লক্ষ্মীপুরে রোগী কমেছে হাসপাতালে, সেবা চলছে হটলাইনে

হাসান মাহমুদ শাকিল, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, লক্ষ্মীপুর
রোগী শূন্য হাসপাতালের বেড, ছবি: বার্তা২৪.কম

রোগী শূন্য হাসপাতালের বেড, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনাভাইরাস আতঙ্কে পুরো দেশ। ঘরে থাকতে এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে আইনশৃঙ্খলা ও সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা তৎপর রয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় ঘরমুখো হচ্ছেন লক্ষ্মীপুরে সব শ্রেণি-পেশার মানুষ। চিকিৎসা সেবা নিতেও তারা হাসপাতালে যাচ্ছে না। ফলে খালি পড়ে আছে হাসপাতাল গুলো। তবে সেবা চলছে স্বাস্থ্য বিভাগের হটলাইনে।

জেলার ১০০ শয্যার সদর হাসপাতালের এখন প্রায় ৪০ জন রোগী ভর্তি আছেন। কিন্তু আগে রোগীদের মেঝেতে রেখে সেবা দিতে হতো। এখন অধিকাংশ বেড খালি পড়ে আছে। বহির্বিভাগও পুরো ফাঁকা। করোনা আতঙ্কের আগেও বহির্বিভাগে প্রতিদিন ৫ শতাধিক রোগী চিকিৎসা সেবা নিতেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, হাসপাতালের বাইরে রিকশার ভিড় নেই। রোগীর স্বজনদেরও আনাগোনা দেখা যায়নি। বলতে গেলে, পুরো ভুতুড়ে এলাকা। হাসপাতালের ভেতরটাও প্রায়ই একই রকম। বহির্বিভাগে কাউকে সেবা নিতে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়নি। অধিকাংশ বেডগুলো রোগীশূন্য। বিছানাগুলো ভাজ করে রাখা আছে। জরুরি বিভাগেও আগের মতো তাড়াহুড়া করে কাউকে চিকিৎসা দিতে দেখা যায়নি। তবে জরুরি বিভাগে থাকা চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা তাদের দায়িত্ব পালনে হাসপাতালেই অবস্থান করছেন।

এদিকে, রোগীরা হাসপাতাল না এলেও হটলাইনে সেবা নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। রোগীদের সেবা নিশ্চিত করতে সদর হাসপাতালে ছয়টি ও চার উপজেলায় চারটি হটলাইন ২৪ ঘণ্টা চালু রয়েছে। সদর হাসপাতালের হটলাইন নাম্বারগুলো হল- ০১৭৩০৩২৪৭৭৩, ০১৭১২৭৩৯৩৭৮, ০১৭১১৩৩৯৮৫৭, ০১৮২৩৭০৪৫২১, ০১৮২২১২০৬৬৭, ০১৮১৮২৫৬৪৭১।

করোনার কারণে লক্ষ্মীপুরে প্রাইভেট হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসকের সংকট রয়েছে। গত ২৭ মার্চ গাইনি চিকিৎসক না থাকায় এক প্রসূতি মায়ের সিজারের জন্য হটলাইন নম্বরে কল পেয়ে জেলা সিভিল সার্জন আবদুল গাফ্ফার একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ছুটে যান। পরে তিনি নিজ হাতে ওই প্রসূতির সিজার করেন। ওই মায়ের ছেলে সন্তান জন্ম নেয়। সবশেষ তথ্য অনুযায়ী মা ও নবজাতক শিশুটি সুস্থ রয়েছে।

চিকিৎসক না থাকায় প্রসূতির সিজার করেন সিভিল সার্জন ডা. আবদুল গাফ্ফার

জানতে চাইলে সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘করোনা আতঙ্কে মানুষের বাইরে চলাচল কম করছে। খুব বেশি অসুস্থ না হলে কেউ হাসপাতালে আসেন না। যারা একেবারেই বেশি অসুস্থ শুধু তারাই আসেন। আর সামান্য অসুখের জন্য আমরা ২৪ ঘণ্টা হটলাইনে সেবা দিয়ে আসছি। তবে আমরা হাসপাতালে যেকোনো সেবা দিতে প্রস্তুত আছি।’

সেবা নিতে সবাইকে হটলাইনে যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন তিনি।

লক্ষ্মীপুর জেলা সিভিল সার্জন ডা. আবদুল গাফ্ফার বলেন, ‘বেশি জরুরি না হলে কেউ ঘর থেকে বের না হওয়াই ভালো। বাড়িতেই সেবা নেওয়া যায়, এমন অসুখের জন্য হাসপাতালে এসে ভিড় করা ঠিক হবে না। সবার জন্য জেলা সদর ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে হটলাইন নম্বর চালু আছে। সেখানে যোগাযোগ করে সেবা গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে।’

প্রসঙ্গ, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের হটলাইন নাম্বারগুলো হলো- কমলনগর-০১৭৩০৩২৪৮৫৬, রায়পুর-০১৭৩০৩২৪৮৫৭, রামগঞ্জ-০১৭৩০৩২৪৮৫৯ ও রামগতি-০১৭৩০৩২৪৮৫৮। সাধারণ রোগের চিকিৎসা পেতে এসব হটলাইন নাম্বারে কল করলে চিকিৎসা সেবা পাওয়া যাবে।

আপনার মতামত লিখুন :