সারার প্রশ্ন, একসঙ্গে কেন দু’জনকে ভালোবাসা যায় না?



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
অক্ষয় কুমার, সারা আলি খান ও ধানুশ

অক্ষয় কুমার, সারা আলি খান ও ধানুশ

  • Font increase
  • Font Decrease

অবশেষে মুক্তি পেলো অক্ষয় কুমার, ধানুশ ও সারা আলি খান অভিনীত ‘আতরাঙ্গি রে’র ট্রেলার। গত ৬ আগস্ট প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিলো ছবিটির। কিন্তু ভারতে করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব বেড়ে যাওয়ায় পিছিয়ে যায় এর মুক্তি।

‘আতরাঙ্গি রে’র গল্প ত্রিকোণ প্রেমের। তবে সেই সঙ্গে রয়েছে কমেডিও। ট্রেলারে দেখা গেছে, রিঙ্কুর (সারা আলি খান) সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয় বিষ্ণুর (ধানুশ)। কিন্তু তারা চায় না দম্পতি হতে। কিন্তু তাদের বিয়ে দিয়েই দেয় পরিবার। এরপর ঠিক হয়, বিয়ের পরে দ্রুত সম্পর্কটা শেষ করে দেবে তারা। এরপরই কাহিনিতে এন্ট্রি নিতে দেখা যায় অক্ষয় কুমারকে। ব্যাস জমে যায় খেলা। রিঙ্কুর হৃদয়ে ঠাঁই হয়ে যায় দু’জনেরই। সে বুঝতে পারে না এদের মধ্যে কাকে বাছবে সঙ্গী হিসেবে এবং প্রশ্ন তোলে, কেন সে একসঙ্গে দু’জনকেই ভালোবাসতে পারে না!

আনন্দ এল রাই পরিচালিত ‘আতরাঙ্গি রে’র মধ্য দিয়ে দ্বিতীয়বার জুটিবদ্ধ হয়ে কাজ করলেন ধানুশ। এর আগে আনন্দর ‘রাঞ্ঝানা’তে কাজ করেছেন দক্ষিণের এই সুপারস্টার।

বড়দিনে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ‘আতরাঙ্গি রে’। তবে প্রেক্ষাগৃহ নয়, ওটিটি প্ল্যাটফর্ম ডিজনি প্লাস হটস্টারে দেখা যাবে এটি।

সামিতাকে আন্টি বললেন তেজস্বী, চটলেন বিপাশা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
তেজস্বী প্রকাশ, বিপাশা বসু ও সামিতা শেঠি

তেজস্বী প্রকাশ, বিপাশা বসু ও সামিতা শেঠি

  • Font increase
  • Font Decrease

একজন বলিউড অভিনেত্রী সামিতা শেঠি অপরজন টেলিভিশনের জনপ্রিয় মুখ তেজস্বী। দু’জনই এখন ‘বিগ বস’র ১৫তম মৌসুমের প্রতিযোগী। শোয়ে ফাইনালিস্ট হিসেবেও জায়গা করে নিয়েছেন এই দুই তারকা।

এদিকে, ‘বিগ বস’র শুরুর দিকে সামিতা-তেজস্বীর মধ্যে ভালো সম্পর্ক থাকলেও ধীরে ধীরে সেটি সাপে নেউলে সম্পর্কে পরিণত হতে থাকে।

এমনকি কথিত প্রেমিক ‘বিগ বস’র আরেক প্রতিযোগী করণ কুন্দ্রার সঙ্গে সামিতা কিছু নিয়ে আলোচনা করলে তাও সহ্য করতে পারেন না তেজস্বী। যার ফল হিসেবে একবার তো বলিউডের এই অভিনেত্রীকে ‘আন্টি’ বলেই সম্বোধন করে ফেলেছেন ছোটপর্দার এই তারকা।

এদিকে, সামিতাকে আন্টি বলায় তেজস্বীর ওপর চটেছেন আরেক বলিউড অভিনেত্রী বিপাশা বসু। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে বিষয়টি প্রসঙ্গে বিপাশা লিখেছেন, “কাউকে লজ্জা দিয়ে তারপর ক্ষমা চাওয়া এটি সত্যিই খুব দুঃখজনক। আর এ ধরনের মানুষরাই যদি বিজয়ী বা যে কারও কাছে রোল মডেল হয় তাহলে সেটি খুব হতাশাজনক।”

যোগ করে বিপাশা বসু আরও লিখেছেন, “আপনি যদি নিরাপত্তাহীন বোধ করেন, তাহলে অন্য নারীকে (সামিতা শেঠি) নিচে টেনে না নিয়ে আপনার সঙ্গীকে (করণ কুন্দ্রা) প্রশ্ন করুন কারণ তিনিই আপনাকে নিরাপত্তাহীন বোধ করাচ্ছেন।”

এই মুহূর্তে ‘বিগ বস’র ঘরে রয়েছেন করণ কুন্দ্রা, তেজস্বী প্রকাশ, সামিতা শেঠি, নিশান্ত ভাট, রেশমি দেশাই ও প্রতীক শেহপাল। শেষমেষ কে এই শোয়ের ১৫তম মৌসুমের ট্রফি ঘরে তোলেন এখন সেটিই দেখার অপেক্ষায় রয়েছে দর্শক।

;

নতুন ধারাবাহিক ‘আকাশ মেঘে ঢাকা’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
ধারাবাহিক নাটক ‘আকাশ মেঘে ঢাকা’

ধারাবাহিক নাটক ‘আকাশ মেঘে ঢাকা’

  • Font increase
  • Font Decrease

১ ফেব্রুয়ারি থেকে নাগরিক টিভিতে শুরু হচ্ছে ধারাবাহিক নাটক ‘আকাশ মেঘে ঢাকা’। এর রচয়িতা মাহ্বুব হাসান জ্যোতি। পরিচালনায় আছেন রূপক বিন রউফ।

নাটকটি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “এই ধারাবাহিকে এক ঝাঁক নতুন মুখকে দর্শক দেখতে পাবেন। বলতে পারেন এই নাটকে মুখের চাইতে গল্পটাই মুখ্য। আমি নাগরিক টিভির কাছে কৃতজ্ঞ সুযোগটি করে দেবার জন্য। নওগাঁ, পূবাইল এবং ঢাকায় এই ধারাবাহিকের কাজ হচ্ছে। ”

নাটকিটির কাহিনী সম্পর্কে তিনি জানান, ভালোবাসা ও পরিচর্যার বিকল্প আশ্রয়ে বড় হচ্ছিল একদল তরুণ-তরুণী, যেখানে আঠারো হয়ে গেলে কারোরই আর থাকার সুযোগ নেই। তাদের এগিয়ে যাওয়া, প্রেম, ঈর্ষা, টিকে থাকার চেষ্টা, আছে ভাওতাভাজী, এসব নিয়েই নাটকটির গল্প।

ধারাবাহিকটির থিম সং লিখেছেন সোমেশ্বর অলি, সুর করেছেন তাহসিন আহমেদ। এতে কণ্ঠ দিয়েছেন তাহসিন আহমেদ ও সিঁথি সাহা।

এতে অভিনয় করেছেন আজিজুল হাকিম, প্রাণ রায়, মাসুম আজিজ, হোসাইন নিরব, সুস্মিতা সিনহা, তৃষ্ণা, সাথী মাহমুদা, লিটন খন্দকার, সাহেলা আক্তার, সঞ্জীব আহমেদ, হারুন রশিদসহ অনেকে।

জানা গেছে, ধারাবাহিকটি শনি থেকে বৃহস্পতিবার প্রতিদিন রাত ১০টায় প্রচার হবে।

;

বঙ্গদূত হয়ে লাস ভেগাসে শাকিব খান



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
শাকিব খান

শাকিব খান

  • Font increase
  • Font Decrease

বর্হিঃবিশ্বে বাংলা ভাষাভাষিদের সবচেয়ে বড় উৎসব বঙ্গ সম্মেলনে বাংলাদেশ ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর হয়েছেন সুপার স্টার শাকিব খান। চলতি বছর ১ থেকে ৩ জুলাই (২০২২ সাল) যুক্তরাষ্ট্রের আলো ঝলমলে জৌলুস নগরী লাস ভেগাসে এ আসর বসছে। উৎসবটি নর্থ আমেরিকা বেঙ্গল কনফারেন্স-এনএবিসি নামেও পরিচিত।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বাঙালিরা ৫২ বছর আগে আমেরিকায় প্রতিষ্ঠা করেন কালচারাল এসোসিয়েশন অব বেঙ্গল-সিএবি বা বঙ্গ সংস্কৃতি সংঘ। আর এই সংগঠনের অধীনে ৪২ বছর ধরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বর্হি:বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ এই বাংলা ভাষাভাষি সম্মেলন। বঙ্গ সম্মেলনের ইতিহাসে শাকিব খান প্রথম ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর হলেন।

আজ বুধবার (২৬ জানুয়ারি) যুক্তরাষ্ট্রের ম্যানহাটানে ‘মাছের ঝোল’ নামে একটি রেস্টুরেন্টে শাকিব খানের সাথে একটি সম্মতি সাক্ষর হয়। এতে আয়োজক সংগঠন সিএবি'র পক্ষে সাক্ষর করেন বঙ্গ সম্মেলন ২০২২ এর আহ্বায়ক মিলন আওন। অনুষ্ঠানে সম্মেলনের বাংলাদেশ আউট রিচের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন হাসানুজ্জামান সাকী।


শাকিব খান বলেন, এরআগে কয়েকবার বঙ্গ সম্মেলনে আসার কথা থাকলেও সময় সুযোগ না হওয়ায় আসা হয়নি। এবার লাস ভেগাসের বঙ্গ সম্মেলনে আমাকে বাংলাদেশ আউট রিচ ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর করায় আমি আনন্দিত। আমি আশা করি, জুলাই মাসে আমেরিকায় বসবাসকারী বাংলাদেশিরা বঙ্গ সম্মেলনে অংশ নেবেন।

মিলন আওন বলেন, প্রতি বছর বঙ্গ সম্মেলনে ৮ থেকে ১০ হাজার মানুষের ভীড় হয়। এবার বলিউড, ঢালিউড ও টলিউডের এক ঝাঁক তারকা উপস্থিত থাকবেন। বাংলা সংগীতের সবকটি শাখা নিয়ে আলাদা জমকালো আয়োজন থাকবে। সাহিত্য আসর, ফ্যাশন শো, নাটক, রিয়েলিটি শো-সহ অনুষ্ঠিত হবে চলচ্চিত্র উৎসব। বাংলাদেশ ও ভারতের প্রায় একশ শিল্পীকে এবারের উৎসবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে জানান মিলন আওন।

প্রসঙ্গত, এবছর লাস ভেগাসের এই আয়োজনে কয়েকটি পর্বে বাংলাদেশকে বিশেষভাবে উপস্থাপন করা হবে। প্রতিবছর উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন শহরে এই আসর অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।

;

নির্বাচনী ইশতেহারে কে এগিয়ে, কাঞ্চন-নিপুণ নাকি মিশা-জায়েদ



বৃষ্টি শেখ খাদিজা, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

চলচ্চিত্র তারকারা সাধারণ মানুষের কাছে বরাবরই স্বপ্নের ব্যাপার-স্যাপার। তাই চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংগঠনের তুলনায় শিল্পী সমিতি নিয়ে কৌতূহলের মাত্রা থাকে ওপরের দিকে। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়েও স্বাভাবিকভাবেই সবার আগ্রহ বেশি। বিভিন্ন কারণে অন্য যেকোনও বারের চেয়ে এবারের নির্বাচন ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে। এর মধ্যে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য, লাঞ্ছনাসহ কিছু বিতর্কও জন্ম নিয়েছে। আগামীকাল (২৮ জানুয়ারি) সেই বহুল আলোচিত ভোটগ্রহণ।

২০২২-২৪ মেয়াদে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দেখভাল করতে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছে দুটি প্যানেল। গত দুই মেয়াদের সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান এবারও একই পদে লড়ছেন। সভাপতি পদে নতুন প্রার্থী হয়েছেন ইলিয়াস কাঞ্চন। তার প্যানেলে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী চিত্রনায়িকা নিপুণ।

কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেল নাকি মিশা-জায়েদ প্যানেল জিতবে সেই উত্তর জানা যাবে আগামীকাল। দুই প্যানেলই ভোটারদের মন কাড়তে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। নির্বাচনী ইশতেহারের দিক দিয়ে একটি পক্ষ এগিয়ে আছে বলা যায়। কাঞ্চন-নিপুণ পরিষদ ২২ দফা নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছে। অন্যদিকে মিশা-জায়েদ প্যানেল কেবল শিল্পীদের থাকার ব্যবস্থা ও তহবিল আরও সমৃদ্ধ করার কথা জোর দিয়ে বলেছে।


কাঞ্চন-নিপুণ পরিষদ ২২ দফা ইশতেহারের প্রথমেই উল্লেখ করেছে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রতিষ্ঠিত এফডিসিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে আসার ইচ্ছা। প্রধানমন্ত্রীর কাছে চলচ্চিত্রের সার্বিক অবস্থা তুলে ধরে চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য সহজ শর্তে বড় অঙ্কের তহবিলের ব্যবস্থা করার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে এই পরিষদ। প্রধানমন্ত্রীর রাষ্ট্রীয় সফর ও বিদেশে সাংস্কৃতিক সফরে চলচ্চিত্র শিল্পীদের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করাও তাদের একটি দফা।

শিল্পী সমিতির সভাপতিকে পদাধিকারবলে চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সদস্যসহ তথ্য মন্ত্রণালয় ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের চলচ্চিত্র ও সংস্কৃতি সংক্রান্ত বিভিন্ন কমিটিতে সমিতির নেতাদের প্রতিনিধিত্বের জন্য অন্তর্ভুক্তকরণের ব্যবস্থা করতে চায় কাঞ্চন-নিপুণ পরিষদ।

কাঞ্চন-নিপুণ পরিষদ প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, শিল্পী সমিতির মর্যাদা রক্ষা ও সদস্যদের অধিকার সংরক্ষণে সচেষ্ট থাকবেন তারা। অন্যায়ভাবে যেসব সদস্যের সদস্যপদ বাতিল, স্থগিত ও ভোটাধিকার হরণ করা হয়েছে, তাদের অধিকার ফেরত দিয়ে সদস্যপদ পুনর্বহাল করা হবে। ইশতেহারে আরও বলা হয়েছে, কেউ একবার সদস্য হলে তার সদস্যপদ আজীবন সংরক্ষিত রাখা হবে। তবে সংগঠনের গঠনতন্ত্র ও রাষ্ট্রবিরোধী গুরুতর কর্মকাণ্ডে কারও সংশ্লিষ্ট থাকার অভিযোগ এলে এবং তদন্ত সাপেক্ষে অভিযোগ প্রমাণিত হলে সদস্যপদ স্থগিত হতে পারে, যা সাধারণ সভায় উত্থাপন করে চূড়ান্ত অনুমোদন নেওয়া হবে।

যেকোনো দুর্যোগ, সমস্যা ও প্রতিকূল পরিস্থিতিতে শিল্পী সমাজের পাশে দাঁড়ানো ও সহায়তা করা কাঞ্চন-নিপুণ পরিষদের লক্ষ্য। তাদের ইশতেহারে আরও আছে– শিল্পীদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা, চলচ্চিত্র শিল্পীদের কল্যাণ ট্রাস্টের সর্বোচ্চ ব্যবহার, সহায়তা গ্রহণকারীদের সম্মান ও আত্মমর্যাদা রক্ষায় কোনো সহায়তা কর্মকাণ্ডের ছবি বা ভিডিও জনসম্মুখে প্রকাশ না করা, সব ধরনের ধর্মীয় উৎসবে স্বল্প আয়ের সদস্যদের উৎসব ভাতা ও উপহার প্রদানের ব্যবস্থা করা, ঝুঁকিপূর্ণ দৃশ্যে অভিনয় করা শিল্পীদের জন্য বিশেষ বীমা ও সবার জন্য গ্রুপ বীমার ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণ, শিল্পীদের চিকিৎসা কার্যক্রমের সুবিধার্থে কয়েকটি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক ল্যাবের সঙ্গে বিশেষ ছাড়ের জন্য চুক্তির উদ্যোগ ও বাস্তবায়ন এবং শিল্পীদের মেধাবী সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান ও তাদের বাবা-মাকে সংবর্ধনা প্রদান।


কাঞ্চন-নিপুণ পরিষদের অন্যান্য প্রতিশ্রুতির মধ্যে রয়েছে– চলচ্চিত্র শিল্পকে আরও সমৃদ্ধ ও অচলাবস্থা কাটিয়ে তুলতে চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব ও অভিজ্ঞদের নিয়ে উপদেষ্টা কমিটি গঠন ও নতুন প্রযোজকদের চলচ্চিত্রের পাণ্ডুলিপি থেকে শুরু করে ছবি মুক্তি পর্যন্ত যাবতীয় সহায়তা প্রদান, চলচ্চিত্র সংক্রান্ত সব সংগঠনের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখা এবং পারস্পরিক স্বার্থে মতবিনিময়, শিল্পী সমিতির ওয়েবসাইট সমৃদ্ধ করতে প্রযুক্তিগত আরো উন্নয়ন, সব শিল্পীর প্রোফাইল তৈরি করা, নৃত্য ও অ্যাকশন দৃশ্যে শিল্পীদের প্রোফাইল তৈরি করে আন্তর্জাতিক কাস্টিং ডিরেক্টরদের কাছে পাঠানো, বিশ্বের যেকোনো দেশের চলচ্চিত্রে নৃত্য ও অ্যাকশন দৃশ্যে শিল্পীদের জন্য কাজের ব্যবস্থা করা।

পার্শ্ববর্তী দেশ ও বিভিন্ন দেশের শিল্পী সংগঠনের সঙ্গে পারস্পরিক মতবিনিময় ও শিল্পী বিনিময় চুক্তি সই, শিল্পীদের পেশার মান বৃদ্ধিতে দেশ-বিদেশের কিংবদন্তি শিল্পীদের নিয়ে বিশেষ সেমিনার ও কর্মশালা ব্যবস্থা করা, সব ধরনের শিল্পী তৈরির পাঠ্যসূচি ও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাসহ শিল্পী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া, নৃত্যশিল্পীদের জন্য ড্যান্স স্টুডিও ও ফাইট অ্যান্ড স্টান্ট স্টুডিও এবং অত্যাধুনিক ইকুইপমেন্ট সমৃদ্ধ জিমনেসিয়াম স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া, সব শিল্পী উপযোগী মেকআপ সেলুন ও পার্লার স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া।


কাঞ্চন-নিপুণ পরিষদের মতো মিশা-জায়েদ প্যানেল লিখিত কোনও ইশতেহার ঘোষণা করেনি। সভাপতি পদপ্রার্থী মিশা সওদাগর শুধু উল্লেখ করেছেন, শিল্পীদের যাদের বাড়ি নেই তাদের থাকার ব্যবস্থা করতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানানো হবে যেন ভূমি মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ১০-২০ বিঘা জায়গা পাওয়া যায়। এছাড়া শিল্পী সমিতির কোষাগারের ১২ লাখ টাকাকে ৫০ লাখ টাকায় নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য তাদের।

চলচ্চিত্র শিল্পী ভোটারদের কাছ থেকে কোন প্যানেল বেশি সমর্থন পায় এখন সেটাই দেখার বিষয়। সমিতির কার্যালয়ে কাঞ্চন-নিপুণ বসতে পারবেন নাকি মিশা-জায়েদ বহাল থাকবেন পুরনো দায়িত্বে তা নিয়ে এখন সরগরম এফডিসি।

;