মিয়ানমারের রাস্তায় হাজারো বিক্ষোভকারী, গুলি ছুড়ছে পুলিশ



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মিয়ানমারে সামরিক সরকার বিরোধী বিক্ষোভকারীদের ধরতে শনিবার (০৬ মার্চ) রাতভর দমনমূলক অভিযান চালিয়েছে দেশটির পুলিশ। এরপর আজ রোববার (০৭ মার্চ) ইয়াঙ্গুনসহ কয়েকটি শহরে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে গুলি চালানো হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, রোববার (০৭ মার্চ) সকাল থেকেই দেশজুড়ে হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে আসে। এরপরই ইয়াঙ্গুনসহ বেশ কিছু এলাকায় কঠোর হতে থাকে পুলিশ। ছুড়তে শুরু করে ফাঁকা গুলি, টিয়ার গ্যাস।

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্যমতে, ইয়াঙ্গুনের তামওয়ে এলাকায় গত রাতে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে দাঙ্গা পুলিশ ফাঁকা গুলি ছোড়ে। ব্যবহার করে সাউন্ড গ্রেনেড। সামরিক জান্তার নিয়োগ করা এক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এলাকাটির লোকজন বিক্ষোভ দেখান।

রাতভর পুলিশের মারমুখী আচরণ সম্পর্কে সেখানকার এক বাসিন্দা বলেন, আমরা সত্যিই ভীত-সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছিলাম।

উল্লেখ্য, গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে সেনাবাহিনী নির্বাচিত নেত্রী অং সান সু চিসহ বেসামরিক সরকারের শীর্ষ নেতাদের আটক এবং রাষ্ট্রক্ষমতা কুক্ষিগত করার পর থেকেই দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটিতে অচলাবস্থার সূচনা হয়। প্রতিদিন বিক্ষোভ ও অবরোধের কর্মসূচির কারণে ব্যবসায়িক পরিবেশ রুদ্ধ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অচল হয়ে গেছে দেশটির দৈনন্দিন প্রশাসনিক কার্যক্রম। জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী, অভ্যুত্থানের পর থেকে মিয়ানমারে সামরিক জান্তা সরকারের হাতে অর্ধশতাধিক বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। এরপরও বিক্ষোভকারীরা প্রতিদিনেই রাস্তায় নামছেন এবং গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু চির মুক্তিসহ গণতান্ত্রিক সরকারের হাতে ক্ষমতা ফিরয়ে দেওয়ার দাবি জানাচ্ছেন।

ফেসবুকের এক লাইভ ভিডিওতে দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় শান প্রদেশের লাশিও শহরে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশকে স্টান গ্রেনেড ও টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করতে দেখা গেছে। ঐতিহাসিক মন্দিরের শহর বাগানে আন্দোলনকারীদের সরাতে পুলিশকে ফাঁকা গুলি ছুড়তে দেখেছেন বলে জানিয়েছেন একজন প্রত্যক্ষদর্শী। অবশ্য বেশ কয়েকটি শহরে এখনও শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনের খবর পাওয়া গেছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, সেনা বাহিনী ও পুলিশের গুলিতে নিহতদের স্মরণে মান্দালয়ে দুই মিনিট নিরবতা পালন করে রাজপথে অবস্থান নেন আন্দোলনকারীরা।

মিয়ানমারে চলমান ধরপাকড়ে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৭০০ জনের বেশি লোককে আটক হয়েছে বলে জানিয়েছে পরামর্শক গ্রুপ অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স।