পাহাড় কাটা বন্ধে কক্সবাজারে পথসভা কর্মসূচি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম, কক্সবাজার
২৫ কিলোমিটার জুড়ে হর্ণবিহীন মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা হয়/ছবি: বার্তা২৪.কম

২৫ কিলোমিটার জুড়ে হর্ণবিহীন মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা হয়/ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

'পাহাড় কাটা রোধ করি, পরিবেশ রক্ষা করি' শ্লোগানে পাহাড় কাটা বন্ধে গণসচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করেছে পরিবেশ বিষয়ক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন 'এনভায়রনমেন্ট পিপল'। কর্মসূচির আওতায় ২৫ কিলোমিটার হর্ণবিহীন মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা, প্রচারপত্র বিলি, মাইকিং ও তিনটি পথসভা করে সংগঠনটি।

শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকেল পর্যন্ত কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা, পিএমখালী ও খুরুশকুল ইউনিয়ন এলাকায় এসব কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচিতে জেলা প্রশাসন, পরিবেশ অধিদপ্তর, বন বিভাগ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেন।

'এনভায়রনমেন্ট পিপল' এর প্রধান নির্বাহী রাশেদুল মজিদ এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত পথসভা গুলোতে বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ শাহরিয়ার মোক্তার, পরিবেশ অধিদপ্তর কক্সবাজারের এ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার ফজলুল হক, কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের কক্সবাজার সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ তারেকুর রহমান, কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের পিএমখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, ঝিলংজা বন বিট কর্মকর্তা সোফিউর রহমান, পিএমখালী বন বিট কর্মকর্তা আবুল কালাম, খুরুশকুল বন বিট কর্মকর্তা সুলতান আহমদ, ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান টিপু সোলতান, পিএমখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আবদুর রহিম, খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন, জীবন ও প্রকৃতি ফাউন্ডেশন কক্সবাজারের উপদেষ্টা সরওয়ার আজম মানিক, কক্সবাজার রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি এইচ এম নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আজিম নিহাদ। কর্মসূচিতে সংগঠনটির ৫০ জন স্বেচ্ছাসেবী অংশ নেয়।

পথসভা গুলোতে কক্সবাজার সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ শাহরিয়ার মোক্তার বলেন, ব্যাপক হারে পাহাড় কাটার ফলে ভূমি ধসের ঘটনা ঘটে। এতে প্রাণহানির ঘটনা ঘটে চলছে। ধ্বংস হচ্ছে পরিবেশ-প্রকৃতি ও জীববৈচিত্র্য। জেলা প্রশাসনের পক্ষে তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, আমরা আপনাদের ঘরে ঘরে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য এসেছি। এরপরও যদি কেউ পাহাড় কাটার সাথে জড়িত হয় তাহলে ছাড় দেয়া হবে না। পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে 'জিরো টলারেন্স' উল্লেখ করে তিনি বলেন, 'পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করলাম'। পাহাড় কাটার সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :