সংকট মোকাবিলায় শিগগিরই কর্মী নেবে যুক্তরাজ্য!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ব্রেক্সিট পরবর্তী সময়ে যুক্তরাজ্যে চরম শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। তাই দেশটি লরি চালক এবং পোল্ট্রি শ্রমিকদের ঘাটতি কমাতে সাড়ে দশ হাজার অস্থায়ী কাজের ভিসা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

ব্রেক্সিট পরবর্তী অভিবাসন নীতি থেকে ইউ-টার্ন নিয়ে স্থানীয় সময় শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) এ ঘোষণা দেয় ব্রিটিশ সরকার। বার্তা সংস্থা এএফপির বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকা এ খবর জানিয়েছে।

স্বল্পমেয়াদি এ ভিসার মেয়াদ থাকবে আগামী অক্টোবর থেকে ডিসেম্বরের শেষ পর্যন্ত।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবর, যুক্তরাজ্যে আনুমানিক এক লাখ চালকের অভাব রয়েছে শুধু ভারী যানবাহনের ক্ষেত্রে। আরও কিছু খাতে কর্মী সংকটের জেরে যুক্তরাজ্যজুড়ে জ্বালানি সরবরাহে ব্যাপক ঘাটতি দেখা দিয়েছে। ট্যাংকার চালকের অভাবে পেট্রল পাম্পগুলোতে পৌঁছানো যাচ্ছে না পর্যাপ্ত জ্বালানি। ফলে গ্রাহকদের লম্বা লাইন লেগে গেছে সেখানে। আগামী দিনগুলোতে জ্বালানি সংকট আরও তীব্র হতে পারে আশঙ্কায় মানুষজন আগেভাগেই গাড়ির ট্যাংকি ভরতে মরিয়া হয়ে উঠেছে।

কর্মী ভিসা স্কিম দেওয়ার সিদ্ধান্তটি প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সিদ্ধান্তের বিপরীত। তার সরকার ব্রেক্সিট পরবর্তী অভিবাসন নীতি কঠোর করেছিল। তিনি বিদেশি শ্রমিকের ওপর নির্ভরতার অবসান ঘটানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

দেশটির পরিবহন সচিব গ্রান্ট শ্যাপস তবুও জোর দিয়ে বলেছেন, সংকট কাটাতে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তিনি পদক্ষেপ নিবেন।

তিনি বলেন, সংশ্লিষ্ট খাতগুলোকে অবশ্যই কাজের অবস্থার উন্নতি করতে হবে এবং নতুন চালকদের ধরে রাখার জন্য বেতন বৃদ্ধি অব্যাহত রাখতে হবে।

তবে দেশটির ব্যবসায়িক নেতারা মনে করছেন, সরকার এই সিদ্ধান্ত অপর্যাপ্ত।

ব্রিটিশ চেম্বারস অব কমার্সের সভাপতি রুবি ম্যাকগ্রেগর-স্মিথ বলেন, এই ঘোষণাটি একটি অগ্নিকুণ্ডের ওপর এক ফোঁটা পানি নিক্ষেপ করার মতো।

তিনি বলেন, নতুন ভিসার সংখ্যা অপর্যাপ্ত, যা সমস্যা মোকাবিলায় যথেষ্ট নয়।