পুঁজিবাজারে ১৩ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

আস্থা ও তারল্য সংকটের পাশাপাশি করোনার প্রভাবে গত ১৩ বছর দুই মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন হয়েছে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই)। একই অবস্থায় লেনদেন হয়েছে অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই)।

নতুন অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার দ্বিতীয় সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার (২১ জুন) সূচকের নেতিবাচক প্রবণতা পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু হয়। তবে শেয়ার কেনার চেয়ে বিক্রি প্রবণতা বেশি থাকায় দিন শেষে ডিএসইতে সূচক সামান্য বেড়েছে।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, রোববার ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ২ পয়েন্ট বেড়ে ৩ হাজার ৯৬২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অন্য দুই সূচক এর মধ্যেই ডিএসইএস সূচক দশমিক ৩৪ পয়েন্ট কমে ৯১৮ পয়েন্ট এবং ডিএস ৩০ সূচক ১ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৩২৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১৭টির, কমেছে ১৪টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২১৪টির।

তাতে লেনদেন হয়েছে ৩৮ কোটি ৬২ লাখ ২৫ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬৯ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। এর আগে ২০০৭ সালে ২৩ এপ্রিল ডিএসইতে ৩৭ কোটি ৬৯ লাখ ৪৯ হাজার টাকা। যা ১৩ বছর দুই মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন।

একইদিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৯ কোটি ২৩ লাখ ৬৯ হাজার টাকা।এদিন ডিএসইতে সূচক বাড়লেও সিএসইতে কমেছে ৪পয়েন্ট। সিএসইর প্রধান সূচক ৪ পয়েন্ট কমে ১১ হাজার ২৫০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ৮টির, কমেছে ৯টির অপরিবর্তিত রয়েছে ৭৪টি শেয়ারের।