উৎসব জিতলেও মন ভালো নেই অমিতাভের



রুদ্র হক, বার্তা ২৪.কম
নির্মাতা অমিতাভ রেজা ও রিক্সা গার্ল চলচ্চিত্রের পোস্টার

নির্মাতা অমিতাভ রেজা ও রিক্সা গার্ল চলচ্চিত্রের পোস্টার

  • Font increase
  • Font Decrease

জার্মানির শ্লিঙ্গেল আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০২১–এ পুরস্কার জিতেছে অমিতাভ রেজা চৌধুরী পরিচালিত ‘রিকশা গার্ল’। গতকাল উৎসব সমাপনীর রাতে পুরস্কৃত ছবিগুলোর নাম ঘোষণা করা হয়। উৎসবের জুনিয়র ফিল্ম শাখায় এসএলএম টপ অ্যাওয়ার্ড জিতেছে বাংলাদেশের এই ছবি। শুধু তাই নয়, ৯ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের সানফ্রানসিসকোতে অনুষ্ঠিত মিল ভ্যালি উৎসবেও দারুণ প্রশংসিত হয়েছে চলচ্চিত্রটি। তবে, মন ভালো নেই নির্মাতা অমিতাভ রেজার।

দেশের সাম্প্রদায়িক অস্থিতিশীলতায় সিনেমার এমন অর্জন উদযাপনে বিসন্ন করে তুলছে তাকে।

অমিতাভ বলেন, “শুধু আমার ছবিটিই নয়, একইসঙ্গে বাংলাদেশের অনেক ছবি সারা বিশ্বের বিভিন্ন উৎসবে প্রদর্শিত হচ্ছে। কোরিয়ায় তো আমাদের চলচ্চিত্র একটা অবস্থান করে নিয়েছে। ‘রেহান মরিয়ম নূর’ অস্কারে যাচ্ছে। আমাদের চলচ্চিত্রকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে গেছে এটি। আমাদের ওটিটি প্লাটফর্মের ‘মুন্সিগিরি’সহ বিভিন্ন কাজ ভারতসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে আসছে। এসবতো আগে ছিলো না।

কিন্তু এত অর্জন দেশের বর্তমান পরিস্থিতির দিকে তাকালে ম্লান মনে হয়। এই যে প্রতিমা ভাঙচুর হচ্ছে এসব দেখলে তো মন খারাপ লাগে। ছবিতো বানাচ্ছি, কিন্তু মনে হয়, এসব বানিয়ে আর কী হবে? আমার লজ্জাও লাগে এমন একটা কালো দিনে আমার ছবি নিয়ে কথা বলতে হচ্ছে। দিনে দিনে বাড়ছে এটি। গত তিনচার বছর ধরে এটি বেশি বেশি হচ্ছে। এতটা অসভ্য বর্বর বাঙালি কবে হলাম আমরা জানি না। ”

কথা যখন হচ্ছিলো তার কিছুক্ষণ মিল ভ্যালি উৎসবে দ্বিতীয় শোতে প্রায় পাঁচশ মানুষ চলচ্চিত্রটি দেখে বাড়ি ফিরছে। দেশের সংস্কৃতিকে যখন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তুলে ধরে শনিবারই দেশে ফিরেছেন এই নির্মাতা। ফিরেই জানতে পারলেন, জার্মানির শ্লিঙ্গেল আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সর্বোচ্চ পুরস্কার জিতেছে চলচ্চিত্রটি।

“ ‘রিক্সা গার্ল’ এর আফ্রিকান প্রিমিয়ার হয় ডারবান ফিল্ম ফেস্টিভালে। মিলভ্যালি ফিল্ম ফেস্টিভালে আমেরিকান প্রিমিয়ার হলো। আমেরিকায় আমার নেমন্তন্ন ছিলো। রিক্সা পেইন্টিং নিয়ে জুরিরা জিজ্ঞেস করছিলেন। নভেরা কে কোথায় পেলাম। এসব নিয়ে জিজ্ঞেস করছিলেন। দর্শকদের মাঝে প্রশংসিতও হয়েছে। একই সময়ে জার্মানির শ্লিঙ্গেল আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওখানেও নিমন্ত্রণ ছিলো কিন্তু যেতে পারিনি। মজার ব্যাপার হচ্ছে, এটি শিশু কিশোরদের চলচ্চিত্রের উৎসব। শিশুরা চলচ্চিত্রটি দেখেছে, তারা উপভোগ করেছে এতে আমি দারুণ আনন্দিত।”

অমিতাভের মতে, ‘রিক্সা গার্ল’ একটি ‘ইয়াং এডাল্ট’ ফিল্ম। বাংলাদেশের একটি ইতিবাচক দিক এতে তুলে ধরা হয়েছে। “এটি যে ওই শিশুরা দেখেছে, পছন্দ করেছে এটা আমার খুব ভালো লেগেছে। ওখানে মাজিদ মাজিদির ছবি ছিলো। সেখানে তিনি যে পুরস্কার জিতেছেন তা দ্বিতীয় পুরস্কার। জার্মানিতে আমার পরিচিত কেউ নেই। আমিও উপস্থিত ছিলাম না শুধুমাত্র ছবির গুণে সেখানকার সবচেয়ে বড় অ্যাওয়ার্ডটা পেলো। ”

উৎসবে সেরা চলচ্চিত্রের নাম হিসেবে ‘রিক্সা গার্ল’ ঘোষণার একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন অমিতাভ রেজা। সেখানে ঘোষণার সময় চলচ্চিত্রটির প্রধান চরিত্র রিক্সা চালক কিশোরি ‘নাইমা’ ও তার জীবন সংগ্রাম নিয়ে বিস্তারিত বলতে শোনা যায় জুরিদের। নাইমার জীবনের মর্মস্পর্শি কাহিনির চিত্রায়ণের জন্যই এটিকে সেরা চলচ্চিত্র হিসেবে পুরস্কৃত করা হয়। বাংলাদেশের শিশু কিশোরদের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে তার জানার আগ্রহও প্রকাশ করেন জুরিরা।



নির্মাতা অমিতাভ রেজা জানান, আজ থেকে আমেরিকার এরিজোনারতে প্রিসকট ফিল্ম ফেস্টিভালেও প্রদর্শিত হচ্ছে। শুধু তাই নয়, খুব শিগগিরই ভ্যাংকুভার এশিয়ান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী রজনীতেও ছবিটি দেখানো হবে। নির্মাতা জানান আগামী বছর চলচ্চিত্রটি বাংলাদেশে মুক্তির পরিকল্পনা করছেন।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের লেখক মিতালি পারকিনসের কিশোরসাহিত্য ‘রিকশা গার্ল’ অবলম্বনে যৌথভাবে ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন নাফিস আমিন ও শর্বরী জোহরা আহমেদ। নাইমা নামের এক কিশোরীকে ঘটনাক্রমে রিকশা চালানোর পেশা গ্রহণ করতে হয়। তাঁকে নিয়েই ‘রিকশা গার্ল’ ছবির গল্প। এতে নাইমা চরিত্রে অভিনয় করেছেন নভেরা রহমান। আরও অভিনয় করেছেন চম্পা, মোমেনা চৌধুরী, নরেশ ভূঁইয়া, অ্যালেন শুভ্র প্রমুখ। বাংলাদেশ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ প্রযোজনায় ছবিটি নির্মিত হয়েছে।