টিকার জন্য ধৈর্য ধরার আহ্বান সেরাম ইনস্টিটিউটের

  করোনা টিকা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বের বৃহত্তম ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (এসআইআই) করোনার টিকার জন্য অপেক্ষায় থাকা বিদেশি সরকারগুলোকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়েছে।

রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতে করোনার টিকার প্রয়োজনীয়তার দিকটিকে অগ্রাধিকার দেওয়ার জন্য তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর জন্য বিদেশি দেশগুলোকে টিকা দিতে দেরি হচ্ছে বলে জানায়।

সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান নির্বাহী আদর পুনাওয়ালা রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) এক টুইটবার্তায় বলেছেন, আমি বিনীতভাবে আপনাদেরকে (বিদেশি দেশগুলোকে) ধৈর্য ধরার জন্য অনুরোধ করছি। তিনি ভারতের বিপুল প্রয়োজনীয়তাকে অগ্রাধিকার দেওয়ার জন্য সেরাম ইনস্টিটিউটকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি বাকি বিশ্বের প্রয়োজনীয়তার সঙ্গে ভারসাম্য রাখতে বলা হয়েছে বলে জানান।

আমরা আমাদের যথাসাধ্য চেষ্টা করছি বলে জানান সেরাম ইনস্টিটিউটের এই প্রধান নির্বাহী।

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনার টিকা ভারতে উৎপাদন করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। সেরাম উৎপাদিত টিকাটির নাম ‘কোভিশিল্ড’।

সেরাম ইনস্টিটিউটের উৎপাদিত কোভিশিল্ড টিকার ওপর বাংলাদেশসহ অনেক নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলো নির্ভর করছে। তবে চাহিদা বাড়ছে, কানাডার মতো পশ্চিমা দেশগুলিতেও। যেখানে আগামী মাসে কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

ভারতে প্রায় ১১ মিলিয়ন মানুষকে করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে।

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ভারতের অবস্থান দ্বিতীয়। ভারতে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৯ লাখ ৯১ হাজার ৬৫১ জন। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৫৬ হাজার ৩৩৯ জন।

রয়টার্সের এক বিশ্লেষণ অনুসারে, ভারতে বর্তমানে প্রতিদিন প্রায় ১২ হাজার নতুন সংক্রমণের খবর পাওয়া যাচ্ছে।

  করোনা টিকা