বাবা কখনও আমাদের জীবনের অংশ ছিলেন না: জান



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বাবা কুমার শানুর সঙ্গে জান কুমার শানু

বাবা কুমার শানুর সঙ্গে জান কুমার শানু

  • Font increase
  • Font Decrease

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী কুমার শানুর ছেলে জান কুমার শানু। টেলিভিশন রিয়্যালিটি শো ‘বিগ বস’-এর ১৪তম মৌসুমের প্রথম প্রতিযোগী জান। সম্প্রতি ‘বিগ বস’-এর বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে তাকে।

‘বিগ বস’-এর বাড়ি থেকে বের হয়ে এক সাক্ষাৎকারে অংশ নিয়েছিলেন জান কুমার শানু। যেখানে বাবা কুমার শানুর সঙ্গে তাদের সম্পর্ক কেমন সে বিষয়ে খোলাখুলি আলোচনা করেছেন তিনি।

জান বলেন, তারা তিন ভাই। যাদের প্রত্যেককে তাদের মা রিতা ভট্টাচার্য একা হাতে বড় করে তুলেছেন। সেখানে বাবার কোনও ভূমিকা নেই। তাদের জীবনে মা-ই সব। বাবা কুমার শানু কখনও তাদের জীবনের অংশ ছিলেন না।

যোগ করে জান বলেন, “একজন সংগীতশিল্পী হিসেবে তিনি (কুমার শানু) কখনও আমাকে পরিচয় করিয়ে দেননি। বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে এমন বহু তারকা রয়েছেন যারা তাদের স্ত্রীদের ডির্ভোস দেওয়ার পর তার খোঁজ না নিলেও অন্তত সন্তান থাকলে তাদের পাশে থেকে সহযোগিতা করার চেষ্টা করেন। কিন্তু আমাদের ক্ষেত্রে এমনটি কিছুই হয়নি। উল্টো বাবা আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে অস্বীকার করেছিলেন।”

‘বিগ বস ১৪’ শুরু হওয়ার পর সালমানের শোয়েও স্বজনপোষণ নিয়ে জানকে একের পর এক মন্তব্য করা হয়। তার সঙ্গে স্বজনপোষণের তকমা জুড়ে দেন অন্য প্রতিযোগী রাহুল বৈদ্য। যা নিয়ে বেশ শোরগোল শুরু হয়। বিগ বসের ঘর থেকে বেরিয়ে এবার তারই পালটা জবাব দিলেন জান বলেন, “তার বড় হওয়ার পিছনে বাবার কোনও হাত নেই। তাই তার বাবার নাম-যশের উপর ভিত্তি করে তাকে যাচাই করা উচিত নয় কিংবা ‘বিগ বস’র ঘরে তার প্রবেশ নিয়ে কারও কোনও মন্তব্য করা উচিত নয়।”

মাত্র ৫ বছর বয়সে সংগীত জগতে ক্যারিয়ার শুরু করেন জান কুমার শানু। বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় গান কাভার করেছেন তিনি। যার মধ্যে রয়েছে তার বাবা কুমার শানুর গাওয়া ‘দিল মেরা চুরায়া কিউ’ গানটি।

আসছে হৃতিকের কৃষ ফোর



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
আসছে হৃতিকের কৃষ ফোর

আসছে হৃতিকের কৃষ ফোর

  • Font increase
  • Font Decrease

‘কৃষ ৪’-এর ঘোষণা গত বছরই দিয়েছিলেন হৃতিক রোশন। তারপর থেকেই এই ছবি নিয়ে উত্তেজনার পারদ তুঙ্গে। হবে নাই বা কেন? বলিউডের সবচেয়ে পছন্দের আর সবচেয়ে হিট সুপারহিরো কৃষ। গত বছর জুন মাসে ‘কৃষ’ মুক্তির দেড় দশক পূর্তি উপলক্ষ্যেই এই ঘোষণা সারেন হৃতিক। তারপর থেকে শুরু অপেক্ষার পর্ব। তবে ছবি নিয়ে আর কোনও আপটেড মিলছিল না। অবশেষে ‘কৃষ’ ভক্তদের জন্য সুখবর এলো।

বলিপাড়ার সূত্র বলছে, ‘কৃষ ৩’র গল্প যেখানে শেষ হয়েছিল ঠিক সেখান থেকেই শুরু হবে ‘কৃষ ৪’-এর গল্প। তবে কাহিনীতে থাকবে একাধিক নতুন চরিত্র আর একগুচ্ছ টুইস্ট।

পরিচালক রাকেশ রোশন আপতত ছবির স্ক্রিপ্টের ওপর কাজ করছেন। আপাতত ছবির খুব গুরুত্বপূর্ণ অংশের চিত্রনাট্যের ফাইনাল ড্রাফট রেডি হচ্ছে। ছবির কাস্টিং এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তবে পিঙ্কভিলাকে পরিচালকের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানাচ্ছে, ‘এই ছবিতে থাকছে নেভার সিন বিভোর অ্যাকশনের দৃশ্য, বলিউড ছবিতে এমন অ্যাকশন সিকুয়েন্স আগে কখনও উঠে আসেনি’।

বহুদিন ধরেই এই ছবি ঘিরে চলছিল বিস্তর জল্পনা। একাধিক সাক্ষাৎকারে 'কৃষ ৪' যে তৈরি হবে সেকথা নিজেই জানিয়েছিলেন হৃত্বিক এবং এই সুপারহিরো ফ্র্যাঞ্চাইজি ছবির পরিচালক-প্রযোজক রাকেশ রোশন। এমনকি 'কৃষ ৩' বক্স অফিসে সাফল্যের মুখ দেখার পরপরই এই সুপারহিরো সিরিজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথাও ঘোষণা করেছিলেন হৃত্বিক স্বয়ং। তারপরেও দীর্ঘ অপেক্ষা পর্ব চলেছে। গত বছর ২১শে জুন হৃতিক টুইট ভিডিয়ো শেয়ার করে জানিয়েছিলেন, ‘অতীতে যা হওয়ার হয়ে গিয়েছে। দেখা যাক, ভবিষ্যৎ কী নিয়ে আসে। কৃশ ৪’। হ্যাশট্যাগ হিসেবে ‘ফিফটিন ইয়ারস অফ কৃশ’ এবং ‘কৃশ ৪’ শব্দেরও ব্যবহার করেছিলেন।

কেন কৃষ নিয়ে এত মাতামাতি বলিপাড়ায়? আসলে বলিউডে একাধিক সুপারহিরো (রাওয়ান, ফ্লায়িং জাট) হাজির হলেও এই 'চরিত্রটির' মতো সফল আর কেউ হতে পারেনি। হলিউডের সুপারহিরো প্রেমীরাও কৃষ-কে পছন্দের তালিকায় রাখেন।

প্রসঙ্গত, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবে হৃতিক অভিনীত ছবি ‘বিক্রম বেদা’। এই ছবিতে সইফের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করবেন নায়ক। শীঘ্রই পরিচালক সিদ্ধার্থ আনন্দের ‘ফাইটার’-এর কাজেও হাত দেবেন তারকা, সেই ছবিতে হৃতিক প্রথমবারের জন্য রোম্যান্স করবেন দীপিকা পাড়ুকোনের সঙ্গে।

;

দেশে ফিরলেন শাকিব খান, স্বাগত জানালেন ভক্তরা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
শাকিব খান

শাকিব খান

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশে ফিরেছেন ঢাকাই সিনেমার সুপারস্টার শাকিব খান। বুধবার (১৭ আগস্ট) দুপুর ১টায় ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান ঢালিউডের এই শীর্ষ তারকা। গেল বছরের নভেম্বরে পাড়ি জমিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে, অবশেষে ফিরলেন নিজ দেশে। প্রিয় অভিনেতাকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন অসংখ্য ভক্ত।

এ সময় শাকিব খান বলেন, আপনারা সবাই যে আমাকে এতো মিস করেছেন, ভালো বেসেছেন আমি সত্যিই মুগ্ধ। আপনাদের এতো দিন আমি ভীষণ মিস করেছি। আমি বিমানে উঠে কিছুক্ষণ পর পর এয়ার হোস্টেসকে জিজ্ঞেস করছিলাম, আর কতক্ষণ লাগবে। আমি নিজেও আপনাদের সঙ্গে দেখা করার জন্য অস্থির হয়ে ছিলাম।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শাকিব বলেন, আমার সবসময় চেষ্টা ছিল আমাদের বাণিজ্যিক সিনেমাকে বিশ্বের বাজারে কীভাবে প্রতিষ্ঠা করা যায়। আমরা জানি, ভাষা কোনো বিষয় না। আজকে কোরিয়ান ভাষা বিরাট অবস্থানে পৌঁছে গেছে, তামিল ছবি আন্তর্জাতিকভাবে ভালো জায়গায় পৌঁছে গেছে। আমার মূল লক্ষ্য সেটা। এই লক্ষ্য নিয়েই আমি যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছি। আমি একটা সিনেমার মহরত সেখানে করেছি। মাত্র তো দেশে পা রাখলাম, অনেক সুখবর অপেক্ষা করছে।

এর আগে মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) সকালে বিমানে ওঠার আগে শাকিব খান এক পোস্টে আসার কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছিলেন।

৯ মাস যুক্তরাষ্ট্রে থেকে প্রয়োজনীয় সব কাজ শেষ করে গত মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় বেলা ১১টায় নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন শাকিব খান।

জানা গেছে, মাত্র তিন মাসের জন্য দেশে ফিরছেন শাকিব। নভেম্বরে ফিরে যাবেন আমেরিকা। এ বছর তিনি কাজ করবেন ‘রাজকুমার’ ও ‘মায়া’ নামের নতুন দুটি ছবিতে। এগুলোর প্রযোজক শাকিব নিজেই।

;

মুক্তিযুদ্ধ ও ফুটবলের লড়াই নিয়ে আসছে ‘দামাল’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
মুক্তিযুদ্ধ ও ফুটবলের লড়াই নিয়ে আসছে ‘দামাল’

মুক্তিযুদ্ধ ও ফুটবলের লড়াই নিয়ে আসছে ‘দামাল’

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশের মুক্তিযুদ্ধকালীন ফুটবল টিম নিয়ে তৈরি হয়েছে সিনেমা দামাল’। মঙ্গলবার দামালের ট্রেলার প্রকাশিত হয়েছে। সিনেমাটির ট্রেলার দর্শকদের মধ্যে ব্যাপক ছাড়া ফেলেছে।

ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত ‘দামাল’ এর ২ মিনিটের ট্রেলারটিতে দেখা যায় ১৯৭১ সালের স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের ঐতিহাসিক একটি ঘটনার চিত্র।  শিশু সাহিত্যিক ফরিদুর রেজার সাগরের মূল গল্পে ‘দামাল’ বানিয়েছেন তরুণ  নির্মাতা রায়হান রাফী।

গতকাল ছবিটির ট্রেলার প্রকাশের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওয়ালে ওয়ালে শেয়ার করত দেখা গেছে।


‘দামাল’ সিনেমায় কাজ করতে পেরে উচ্ছ্বসিত মিম জানান, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নিয়ে এর আগে অনেক ছবি তৈরি হয়েছে। কিন্তু একই সঙ্গে ছবিতে মুক্তিযুদ্ধ ও ফুটবল তুলে ধরা হয়নি। ‘দামাল’ ছবির গল্পে যে ঐতিহাসিক ঘটনা তুলে ধরা হয়েছে। এমন একটি গল্পে কাজের সুযোগ পাওয়াটা আমার অভিনয়জীবনের নতুন কিছু যোগ করবে।

নির্মাতা রায়হান রাফী ফেসবুকে ট্রেলারটি শেয়ার দিয়ে তিনি লেখেন, হোক সে যোদ্ধা বা খেলোয়াড়, লড়াইয়ে এক বিন্দু দেয় না ছাড়! খেলার মাঠ হোক বা যুদ্ধের ময়দান- কেউ কারে নাহি ছাড়ে, যায় যদি যাক প্রাণ!

 ‘দামাল’ আসছে ২৮ অক্টোবর বলেও জানান।

তারকায় ভরপুর ‘দামাল’র যৌথ চিত্রনাট্য করেছেন লেখক নাজিম উদ দৌলা এবং পরিচালক রায়হান রাফী। বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন বিদ্যা সিনহা মিম, সিয়াম আহমেদ, শরিফুল রাজ, সাঈদ বাবু, রাশেদ মামুন অপু, সুমিত, শাহনাজ সুমী, লাক্স তারকা অথৈ, সৈয়দ নাজমুস সাকিব, পূজা, বৃষ্টি প্রমুখ।

;

ডিম কেনা থেকে বিরত থাকতে বললেন ওমর সানী!



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ডিম কেনা থেকে বিরত থাকতে বললেন ওমর সানী!

ডিম কেনা থেকে বিরত থাকতে বললেন ওমর সানী!

  • Font increase
  • Font Decrease

নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম দিন দিন বেড়েই চলছে। লাগামহীন বাজার দরে নাভিশ্বাস উঠেছে নিম্নবৃত্ত থেকে মধ্যবিত্ত মানুষের। ঊর্ধ্বমুখী পণ্যের দামের সাথে তাল মিলাতে হিমশিম খাচ্ছে মানুষ। অনেকেই সোশ্যা্ল মিডিয়া নিজেদের ক্ষোভ ঝাড়ছেন। এবার সেই হালে হাওয়া দিলেন চিত্র নায়ক ওমর সানী।

ডিমের দাম বৃদ্ধি নিয়ে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) তার ফেসবুক পেজে ওমর সানী লেখেন, ‘১ দিন বা এক সপ্তাহ নয়, এক বছর ডিম না খেলেও মানুষ মরে যাবে না। ডিম পচনশীল দ্রব্য। এটা এক সপ্তাহ কেনা বন্ধ করে দিন দেখবেন এর দাম কমে গেছে। চলেন তাই করি।’

ওমর সানির দেয়া পোস্টটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্টের পরেই শত শত মন্তব্য দেখা যায়। সেখানে বেশীরভাগ মন্তব্যকে অনুসারীরা ওমর সানিকে বাহবা দিয়েছেন। একটি মন্তব্যে ওমর সানী প্রতিত্তোরে লেখেন, সিন্ডিকেটের কাছে দেশ জিম্মি। দাম বাড়লেই পণ্য বয়কট উচিত শিক্ষা দিন।

সম্প্রতি পারিবারিক জীবন নিয়ে বেশ আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে ছিলেন ওমর সানী। খল অভিনেতা ডিপজলের ছেলের বিয়েতে গিযে জায়েদ খানের সঙ্গে বিবাদে জড়ান। অভিযোগ করেন তার স্ত্রী চিত্রনায়িকা মৌসুমীকে বিরক্ত করেন জায়েদ খান। এমনকি এই বিবাদের সূত্র ধরে জায়েদ খান তাকে পিস্তল দেখিয়ে হুমকি দিয়েছেন জানিয়ে থানায় জিডি করেন। এই নিয়ে মৌসুমী ওমর সানীর মধ্যে দাম্পত্য অশান্তি দেখা দেয়। অবশেষে জল ঘোলা করে এই  অশান্তির অবসান হয়েছে।

মাঝে মাঝে এই দম্পত্তির কিছু পারিবারিক মুহূর্তের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখা যায়।   

;