ফুটেছে অপরূপ কেয়া!



ফটো স্টোরি, বার্তা২৪.কম
ফুটেছে অপরূপ কেয়া/রাজধানীর কারওয়ান বাজারে প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেল থেকে ছবিটি তোলা

ফুটেছে অপরূপ কেয়া/রাজধানীর কারওয়ান বাজারে প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেল থেকে ছবিটি তোলা

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশে কেয়া ফুল অতি পরিচিত একটি ফুল। কেয়া না ফুটলে কি বর্ষা হয়; এই প্রবাদের গুণে কেয়াকে সাধারণত বর্ষার ফুল বলা হয়। তবে জ্যৈষ্ঠ্যের শেষভাগ থেকে এ ফুল ফুটতে শুরু করে।

 

কেয়ার হিন্দি নাম কেওড়া

এ ফুলের কয়েক ধরনের নাম রয়েছে। যেমন কবি গুরু বরীন্দ্রনাথ এই ফুলকে নানা নামে ডেকেছেন 'কেতকীকেশরে কেশপাশ করো সুরভি।' আরেক কবিতায় লিখেছেন 'তোমার ফাগুন দিনের বকুল চাঁপা/শ্রাবণ দিনের কেয়া'। আবার কেয়ার হিন্দি নাম কেওড়া।

 

শুভ্রতা ও সুগন্ধের জন্যই কেয়া সবার মন জয় করেছে

কেয়া গুল্মজাতীয় উদ্ভিদ। শুভ্রতা ও সুগন্ধের জন্যই কেয়া সবার মন জয় করেছে। এ ফুল লম্বায় ৩ থেকে-৪ মিটার হয়ে থাকে। এ গাছের কাণ্ড গোলাকার এবং কাঁটাযুক্ত।

কেয়া গুল্মজাতীয় উদ্ভিদ

কাণ্ড থেকে শাখা প্রশাখা বের হয়। এর পাতা ৩-৪ মিটার পর্যন্ত লম্বা এবং ৫-৬ সেন্টিমিটার চওড়া হয়। অনেকটা আনারসের পাতার মতো।

এই গাছের পাতা কাণ্ড থেকে সরাসরি পত্রমূল ছাড়াই বের হয়। পাতার গোড়া কাণ্ডের সাথে জড়িয়ে থাকে।পাতার অগ্রভাগ সরু এবং মাটির দিকে অবনত থাকে। পাতার রঙ সবুজ এবং উভয় তল মসৃণ।আশ্বিন কার্তিক মাসে গুচ্ছাকার ফল হয়।

কেয়া না ফুটলে কি বর্ষা হয়

কেয়া ফুল থেকে সুগন্ধী তেল তৈরি করা হয় যা কেওড়া তেল নামে পরিচিত। এই গাছ বাংলাদেশসহ ভারত, ইন্দোনেশিয়া, মায়ানমার, জাপান প্রভূতি দেশে প্রচুর জন্মে।