শিবচরে অফিস সময়ে চিকিৎসক নেই হাসপাতালে

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, মাদারীপুর
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ছবি: বার্তা২৪.কম

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

মাদারীপুরের ১৯টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত শিবচর। আর এই শিবচরের একমাত্র স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অবকাঠামো উন্নয়ন হলেও চিকিৎসা সেবার উন্নয়ন ঘটেনি এখনো। দূর-দূরান্ত থেকে সাধারণ রোগীরা হাসপাতালে এসে ঠিকমত সেবা পাচ্ছেন না। ঘুরে-ফিরে যেতে হচ্ছে বেসরকারি ক্লিনিকেই। এমন অভিযোগ সাধারণ রোগীদের।

সরজমিনে বুধবার (৪ ডিসেম্বর) বেলা পৌনে ১২টার দিকে দেখা গেছে, জরুরি বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক মইনুল ইসলামকে হাসপাতালে না পেয়ে বেশ কয়েকজন রোগীকে ফিরে যেতে দেখা গেছে। অভিযোগ রয়েছে তিনি প্রায়ই অফিস সময়ে উপজেলার বিভিন্ন ক্লিনিকে গিয়ে আল্ট্রাসনোগ্রাম করিয়ে থাকেন।

বিষয়টির সত্যতা জানতে মইনুল ইসলামের মোবাইলে কল দিলে ক্লিনিকের এক মহিলা কর্মী জানান, 'স্যার আল্ট্রাসনোগ্রাফি করেছেন। ব্যস্ত আছেন। পরে ফোন দেন।'

দুপুর ১২টা ১৫মিনিটে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের রুমে বসে আছেন ওই চিকিৎসক। সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে কথা বলতে চাইলে তিনি 'হাসপাতালের কাজেই এসেছি' বলে প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে যান। পরে এক ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধির মোটরসাইকেলে করে ওই ডায়াগনস্টিক সেন্টার ত্যাগ করেন।

এ বিষয়ে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এম এ মোকাদ্দেস হোসেন শাহীন মোবাইলফোনে বলেন, 'অফিস সময়ে বাইরের ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অবস্থান করা এটা একটি ধৃষ্টতামূলক কাজ। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

শিবচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আসাদুজ্জামান বলেন, ‘অফিস সময়ে কেউ অফিসের কোনো আদেশ ছাড়া বাইরের কোনো ক্লিনিক বা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রোগী দেখতে পারেন না। যদি কারো বিরুদ্ধে এমন কোনো অভিযোগ পাওয়া যায় তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

আপনার মতামত লিখুন :