শরতের বাংলা



শাহ্ ইসকান্দার আলী স্বপন, কন্ট্রিবিউটিং করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
বাঙালির ঐতিহ্যে লালিত শরৎ ঋতু

বাঙালির ঐতিহ্যে লালিত শরৎ ঋতু

  • Font increase
  • Font Decrease

ক্যালেন্ডারে শরৎ ঋতুর দ্বিতীয় মাস আশ্বিন শুরু হয়েছে আর প্রকৃতিতে দোলা দিচ্ছে অনিন্দ্য পালাবদল। শরৎ এ সময় খুলে দিয়েছে তার অপরূপ বিভা ও সৌন্দর্য। আবহমান বাঙালির ঐতিহ্যে লালিত শরৎ ঋতু বাঙলার প্রকৃতির মনোলোভা সংবেদন নিয়ে কাশফুলের দোলা দিচ্ছে।

বঙ্গাব্দ বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী ষড়ঋতুর ভাদ্র-আশ্বিন এ দুই মাস বাংলাদেশে শরৎকাল। শরতে মানুষ বর্ষাকে বিদায় জানিয়ে ঘরের বাইরে এসে সাদা মেঘের কারুকার্যখচিত চিত্রালির উন্মুক্ত আকাশের নীচে শীতল হাওয়ায় নিজেকে অবমুক্ত করে। বাঙলার আকাশ, বাতাস, নদীনালা, হাওর, বনাঞ্চল মুখরিত হয় পর্যটকের কোলাহলে। নদীর ঢেউয়ের সাথে দোল খায় নদীপাড়ের সাদা কাশফুল। শিশির ভেজায় শারদ সকাল, ঘাসের উপড় জমে থাকে চিক চিক শিশির বিন্দু। গাছের পাতা ঝড়া শুরু হয় শরৎ ঋতুতেই।

শরতে সবুজের বুকে সাদা কাশফুল ছাড়াও ফোটে উঠে গগন শিরীষ, আর শিউলি, শেফালী। ছাতিম, বকফুল, মিনজিরি, কলিয়েন্ড্রার দেখা মেলে শরৎ কালে। হেঁটে যেতে পায়ে দলে খুশবু মাখা সাদা শিউলি। পদ্ধবিলে ফুটে থাকে শাপলা। গ্রামের শিশু কিশোর দলবদ্ধ হয়ে ঘুরে বেড়ায় বনজঙ্গল, এ গাছ ও গাছ চালতা, করমচা, ডেউয়া, ডুমুর, অলবরই আর আমলকির খোঁজে।

পৃথিবীব্যাপী কোভিড-১৯ বৈশ্বিক মহামারীর তৃতীয় ঢেউ চলমান। রোগ, জরা, জীর্ণতা আর সাহসী মানুষের প্রতিরোধ তাদের কষ্ট ও মৃত্যুঞ্জয়ী হয়ে উঠার কঠিন সমীকরনের বর্তমান সময়ে শরৎঋতুর ভুমিকা অনন্য। জীবিকার প্রয়োজনে ক্রমশ খুলছে অফিস আদালত , ব্যবসা বাণিজ্য, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘসময় গৃহবন্দি মানুষের মানসিক বিহ্বলতা বাইরে এসে নিমেশেই হারাবে শরতের কোমলতা আর স্নিগ্ধতায়।এ প্রত্যাশায় প্রকৃতি ফিরে পাবে তার আশীর্বাদপুষ্ট মানবাচরন। মনুষ্যত্ব নিয়ে ঘুরে দাঁড়াবে মানব সভ্যতা।

শরৎ শুরুর কয়েক দিন আগে ছিলো ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের ত্যাগের অনুষ্ঠান পবিত্র ঈদুল আজহা । এ সময় মুসুল্লিরা তাদের প্রার্থনায় করোনামুক্ত পৃথিবীর জন্য দোয়া করেছেন। এবার শরতে শুরু হবে শারদীয় দূর্গা পূজা। সনাতন ধর্মাবলম্বী পুজারীরা নিবেদন করবেন তাদের পূজা আর্চনা।

হয়তো করোনাকালে উৎসবের আমেজ সেভাবে পাওয়া যাবে না। সামাজিক দূরত্ব, স্বাস্থবিধি ও সঙ্গরোধের আলোকে মানুষকে থাকতে হবে সদা সতর্ক। তথাপি মৈত্রী, প্রেম ও সৌহার্দ্যে ভরপুর হবে মানুষের আচার ও অনুষ্ঠান। শরতের আলোকিত পরিবেশ মানুষে উচ্ছ্বাসের বন্যায় হবে উদ্বেলিত।