ভারতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ১২ জন নিহত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় অন্তত ১২ জন নিহত হয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে। নিহতদের মধ্যে বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস দু-দলের কর্মীই রয়েছে। এ ঘটনায় বিজেপিকে দায়ী করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ভোটের ফল প্রকাশের পর জেলায় জেলায় শুরু হয় রাজনৈতিক সহিংসতা। কলকাতার কাঁকুরগাছি এলাকায় এক বিজেপি কর্মীকে পাথর মেরে খুন করা হয় বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। বিজেপি জানায়, ওই ব্যক্তি তাদের দলের কর্মী।

এদিকে তৃণমূল জানিয়েছে, বিজেপি কর্মীরা তাদের অন্তত পাঁচ সমর্থককে হত্যা করেছে। এর মধ্যে শুধু পূর্ব বর্ধমানেই তিন জনকে হত্যা করা হয়েছে। হুগলিতে নিহত হয়েছে আরও একজন। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে আরও কয়ক জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে।

হানাহানি বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, রাজ্যের শান্তির, সংস্কৃতির একটা ধারা আছে। সেটাকে বজায় রাখতে হবে। বিজেপি এর পরেও গোলমাল করছে। আমি বলছি শান্ত থাকুন। এখন প্রয়োজন মানুষের পাশে দাঁড়ানো।

তিনি আরও বলেন, রাজ্যে করোনা সংক্রমণে প্রচুর মানুষ বিপদে পড়েছেন। এই বিষয়টা আমাদের আগে দেখতে হবে। বিজেপির বুঝতে হবে তারা শাহেনশা নয়। আমরা ৩৬৫ দিন মানুষের কাজ করি। মানুষকে উজ্জীবিত করি। মোদির অশ্বমেধের ঘোড়া রাজ্যের জাত-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে মানুষ রুখে দিয়েছে। বাংলার মায়েরা ও তরুণরা পারে বিজেপিকে রুখে দিতে। বিজেপিকে রুখে দেওয়ার সব কৃতিত্ব জনগণের।