জিএসকের শেয়ার কিনে মালিকানায় ইউনিলিভার



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
লোগো

লোগো

  • Font increase
  • Font Decrease

গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন (জিএসকে) বাংলাদেশ লিমিটেডের সব উদ্যোক্তা পরিচালকের শেয়ার কিনে মালিকানায় চলে এসেছে ইউনিলিভার।

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বহুজাতিক কোম্পানি জিএসকে বাংলাদেশের উদ্যোক্তা সেটফার্স্ট লিমিটেড ৮১ দশমিক ৯৮ শতাংশ শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দেয় গত বৃহস্পতিবার।

রোববার (২৮ জুন) সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটের মাধ্যমে কিনে নিয়েছে ইউনিলিভার ওভারসিস হোল্ডিংস বিভি। আর তাতে ডিএসইর লেনদেন হয়েছে ২৫৪৩ কোটি টাকার বেশি।যা ডিএসইতে গত সাড়ে ৯বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ লেনদেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাসুদ খান বলেন, বহুজাতিক এ কোম্পানির মূল উদ্যোক্তাদের সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে সব নিয়মনীতি মেনে শেয়ারের হাতবদল সম্পন্ন হয়েছে। স্টক এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে এ ঘোষণা আগেই দেয়া হয়েছিল।

জানা যায়, সিটি ব্রোকারেজ হাউসের মাধ্যমে জিএসকের প্রায় ৯৮ লাখ ৭৫ হাজার শেয়ার কিনে নেয় ইউনিলিভার। ডিএসইর মাধ্যমে ঘোষণা দিয়ে এই শেয়ার কেনা শুরু করে বহুজাতিক কোম্পানিটি। নিয়ম অনুযায়ী শেষ কার্যদিবসের লেনদেন শেষের মূল্য অনুযায়ী কিনে নিতে হয়। সেই হিসাবে আজ শেয়ার প্রতি ২ হাজার ৪৬ টাকা ৩০ পয়সায় সব শেয়ার কিনে নিয়েছে ইউনিলিভার।

২০১৮ সালের ৩ ডিসেম্বর ইউনিলিভারের মূল কোম্পানি ইউনিলিভার এনভি জিএসকের শেয়ার কেনার ঘোষণা দেয়। তবে চলতি বছরের ২২ মার্চ এ সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে ইউনিলিভারের মূল কোম্পানির পরিবর্তে সহায়ক প্রতিষ্ঠান ইউনিলিভার ওভারসিজ হোল্ডিংস বিভির কাছে সেটফার্স্টের সব শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ওই সিদ্ধান্ত অনুসারে এখন ব্লক মার্কেট থেকে জিএসকে শেয়ার ইউনিলিভারের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ওভারসিজ হোল্ডিংস বিভির অনুকূলে কেনা হয়েছে। এখন আনুষ্ঠানিকভাবে জিএসকে বাংলাদেশের মালিকানায় আসবে ইউনিলিভার।

ব্রিটিশ ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন পিএলসির একটি সহায়ক সংস্থা জিএসকে বাংলাদেশ। ১৯৭৬ সালে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত হয়। বর্তমানে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মূল্য ২ হাজার ৪৬ টাকা ৩০ পয়সা। জিএসকে বাংলাদেশে কনজুমার হেলথকেয়ার ও ফার্মাসিউটিক্যালস দুই ইউনিটের মাধ্যমে বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনা করে। তবে ফার্মাসিউটিক্যালস ইউনিটের লোকসান দেখিয়ে ওষুধ উৎপাদন কারখানা এবং ফার্মাসিউটিক্যাল বিজনেস ইউনিটের সব কার্যক্রম একপর্যায়ে বন্ধ করে দেয় গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন।

গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাসুদ খান বলেন, ‘বহুজাতিক এ কোম্পানির মূল উদ্যোক্তাদের সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে সব নিয়মনীতি মেনে রোববার শেয়ারের হাতবদল সম্পন্ন হয়েছে। স্টক এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে এ ঘোষণা আগেই দেওয়া হয়েছিল।’