লিসবনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন

নাঈম হাসান, লিসবন, পর্তুগাল থেকে
লিসবনের শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন

লিসবনের শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন

  • Font increase
  • Font Decrease

পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপিত হয়েছে। বাংলাদেশ দূতাবাস লিসবনের উদ্যোগে দিবসটি পালন করা হয়।

লিসবনের ক্যাম্পো মার্টিয়ারেস দ্যা প্যাট্রিয়া পার্কে নির্মিত শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে প্রথমে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত মো. রুহুল আলম সিদ্দিকী। এরপর পর্তুগালের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, লিসবন মিউনিসিপালিটি, জুইন্তা ফেগ্রেজিয়া আরিওস, জুইন্তা ফেগ্রেজিয়া সান্তা মারিয়া মাইওরের প্রতিনিধিরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এছাড়া শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাব, পর্তুগাল আওয়ামী লীগ, পর্তুগাল বিএনপি, বৃহত্তর নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ দূতাবাস পরিবার, বৃহত্তর ফরিদপুর অ্যাসোসিয়েশন, পর্তুগাল ছাত্রলীগ, হবিগঞ্জ জেলা সমিতিসহ পর্তুগালে বসবাসরত বাংলাদেশিরা।

ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন রাষ্ট্রদূত মো. রুহুল আলম সিদ্দিকী, পর্তুগালের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি এবং জুইন্তা ফ্রেগেজিয়া আরিওসের প্রতিনিধি।

রাষ্ট্রদূত বলেন, এবারের শহীদ দিবস উদযাপন আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এই বছরে আমাদের সবগুলো অনুষ্ঠানই বিশেষভাবে উদযাপন করছি।

উল্লেখ্য, পর্তুগালের রাজধানী লিসবন এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর পোর্তোতে দুটি স্থায়ী শহীদ মিনার স্থাপিত হয়েছে। বাংলাদেশ দূতাবাস লিসবন ও জুইন্তা ফ্রেগেজিয়া আরিওসের উদ্যোগ ও প্রচেষ্টায় ২০১৫ সালে লিসবনের ক্যাম্পো মার্টিয়ারেস দ্য প্যাট্রিয়া পার্কে স্থায়ী শহীদ মিনারটি নির্মিত হয়েছিল।

বাংলাদেশ কমিউনিটি অব পোর্তো এবং পোর্তো মিউনিসিপালিটির যৌথ উদ্যোগে ২০১৬ সালে পোর্তো শহরের প্রাণকেন্দ্র বিখ্যাত সাও বেন্তে নামক জায়গায় প্রতিষ্ঠিত হয় পর্তুগালে বাংলাদেশের দ্বিতীয় স্থায়ী শহীদ মিনার।

আপনার মতামত লিখুন :