নদী রক্ষায় গড়াইয়ের তীরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুষ্টিয়া
নদী রক্ষায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

নদী রক্ষায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

  • Font increase
  • Font Decrease

নদী বাঁচানোর আকুতি নিয়ে কুষ্টিয়া শহরের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া গড়াই নদীর তীরে ‘১৩শ নদী শুধায় আমাকে’ শীর্ষক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়েছে। শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) বিকেলে গড়াই নদীর রেনইউক বাঁধে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জেলা শিল্পকলা একাডেমি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক মো. আমিরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদুর রহমান রবি, শাহীন সরকার, জেলা কালচারাল অফিসার সুজন রহমান, সাংবাদিক ড. আমানুর আমান, এসএম জামালসহ স্থানীয় শিল্পীগোষ্ঠীর সদ্যরা।

ব্যতিক্রমধর্মী এ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের শুরুতেই আমিরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা আজ যে ইলিশ মাছ নিয়ে গর্ব করি, তা কিন্তু এই নদীরই দান। আর একটি কথা তো বহু বছর ধরে প্রচলিত, আমরা মাছে ভাতে বাঙালি। যদিও নদীর সঙ্গে সঙ্গে আমাদের সেই ঐতিহ্যও আজ হারাতে বসেছে।’

গান পরিবেশন করেন শিল্পীরা

তিনি আরও বলেন, ‘সংস্কৃতি চর্চার কেন্দ্রবিন্দু গড়ে তোলার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। যার ফলশ্রুতিতে নদীমাতৃক এই দেশকে বাঁচাতে শিল্পকলা একাডেমির মাধ্যমে জনগণের সামনে তুলে ধরা সম্ভব হচ্ছে।’

জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার সুজন রহমান বলেন, ‘গত প্রায় তিন দশকে অসংখ্য নদ-নদী দেশের মানচিত্র থেকে বিলীন হয়ে গেছে। নদীর এই বিলীন হওয়া যতটা না প্রাকৃতিক কারণ, তার চেয়ে বেশি মানবসৃষ্ট। মানুষ তার হীন স্বার্থে একের পর এক নদ-নদী হত্যা করছে। তাই নদী বাঁচাতেই আমাদের শিল্পকলার এই আয়োজন।’

অনুষ্ঠানে একক ও দলীয় সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পকলা একাডেমির শিল্পীরা।

আপনার মতামত লিখুন :