অক্সফোর্ডের করোনা টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দিলো যুক্তরাজ্য

  করোনা টিকা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি:  এএফপি

ছবি: এএফপি

  • Font increase
  • Font Decrease

অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্র্যাজেনেকার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাজ্য।

দেশটিতে করোনার দ্বিতীয় টিকা হিসেবে এই টিকার অনুমোদন দেওয়া হলো। এর আগে যুক্তরাজ্য ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দেয়।

বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এমনটি জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, টিকাটির অনুমোদন যুক্তরাজ্যে করোনা মোকাবিলা টার্নিং পয়েন্ট হিসেবে কাজ করবে।  সেই সঙ্গে  টিকাদান সম্প্রসারণে ব্যাপক প্রসার ঘটাবে। এর মাধ্যমে মানুষকে স্বাভাবিক জীবনে  ফিরতে সহায়তা করবে জানান বিজ্ঞানীরা।

দেশটির সরকার এরই মধ্যে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের ১০ কোটিরও বেশি ডোজ অর্ডার করেছে। ৫০ মিলিয়ন মানুষের মাঝে প্রয়োগ করতে হবে। এরমধ্যে ৪০ লাখ মার্চের শেষে দেশব্যাপী জিপি সার্জারিতে পাওয়া যাবে।

যুক্তরাজ্যের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা মেডিসিন্স অ্যান্ড হেলথকেয়ার প্রোডাক্ট রেগুলেটরি এজেন্সি (এমএইচআরএ) বলছে, অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্র্যাজেনেকার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা নিরাপদ এবং কার্যকর।

যুক্তরাজ্য ইতোমধ্যে ১ লাখ ৪০ হাজারের বেশি মানুষ ফাইজার-বায়োএনটেকের করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছেন। এই মাসের শুরুতে নিয়ন্ত্রক সংস্থা জরুরি ব্যবহারের জন্য এই ভ্যাকসিনটি প্রয়োগের অনুমতি দেয়।

এদিকে জো বাইডেনের পর এ বার কোভিড টিকা নিলেন আমেরিকার ভাবী ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস।

মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) ওয়াশিংটনের ইউনাইটেড মেডিক্যাল সেন্টার (ইউএমসি)-তে মডার্নার প্রথম ডোজ নেন তিনি। দেশবাসীকে টিকাকরণে উৎসাহ দিতে সেই দৃশ্য সরাসরি সম্প্রচার করা হল টেলিভিশনে।

টিকা নেওয়ার পর কমলা হ্যারিস জানায়, ‘এটা সহজ ছিল’ এবং এটা ‘তুলনামূলকভাবে ব্যথামুক্ত’ ও দ্রুত ছিল। সেই সঙ্গে তিনি কৃতজ্ঞতা জানান ফ্রন্টলাইন স্বাস্থ্যসেবা কর্মী, বিজ্ঞানী, এবং গবেষকদের প্রতি, যারা এই মুহূর্তকে সম্ভব করেছে।

গত ২২ ডিসেম্বর ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকার দুই ডোজের প্রথমটি নিয়েছেন নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ডেলাওয়ার অঙ্গরাজ্যে এই টিকা নেন তিনি। সে দৃশ্যও টিভিতে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়েছিল।

টিকা নেওয়ার পর জো বাইডেন বলেছিলেন, তিনি এই টিকা নিয়েছেন মানুষকে দেখানোর জন্য যে ‘এটি নিরাপদ’।

উল্লেখ্য, বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে যুক্তরাজ্য ২ ডিসেম্বর ফাইজার-বায়োএনটেকের করোনার টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দেয়। ৮ ডিসেম্বর দেশটিতে এই টিকার প্রয়োগ শুরু হয়। সর্বপ্রথম এ টিকা নেন ৯০ বছরের বৃদ্ধা মার্গারেট কিনান এবং যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম যারা গ্রহণ করেছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) কর্মরত এক নার্স। সান্দ্রা লিন্ডসে নামের ওই নার্স নিউ ইয়র্ক শহরের প্রথম ব্যক্তি হিসেবে ১৪ ডিসেম্বর সরাসরি প্রচারিত এক ভিডিও ইভেন্টে এই টিকা গ্রহণ করেন।

প্রসঙ্গত, ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা মাইনাস ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করতে হয়। অন্যদিকে, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা সাধারণ রেফ্রিজারেটরেই সংরক্ষণ করা যাবে।

ফাইজারের মতো অক্সফোর্ডের টিকারও দুটি করে ডোজ নিতে হবে। ফাইজারের ক্ষেত্রে দুই ডোজের মধ্যে ব্যবধান তিন সপ্তাহ। অক্সফোর্ডের ক্ষেত্রে এই ব্যবধান চার সপ্তাহ।

  করোনা টিকা