করোনায় নাজেহাল নেপাল, অক্সিজেনের আকাল



কনক জ্যোতি, কন্ট্রিবিউটিং করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
করোনায় নাজেহাল নেপাল। সংগৃহীত

করোনায় নাজেহাল নেপাল। সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দক্ষিণ এশিয়ায় করোনা মহামারির তাণ্ডবে বিপর্যস্ত ভারতের নিকটতম-প্রতিবেশি নেপালেও বিরাজ করছে চরম নাজেহাল পরিস্থিতি। ক্রমবর্ধমান কোভিডে আক্রান্ত অসংখ্য মানুষের জন্যে নেপালে শুধু অক্সিজেন নয়, আকাল দেখা দিয়েছে পর্যাপ্ত সিলিন্ডারেরও।

চলমান রাজনৈতিক অচলাবস্থার মধ্যেই ব্যাপক করোনা সংক্রমণের কারণে মানবিক বিপর্যয়ের পদধ্বনি শুনতে পাওয়া যাচ্ছে নেপালে। পরিস্থিতি এতটুকুই নাজুক হয়েছে যে, হিমালয়ের মাউন্ট এভারেস্ট অভিযাত্রীদের কাছে নেপাল সরকারের অনুরোধ, 'অক্সিজেনের ফাঁকা পাত্রগুলো ফেলে আসবেন না। নেমে আসার সময় দয়া করে সেগুলো ফিরিয়ে আনুন।' সোমবার (১০ মে) নেপাল সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে এই আর্জি জানায়।

করোনা বিস্তারের মধ্যেই এপ্রিল-মে মাসে হিমালয়ের ১৬টি শৃঙ্গ অভিযানের জন্য মোট ৭০০ অভিযাত্রীকে অনুমতি দিয়েছে নেপাল সরকার। তারমধ্যে অর্ধেকের বেশি, অর্থাৎ ৪০৮ জনকে দেওয়া হয়েছে এভারেস্ট অভিযানের ছাড়পত্র। দেশের অর্থনীতি ও পর্যটন শিল্পকে চাঙ্গা রাখতে এই সিদ্ধান্ত নেয় হিমালয়কন্যা নামে খ্যাত পার্বত্য রাজ্য নেপাল।

রাষ্ট্রীয় নেপাল মাউন্টেনিয়ারিং অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকরতা কুল বাহাদুর গুরুং মিডিয়াকে বলেন, 'চলতি মৌসুমে পর্বতারোহী ও তাদের শেরপাদের সঙ্গে প্রায় ৩ হাজার ৫০০ অক্সিজেনের বোতল রয়েছে। তাদের কাছে আমাদের অনুরোধ, ফিরে আসার সময় এই ফাঁকা বোতলগুলো ফেলে আসবেন না। সঙ্গে নিয়ে আসুন। যাতে এই অক্সিজেনের পাত্রগুলো করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় ব্যবহার করা যায়। সঙ্কটের মুহূর্তে এগুলোর প্রয়োজন। কারণ, কাঠমাণ্ডুর বহু বেসরকারি ও কমিউনিটি হাসপাতাল বলছে, অক্সিজেন ও সিলিন্ডার, উভয়েরই অভাব রয়েছে। তাই নতুন করে রোগী ভর্তি নেওয়া যাচ্ছে না।'

নেপাল সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অফিসার সমীরকুমার অধিকারী বলেন, 'মানুষকে মৃত্যুর মুখ থেকে বাঁচাতে এখনই ২৫ হাজার অক্সিজেন সিলিন্ডারের প্রয়োজন আমাদের। জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজন অক্সিজেন প্লান্ট, কম্প্রেসার এবং আইসিইউ বেড।'

নেপাল সরকারের অন্য একজন কর্তা নাম প্রকাশ না করে আন্তর্জাতিক নিউজ এজেন্সির কাছে স্বীকার করেছেন, 'পরিস্থিতি সামলাতে চীনের কাছ থেকে ২০ হাজার অক্সিজেন সিলিন্ডার চাওয়া হয়েছে। আকাশপথে সেগুলো আনার চেষ্টা চলছে।'

তবে, বিস্তারিত না বললেও নেপালের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হৃদয়েশ ত্রিপাঠি আনুষ্ঠানিকভাবে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন যে, 'চীন অক্সিজেন সিলিন্ডার ও ভেন্টিলেটরসহ চিকিৎসা সরঞ্জাম দিয়ে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।'