‘নো কিস’ প্রতিজ্ঞা ভঙ্গ করলেন সালমান



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
দিশা পাতানি ও সালমান খান

দিশা পাতানি ও সালমান খান

  • Font increase
  • Font Decrease

বলিউডের ছবিতে অন্তরঙ্গ দৃশ্য নতুন কিছু নয়। আর অনস্ক্রিন চুমুর দিক থেকে নজির গড়েছেন এই ইন্ডাস্ট্রির বহু তারকা। তবে এই বিষয়টি নিয়ে আপত্তি ছিলো তিন খান সালমান, শাহরুখ ও আমিরের।

এই তিন খানকে প্রায়ই জোর গলায় বলতে শোনা যেতো যে ভালোবাসার দৃশ্যে চুম্বন দেখানো শুধুমাত্র বিদেশি সংস্কৃতিতেই একমাত্র খাপ খায়। যদিও শাহরুখ সেই নিয়ম ভেঙে ২০১২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘জাব তাক হ্যায় জান’ ছবিতে ক্যাটরিনাকে চুম্বন করেছিলেন। আর আমির খান তো তারও আগে। ১৯৯৬ সালে মুক্তি পাওয়া ‘রাজা হিন্দুস্তানি’ ছবিতে আমির-কারিশমার চুম্বন দৃশ্যটি দেখেননি এমন মানুষের সংখ্যা খুব কমই হবে।

চমকপ্রদ তথ্য হলো, শাহরুখ খান ও আমির খানের পর এবার ‘নো কিস’ প্রতিজ্ঞা ভঙ্গ করলেন সালমান খান।

২২ এপ্রিল প্রকাশ পেয়েছে প্রভুদেবা পরিচালিত ‘রাধে: ইয়োর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই’ ছবির ট্রেলার। যেখানে সহশিল্পী দিশা পাতানিতে চুম্বন দিতে দেখা গেছে সালমানকে। ৩২ বছরের ক্যারিয়ারে এবারই প্রথম কোনো অভিনেত্রীকে চুম্বন দিলেন বলিউডের এই সুপারস্টার। আর এই দৃশ্যটি দেখার পর সালমান ভক্তদের চোখ রীতিমতো কপালে উঠে গিয়েছে।

কিন্তু ৩২ বছর পর সালমান কেনো তার ‘নো কিস’ প্রতিজ্ঞা ভঙ্গ করলেন? এ প্রসঙ্গে বলিউড বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে ছবিতে এই অন্তরঙ্গ দৃশ্য বেশ ভেবে-চিন্তেই রাখা হয়েছে! ২০১৯ সালে মুক্তি পেয়েছিলো সালমানের দুই ছবি ভারত আর দাবাং থ্রি। দুটি ছবির কোনওটাই দর্শকদের তেমন মন ভরাতে পারেনি। ফলে এবারের ছবি যাতে দর্শক টানতে পারে, তার জন্য বিশেষ কিছুর প্রয়োজন ছিলো। এমন কিছু যা সালমানকে এর আগে রূপালি পর্দায় করতে দেখা যায়নি। সেই দিক থেকে চুম্বন দৃশ্যের চেয়ে সেরা আর কিছু হতে পারতো না বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা!