-নাটোরের লালপুর উপজেলার শৈলা গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে শাহীন (৪৬) আয়াতুল্লাহ (৪৩) ও সানা (৩৭)।

মামলার বিবরণে জানা যায়, মামলার বাদি একই উপজেলার আহম্মদপুর গ্রামের নাজমুল ইসলাম। ২০০৮ সালের ৮ এপ্রিল বিকেল ৩টার দিকে বাদির পিতা রেফাজ উদ্দিন সরকার শৈলা ইক্ষু কেন্দ্রের সামনের রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় আসামিরা পূর্ব বিরোধের জের ধরে তাকে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে ফেলে রেখে যায়।

পথচারীরা অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে পাবনা জেলার ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরের দিন তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় লালপুর থানায় হত্যা মামলা হয়। তদন্ত শেষে লালপুর থানার উপ-পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম একই বছরের ১৩ নভেম্বর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলাটি বিচারের জন্য দায়রা জজ আদালতে আসলে ১১ জন সাক্ষির সাক্ষ্য প্রমাণের ওপর ভিত্তি করে দণ্ডবিধির ৩০৪ ধারার অপরাধ (অবহেলাজনিত মৃত্যু) প্রমাণিত হওয়ায় আদালত তিন সহোদরের বিরুদ্ধে উল্লেখিত দণ্ডাদেশ দেন।

দায়রা জজ আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) মাসুদ হাসান বলেন, মামলাটি যদিও নরহত্যা অর্থাৎ ৩০২ ধারায় দায়ের করা হয়েছিল। কিন্তু বিচারকালে আসামিদের বিরুদ্ধে পূর্ব পরিকল্পিত হত্যা করার অপরাধ প্রমাণিত হয়নি। তবে আসামিদের মারপিটের কারণেই মৃত্যু সংঘটিত হয়েছে। কাজেই এর দায় আসামিদেরকেই বহন করতে হবে।

আপনার মতামত লিখুন :