এবারও বিদেশিদের হজ পালনে নিষেধাজ্ঞার পরিকল্পনা সৌদির



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় এবারও বিদেশি হজযাত্রীদের প্রবেশ নিষিদ্ধের পরিকল্পনা সৌদি আরবের। এসময় শুধু স্থানীয়রা সীমিত আকারে পবিত্র হজ পালন করতে পারবেন।

বুধবার (০৫) সৌদি আরবের দু’টি সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

জানা গেছে, দেশি হাজীদের হজ করার অনুমতি দেওয়া হবে। তবে যারা টিকা নিয়েছেন অথবা হজের কয়েক মাস আগেই কোভিড-১৯ থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন, কেবল তারাই এ বছর হজের অনুমতি পাবেন।

অবশ্য সূত্র বলেছে, বিদেশি হজযাত্রীদের ওপর সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে আলোচনা চলছে ঠিকই, তবে তা অনুসরণ করা হবে কি না সে বিষয়ে এখনও চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি।

সংশ্লিষ্ট দু’টি সূত্র জানিয়েছে, বিদেশি হজযাত্রীদের অনুমতি দেয়ার পূর্বপরিকল্পনা বাতিল করেছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। এক্ষেত্রে স্থানীয়দের মধ্যে যারা টিকা নিয়েছেন অথবা হজের অন্তত ছয়মাস আগে করোনামুক্ত হয়েছেন, কেবল তাদেরই অনুমতি দেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

আরেকটি সূত্র জানিয়েছে, বয়সের বিষয়টিও বিবেচনা করা হবে।

জানাযায়, প্রাথমিকভাবে সৌদি আরব বিদেশ থেকে কিছু সংখ্যক ভ্যাকসিন হজযাত্রীদের অনুমতি দেওয়ার পরিকল্পনা করে ছিল, তবে ভ্যাকসিনের ধরণ, তাদের কার্যকারিতা এবং নতুন রূপের উত্থানের বিষয়ে সংশয় কর্মকর্তাদের পুনর্বিবেচনার দিকে ঠেলে দিয়েছে।

প্রতিবছর হজে কয়েক লাখ মানুষ সৌদি আরবের মক্কা নগরীতে জমায়েত হন। এই বিপুল সংখ্যক মানুষের সমাগম বর্তমান প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। তাই এই সিদ্ধান্তে যাচ্ছে দেশটি।

সৌদি সূত্র জানায়, হজ পালনে সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞা নিয়ে আলোচনা করা হলেও কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনো হয়নি।

ইসলামের চতুর্থ স্তম্ভ হজ সামর্থ্যবান মুসলমানদের জন্য একটি আবশ্যকীয় ইবাদত বা ধর্মীয় উপাসনা। শারীরিক ও আর্থিকভাবে সক্ষম প্রত্যেক মুসলমান নর-নারীর জন্য জীবনে একবার হজ পালন করতে হবে।

আরবি জিলহজ মাসের ৮ থেকে ১২ তারিখ হজের জন্য নির্ধরিত সময়। হজ পালনের জন্য বর্তমান সৌদি আরবের মক্কা নগরী এবং সন্নিহিত মিনা, আরাফাত, মুযদালিফা প্রভৃতি স্থানে গমন এবং অবস্থান আবশ্যক।

হজ হল আল্লাহর কাছে মুসলমানদের আনুগত্যের প্রদর্শন।

উল্লেখ্য, মহামারি মোকাবিলায় গত বছরেরও আধুনিক ইতিহাসে প্রথমবারের মতো হজ পালনে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল সৌদি আরব। তখনও সীমিত সংখ্যক সৌদি নাগরিক ও অধিবাসীদের হজ পালনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল।