পর্যটক টানতে তৎপর পশ্চিমবঙ্গ



মায়াবতী মৃন্ময়ী, কন্ট্রিবিউটিং করেসপন্ডেন্ট,  বার্তা২৪.কম
পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতা।

পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতা।

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনার গতি কমতেই পর্যটক টানতে তৎপর হয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য। রাজ্য সরকারের তরফে পর্যটন বিকাশে হাতিয়ার করা হচ্ছে ডিজিটাল মিডিয়াকে, যারা দেশ-বিদেশের পর্যটক টানতে কাজ করবে। তথ্যচিত্র বানিয়ে ফেসবুক, ইউটিউব, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার-সহ বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে ধারাবাহিক প্রচার করবে পশ্চিমবঙ্গের পর্যটন সেক্টরের পক্ষে।

করোনার কারণে গত প্রায় ১৯ মাস পশ্চিমবঙ্গ-সহ সারা ভারতে বিদেশি পর্যটকের আনাগোনা প্রায় বন্ধই ছিল। অতি-সম্প্রতি বিদেশি পর্যটকদের ভারতে আসার অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। ট্যুরিস্ট ভিসা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এই অবস্থার সুযোগ কাজে লাগিয়ে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যকে পর্যটনের গন্তব্যস্থল হিসেবে তুলে ধরতে সচেষ্ট হয়েছে সেখানকার সংশ্লিষ্টরা। এজন্য পর্যটন প্রসারে পেশাদার এজেন্সি নিয়োগের কথাও ভাবা হচ্ছে, যারা আগামী দু'বছরের জন্য রাজ্য পর্যটনের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে প্রচার চালাবে। রাজ্যের কোথায় কোথায় বেড়াতে যাওয়া যায়, কোথায় কী ধরনের সুযোগ-সুবিধা, যাতায়াতের উপায়, হোটেলে খরচ--সে-সবের বিশদ বিবরণ তুলে ধরা হবে। রাজ্য পর্যটন উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের বিভিন্ন কর্মসূচি সম্পর্কেও মানুষকে অবহিত করবে এজেন্সি।

রাজ্য পর্যটন দফতর জানিয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে পর্যটন বিকাশের উজ্জ্বল সম্ভাবনা থাকলেও প্রচারের অভাবে তা অনেকটাই মার খাচ্ছে। তাই রাজ্যের উত্তরে দার্জিলিং, ডুয়ার্সের অফুরান প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, দক্ষিণে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সুন্দরবন টাইগার রিজার্ভ সম্পর্কে নতুন করে তুলে ধরার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। অপরূপ বিজ্ঞাপনে সাজিয়ে তোলা হবে বঙ্গোপসাগরের তীরে দিঘা সৈকত, শঙ্করপুর, মন্দারমণি, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, বীরভূম, কোচবিহার, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ, মালদহের ঐতিহাসিক ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর নানা দর্শনীয় স্থান।

কর্তৃপক্ষ মনে করে, আন্তর্জাতিক পর্যটক টানার সম্ভাবনা প্রচুর হলেও পশ্চিমবঙ্গ রয়েছে পিছিয়ে। উত্তর ভারত, গুজরাট, তামিলনাড়ু, কেরালার মতো রাজ্যে যে সংখ্যায় বিদেশি পর্যটক আসেন, পশ্চিমবঙ্গ সে দিক থেকে অনেক পশ্চাৎপদ। এর বড় কারণ প্রচারের অভাব। পর্যটকরা কোথাও বেড়াতে যাওয়ার আগে সেই এলাকা সম্পর্কে ভালো করে খোঁজখবর নেন। কোথায় কী দর্শনীয়, তা জানার চেষ্টা করেন। আন্তর্জাতিক পর্যটক টানার জন্যে এখন বিশ্বজুড়ে প্রতিযোগিতা চলে। সেখানে সবাই নিজের ঢাক পেটাতে ব্যস্ত।

আন্তর্জাতিক পর্যটন সংক্রান্ত অসংখ্য ওয়েবসাইটও রয়েছে। অনেকে ব্লগ লেখেন। পর্যটন প্রসারে তাঁরাও গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম। গুজরাট, কেরালা, তামিলনাড়ুর মতো রাজ্য আন্তর্জাতিক পর্যটকদের দৃষ্টি আকর্ষণে ডিজিটাল মাধ্যমে নিয়মিত প্রচার চালায়। এটা করে সাফল্যের মুখও দেখছে। এ বার সেই পথে হাঁটতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পর্যটন উন্নয়ন নিগম সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্যের বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্র সম্পর্কে মাসে অন্তত আটটি স্টোরি প্রকাশ পাবে ওয়েবসাইটে। তার বিষয়বস্তু তৈরি করে দেবে সংশ্লিষ্ট এজেন্সি। এ ছাড়া মাসে কম করে চারটি ব্লগ প্রকাশ হবে। পর্যটন প্রসারে মাসে দু'বার করে বিজ্ঞাপন দেবে সরকার। রাজ্য পর্যটন দপ্তর এবং পর্যটন উন্নয়ন নিগমের কর্মসূচি নিয়েও বিভিন্ন ওয়েবসাইটে নিয়মিত প্রচার চালাবে এজেন্সি। ডিজিটাল মাধ্যমে প্রচারের মূল ভাষা হবে ইংরেজি। তবে বাংলায় অনুবাদও প্রকাশ হবে। সঙ্গে থাকবে আকর্ষণীয় ছবি ও ভিডিও ক্লিপ।