অবৈধ স্ক্র্যাপ বাড়ায় বাজারে এলপিজি সিলিন্ডার সংকট!



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
অবৈধ স্ক্র্যাপ বাড়ায় বাজারে এলপিজি সিলিন্ডার সংকট!

অবৈধ স্ক্র্যাপ বাড়ায় বাজারে এলপিজি সিলিন্ডার সংকট!

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশের বিভিন্ন এলাকায় অবৈধ স্ক্র্যাপ বেড়ে যাওয়ায় বাজারে সংকট তৈরি হয়েছে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাসের (এলপিজি) খালি সিলিন্ডারের। সম্প্রতি একশ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী খালি সিলিন্ডার বাজার থেকে কিনে স্টিল রি-রোলিং মিলগুলোয় কমদামে বিক্রি করে দিচ্ছেন। স্টিল বা ইস্পাতের দাম বেড়ে যাওয়ায় এ ধরণের অবৈধ ব্যবসা তাদের কাছে লাভজনক হয়ে উঠেছে। কিন্তু এতে করে সিলিন্ডার স্ক্র্যাপ করার সময়ে দুর্ঘটনার ঝুঁকি বাড়ছে, পাশাপাশি বাজারে দেখা দিচ্ছে সিলিন্ডার সংকট এবং যার ফলে ব্যবসায়ে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন এই খাতের বিনিয়োগকারীরা।

এলপিজি সিলিন্ডার একটি অতি-সংবেদনশীল পণ্য। ফলে, উন্নত মানের স্টিল বা ইস্পাত ব্যবহার করে তৈরি করা হয় এসব সিলিন্ডার। এই সিলিন্ডার উৎপাদনে খরচ বেশি পড়ে, তাই এলপিজি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো ভর্তুকি দিয়ে এসব সিলিন্ডার বাজারজাত করে থাকে। এলপিজি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর লক্ষ্য থাকে সাশ্রয়ী দামে গ্রাহকের ঘরে এলপিজি সিলিন্ডার পৌছে দেয়া। গ্যাস শেষ হয়ে গেলে এগুলো আবার রিফিল করার জন্য এলপিজি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের কাছে ফেরত পাঠানো হয়। তবে, একশ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ী মাঝখানের এই সুযোগকে কাজে লাগাচ্ছেন।

গত ৭ ও ১২ নভেম্বর এরকম ঘটনাই ঘটেছে। ওইদিন, টাঙ্গাইলের কয়েকটি গাড়িতে করে জি-গ্যাস এলপিজির খালি সিলিন্ডার বিভিন্ন জায়গায় বিক্রির উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিলো। পরে দেখা যায়, ওই সিলিন্ডারগুলো রায়পুর থানার লেংরা বাজারে অবস্থিত মেসার্স মানিক আয়রন মার্টের গোডাউন ও আশপাশের কয়েকটি গোডাউনে নামানো হচ্ছে। পরে মেসার্স মানিক আয়রন মার্টের গোডাউনে পুলিশ গিয়ে দেখে সিলিন্ডারগুলো থেকে ভালব আলাদা করা হচ্ছে। গোডাউনে উপস্থিত মানিক আয়রন মার্টের দায়িত্বশীলকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করে হলে তিনি ভুল স্বীকারকরে নেন এবং ভবিষ্যতে আর এ ধরনের কাজ করবেন না বলে জানান। খালি সিলিন্ডারগুলোর পরিবহণের সাথে জড়িত ড্রাইভার ও মালিকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানা যাবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এভাবে খালি সিলিন্ডার নিয়ে গিয়ে স্টিল কারখানায় বিক্রি করে দেয়ার মাধ্যমে দেশে এলপিজি ব্যবসার অশেষ ক্ষতি করা হচ্ছে বলে মনে করে এলপিজি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্ত বিভিন্ন মহল। তারা দাবি করেন, অবৈধভাবে খালি সিলিন্ডার বিক্রির সাথে জড়িত ব্যবসায়ী ও পরিবহণ মালিকদের আইনের আওতায় আনতে হবে। এজন্য দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তারা।

দেশে এলপিজি খাতের ব্যবসা ধীরে ধীরে সম্প্রসারিত হচ্ছে। আর এই খাতকে সমৃদ্ধ করতে হলে অনতিবিলম্বে এর পেছনের অসাধু ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্য বন্ধ করতে হবে।

শিগগির সুদহার সীমা তুলে নেওয়ার সম্ভাবনা নেই: গভর্নর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার বলেছেন, ব্যাংক ঋণের সুদের হারের সীমা তুলে নেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তবে এখনই এটি প্রত্যাহারের সঠিক সময় নয় বলে জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ (বিআইডিএস) আয়োজিত এক সম্মেলনে বক্তব্য দেওয়ার সময় তিনি এ তথ্য জানান।

গভর্নর বলেন, আমরা একটি ভালো সময়ের জন্য অপেক্ষা করছি। সুদের সীমা প্রত্যাহার করা হবে, কিন্তু এখন এটি প্রত্যাহার করার সঠিক সময় নয়।

তিনি জানান, বাংলাদেশ ব্যাংক ইতিমধ্যেই ভোক্তা ঋণের সুদের হার শিথিল করেছে। বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময় হার সম্পর্কে গভর্নর বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক বাজার শক্তিকে তা নির্ধারণ করতে দেবে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক কখনই কোনো আমদানি বিধিনিষেধ আরোপ করেনি উল্লেখ করে তিনি বলেন, শুধুমাত্র কিছু বিলাসবহুল আইটেমের আমদানি শুল্ক বাড়ানো হয়েছে। বিআইডিএসের মহাপরিচালক ড. বিনায়ক সেন সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন।

;

সাউথইস্ট ব্যাংক ‘মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ডস-২০২২’ অর্জন করেছে



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
সাউথইস্ট ব্যাংক “মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ডস-২০২২” অর্জন করেছে

সাউথইস্ট ব্যাংক “মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ডস-২০২২” অর্জন করেছে

  • Font increase
  • Font Decrease

সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড ‘মাস্টারকার্ড প্রিপেইড বিজনেস’ এবং ‘মাস্টারকার্ড অনলাইন অ্যাকুয়ারিং বিজনেস’ ২টি ক্যাটাগরিতে “মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ডস-২০২২” অর্জন করেছে।

সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) নুরুদ্দিন মো. সাদেক হোসাইন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি এম পি এর হাত থেকে এই অ্যাওয়ার্ডটি গ্রহণ করেন।

অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে ‘গেস্ট অব অনার’ হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংক এর নির্বাহী পরিচালক মো. খুরশীদ আলম; ভিকাস ভার্মা, চিফ অপারেটিং অফিসার, সাউথ এশিয়া, মাস্টারকার্ড এবং মাস্টারকার্ড বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল সহ পার্টনার ব্যাংক, ফিনটেক ও মার্চেন্ট পার্টনার সমূহের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং আমন্ত্রিত সম্মানিত অতিথিরা উপস্থিত ছিলেন।

 

;

বিকাশ অ্যাপে ৫০ টাকা মোবাইল রিচার্জে ১৬ টাকা ক্যাশব্যাক



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বিকাশ অ্যাপে ৫০ টাকা মোবাইল রিচার্জে ১৬ টাকা ক্যাশব্যাক

বিকাশ অ্যাপে ৫০ টাকা মোবাইল রিচার্জে ১৬ টাকা ক্যাশব্যাক

  • Font increase
  • Font Decrease

বিকাশ অ্যাপ দিয়ে নিজের নম্বরে ৫০ টাকা মোবাইল রিচার্জ করলেই গ্রাহকরা পাচ্ছেন ১৬ টাকা ক্যাশব্যাক। ১ ডিসেম্বর চালু হওয়া এই অফারটি চলবে ৫ ডিসেম্বর, ২০২২ পর্যন্ত। একজন গ্রাহক বিকাশ অ্যাপ থেকে একবারই এই ক্যাশব্যাক নিতে পারবেন।

মোবাইল রিচার্জ করতে বিকাশ অ্যাপের হোমস্ক্রিন থেকে ‘মোবাইল রিচার্জ’ অপশনে ক্লিক করতে হবে। পরের ধাপে মোবাইল নম্বর নির্বাচন করতে হবে। এরপর ৫০ টাকা টাইপ করে পিন নম্বর দিলে রিচার্জ হয়ে যাবে। রিচার্জের পরবর্তী কার্যদিবসের মধ্যে গ্রাহক তার বিকাশ অ্যাকাউন্টে ১৬ টাকা ক্যাশব্যাক পেয়ে যাবেন।

এয়ারটেল, বাংলালিংক, গ্রামীনফোন, রবি এবং টেলিটকের সকল নম্বরের ক্ষেত্রেই অফারটি প্রযোজ্য হবে।

উল্লেখ্য, যেকোনো সময় দেশের যেকোনো স্থান থেকে নিজের বা প্রিয়জনের মোবাইলে রিচার্জ করার সুযোগ থাকায় বিকাশের এই সেবাটি গ্রাহকদের মধ্যে অত্যন্ত জনপ্রিয়। বিকাশ অ্যাপ থেকে মোবাইল রিচার্জে বিভিন্ন অপারেটরের সাথে বিভিন্ন ধরনের অফার রয়েছে। গ্রাহক তার ব্যবহারের ধরন অনুযায়ী নিজস্ব মোবাইল অপারেটরের ভয়েস, ডাটা প্যাক অথবা বান্ডেল কিনতে পারেন। এমনকি সেরা অফার তুলনার সুযোগও রয়েছে বিকাশ অ্যাপে। যেমন একজন গ্রাহক হয়তো ৫০ টাকা রিচার্জ করতে চান। তিনি ৫০ টাকা টাইপ করার পর ‘চেক অফার’ অপশনে ক্লিক করলে ৫০ টাকা বা তার আশেপাশের অ্যামাউন্টে যত অফার আছে সব একসঙ্গে দেখতে পারবেন এবং সেরা অফারটি বেছে নিতে পারবেন।

;

নগদে গোল করে জিতে নিন স্মার্ট টেলিভিশন



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
নগদে গোল করে জিতে নিন স্মার্ট টেলিভিশন

নগদে গোল করে জিতে নিন স্মার্ট টেলিভিশন

  • Font increase
  • Font Decrease

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস নগদ ফুটবল বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে শুরু করেছে ‘নগদ-এ গোল’ কুইজ প্রতিযোগিতা। নগদ সেবাকেন্দ্রে গিয়ে নির্দিষ্ট পরিমাণ ক্যাশ ইন করে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে প্রতিযোগীরা পাবেন নিশ্চিত উপহার এবং পাবেন আকর্ষণীয় একাধিক টেলিভিশন পুরস্কার জিতে নেওয়ার সুযোগ।

নগদ-এর এই কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে চাইলে সারা দেশে অবস্থিত ৪৬টি সেবা কেন্দ্রের যেকোনো একটিতে গিয়ে নগদ অ্যাকাউন্টে ক্যাশ ইন করতে হবে। ২০২২ টাকা ক্যাশ ইন করলে তাৎক্ষণিক উপহার হিসেবে পাবেন একটি চাবির রিং ও একটি মগ। ৫০০ টাকা ক্যাশ ইন করলে পাবেন একটি চাবির রিং। আর এই দুই ক্যাশ ইন -এর যেকোনো একটি করলেই পাবেন একটি কুইজ কার্ড।

এই কুইজ কার্ডে প্রতিযোগী নিজের নাম, নগদ অ্যাকাউন্ট নম্বর ও সঠিক উত্তর লিখে জমা দেবেন। আর এভাবে জমা হওয়া কার্ডগুলোর ভেতর থেকে প্রতিযোগিতা শেষে বেছে নেওয়া হবে তিন বিজয়ীকে। প্রথম বিজয়ী পাবেন একটি ৪৩ ইঞ্চি স্মার্ট টিভি। দ্বিতীয় বিজয়ী পাবেন একটি ৪০ ইঞ্চি এলইডি টিভি। আর তৃতীয় বিজয়ী পাবেন একটি ৩২ ইঞ্চি এলইডি টিভি।

গত ২৭ নভেম্বর সারাদেশে একসাথে শুরু হয়েছে ‘নগদ-এ গোল’ কুইজ প্রতিযোগিতা। প্রতিযোগিতাটি চলবে আগামী ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এই সময়ে একজন নগদ গ্রাহক একবারই এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ক্যাশ ইন করে প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া যাবে। প্রতিযোগিতা চলা অবস্থায় সংশ্লিষ্ট সেবা কেন্দ্রে উপহার ও কুইজ কার্ডের মজুদ থাকা সাপেক্ষে যে কেউ এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন।

প্রতিযোগিতা শেষে তাদেরই বিজয়ী হিসেবে বেছে নেওয়া হবে, যাদের সক্রিয় নগদ অ্যাকাউন্ট থাকবে। মেগা পুরষ্কার বিজয়ীর নগদ অ্যাকাউন্ট, লেনদেন বিবরণ এবং জাতীয় পরিচয়পত্র পুরস্কার প্রদানের সময় যাচাই করা হবে।

মনে রাখতে হবে, কোনো প্রতিযোগিতা বা কোনো কাজের জন্য নগদ কর্তৃপক্ষ গ্রাহকের কাছে তার পিন বা ওটিপি জানতে চাইবে না। কেবলমাত্র নগদ হটলাইন নম্বর থেকে প্রতিযোগিতার বিষয়ে অংশগ্রহণকারীর সাথে যোগাযোগ করা হতে পারে। কোনো তৃতীয় পক্ষের কাছে নিজের তথ্য শেয়ার না করার জন্য নগদ কর্তৃপক্ষ অনুরোধ করেছে।

‘নগদ-এ গোল’ প্রতিযোগিতা আয়োজন সম্পর্কে বলতে গিয়ে নগদ-এর চিফ সেলস অফিসার শিহাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘নগদ সবসময় গ্রাহকের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে চায়। সারা পৃথিবী এখন বিশ্বকাপ নিয়ে উৎসবের আমেজে আছে। এই সময়ে আমরাও গ্রাহকদের হাতে কিছু শুভেচ্ছা উপহার এবং তিনটি গ্র্যান্ড পুরস্কার তুলে দিতে চেয়েছি। নগদ তার সব গ্রাহককে একটি পরিবারের সদস্য মনে করে। সেই মনে করা থেকেই এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।’

;