মোদির ট্যাক্সিতে চড়ার ভাইরাল ছবিটি ‘ভুয়া’, ক্ষুব্ধ বিজেপি



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: এএনআই

ছবি: এএনআই

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রামে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। ওই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, ‘মোদি একটা ট্যাক্সি ক্যাব থেকে নামছেন।’

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর ট্যাক্সিতে চড়ে ভ্যাটিক্যান সিটিতে পোপের সঙ্গে সাক্ষাত করতে যাওয়া নিয়ে ট্রল শুরু করেন নেটিজেনরা। আবার মোদিভক্ত কেউ কেউ এটিকে ‘ইতিবাচক’ হিসেবে উপস্থাপনের চেষ্টাও করছেন।

তবে ভাইরাল হওয়া ওই ছবিটি ভুয়া বলে জানিয়েছেন ফ্যাক্টচেকাররা। মোদবিরোধী একটি পক্ষ ছবিটি এডিট করে দামি গাড়ির স্থলে ‘ট্যাক্সি’ লেখা যুক্ত করেছেন এবং তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছেন বলে অভিযোগ বিজেপি নেতাদের।

barta24
পোপের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার আসল ছবি। ছবি: এএনআই

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই ওই সময়ের আসল ছবিটি প্রকাশ করেছে। একইসঙ্গে ছড়িয়ে পড়া ছবিটি যে ভুয়া তা নিয়েও বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে সংবাদ সংস্থাটিতে।

এএনআই-এর তথ্য অনুযায়ী, গত ৩০ অক্টোবর ইতালির রোমে পোপের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন মোদি। সেখানে পৌঁছে গাড়ি থেকে নামার সময় একটি ছবি নেওয়া হয়, এএনআই তাদের টুইটার, ফেসবুক ও ওয়েবসাইটে প্রকাশও করে।

ওই ছবিটি কোনো একটি মহল এএনআই থেকে নিয়ে তার ওপর নিখুঁতভাবে ইংরেজিতে লেখা ‘ট্যাক্সি’ শব্দটি বসিয়ে দিয়েছে, যা ট্যাক্সি ক্যাবগুলোতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। ছবিতে গাড়ির সামনে থাকা নম্বর প্লেটটিও পরিবর্তন করে অন্য নম্বরপ্লেট জুড়ে দেওয়া হয়।

তবে ফ্যাক্টচেকাররা ছবিটি যাচাই করে ভুয়া বলে উল্লেখ করেছেন। মূলত বিজেপি নেতা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ট্রল করতেই ছবিটি ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এর পেছনে কংগ্রেসসহ বিভিন্ন বিরোধীপক্ষকে দোষারোপ করছে বিজেপি।

ইউক্রেন সংকট: সব পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান চীনের



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইউক্রেন ইস্যুতে সব পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন চীনা। চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বুধবার (২৬ জানুয়ারি) মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনকে ফোনে বলেছেন, বেইজিং ইউক্রেন ইস্যুতে জড়িত সকল পক্ষকে শান্ত দেখতে চায়।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, আমরা ইউক্রেন ইস্যুতে সব পক্ষকে শান্ত থাকতে এবং উত্তেজনা ছড়ায় এমন কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছি।

চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বলেন, ন্যাটোর সম্প্রসারণে রাশিয়ার আপত্তির বিষয়ে ব্লিঙ্কেনকে বলেছি যে সামরিক ব্লকগুলিকে শক্তিশালী বা সম্প্রসারণ করে আঞ্চলিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যায় না।

ইউক্রেন সীমান্তে দীর্ঘদিন ধরেই প্রায় এক লাখ সেনাসদস্য মোতায়েন করে রেখেছে প্রতিবেশী দেশ রাশিয়া। যেকোনো মুহূর্তে রুশ সেনারা দেশটিতে আক্রমণ করতে পারে বলেও আশঙ্কা রয়েছে। যদিও ইউক্রেনে হামলার কোনো পরিকল্পনা নেই বলে বরাবরই দাবি করে আসছে মস্কো।

তবে রাশিয়া পশ্চিমা দেশগুলোর কাছ থেকে পূর্ব ইউরোপে নিরাপত্তার গ্যারান্টি চায়। ইতিপূর্বে রাশিয়া পরিষ্কার করেই বলেছে যে, ইউক্রেনকে কখনোই সামরিক জোট ন্যাটোতে যোগ দিতে না দেওয়ার প্রতিশ্রুতি মস্কো লিখিতভাবে চায়। এমনকি সোভিয়েত ইউনিয়নের সাবেক এই প্রদেশে ন্যাটোর সামরিক সরঞ্জাম মোতায়েন করা হবে না; এমন প্রতিশ্রুতিও চায় রাশিয়া।

এদিকে, রুশ দাবির আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়ায় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেন ইউক্রেন ইস্যুতে কোনও ছাড় পাবে না মস্কো। কূটনৈতিক প্রক্রিয়ায় এই সংকট নিরসনের ওপরও তাগিদ দেন তিনি।

;

কানাডায় এক বাড়ি থেকে চারজনের মৃতদেহ উদ্ধার



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

কানাডার ভ্যানকুভারে একটি বাড়ি থেকে চারজনের গুলিবিদ্ধ নিথর দেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন। নিহতদের নাম-পরিচয় এখনো প্রকাশ করা হয়নি। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে এ তথ্য বলা হয়েছে।

তদন্তকারী পুলিশ জানিয়েছেন, এটি ‘পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড’ প্রাথমিক তথ্য-প্রমাণ দেখে এমনই মনে হচ্ছে। সম্ভবত নিহতরা সবাই পূর্বপরিচিত ছিলেন। তবে এর সঙ্গে আঞ্চলিক গ্যাং সহিংসতার কোন যোগসূত্র নেই বলেও মনে করছেন পুলিশ।

কর্তৃপক্ষ জানায়, পুলিশকে মঙ্গলবার রাতে (২৫ জানুয়ারি) বিষয়টি জানানো হয়। কিন্তু তারা সম্ভবত সোমবার রাতেই নিহত হন।

তদন্ত প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে জানিয়ে পুলিশের তদন্ত দলের সদস্য ডেভিড লি বলেছেন, এমন মর্মান্তিক ঘটনায় স্থানীয়রা মর্মাহত।

তিনি জানান, গত মঙ্গলবার ভ্যানকুভারের দক্ষিণের গার্ডেন সিটি থেকে ফোন আসে। পরে পুলিশের একটি দল সেখানে গিয়ে দেখতে পায়, স্থানীয় লোকজন একটি বাড়ির ভেতরে চারটি মরদেহ পেয়েছেন। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ ধারণা করছে, সোমবার সন্ধ্যার সময় এসব ব্যক্তিকে গুলিতে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার শিকার ব্যক্তিরা একে অপরকে চিনতেন বলেও ধারণা তাদের। ঘটনা তদন্তে ইন্টিগ্রেটেড হোমিসাইড ইনভেস্টিগেশন টিমকে (আইএইচআইটি) দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

কানাডায় আগ্নেয়াস্ত্র সম্পর্কিত হত্যাকাণ্ড বেড়েই চলেছে। সরকারি হিসাবে, ২০২০ সালে দেশটিতে এ ধরনের ২৭৭টি ঘটনা ঘটেছে। ২০১৩ সাল থেকে কানাডার বড় শহরগুলোতে গ্যাং সহিংসতা প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে।

;

ইউক্রেনে সামরিক কারখানায় গুলিতে পাঁচজন নিহত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইউক্রেনের মধ্যাঞ্চলের একটি সামরিক কারখানায় দেশটির ন্যাশনাল গার্ডের এক সেনা সদস্যের গুলিতে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) ভোরে পিভদেনমাস ক্ষেপণাস্ত্র কারখানায় এই গুলি চালানোর ঘটনা ঘটে। তবে, গুলি চালানোর কারণ এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। ওই সামরিক কারখানায় প্রতিরক্ষা, প্লেন এবং কৃষি সংক্রান্ত সরঞ্জাম তৈরি করা হয়।

পুলিশের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শিফটের শুরুতে রক্ষীদের অস্ত্র বিতরণের সময় গুলি চালানো হয়। পুলিশ জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে চারজন সেনা ও একজন বেসামরিক নারী রয়েছেন।

পলাতক সৈনিককে খুঁজছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, তার কাছে একটি কালাশনিকভ রাইফেল এবং ২০০টি কার্তুজ রয়েছে।

ইউক্রেনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ওই সেনা সদস্যের ডিউটি শিফটের শুরুতে অস্ত্র বিতরণের পর স্থানীয় সময় ভোর ৩টা ৪০ মিনিটে গুলি চালানো শুরু করে। বিবৃতিতে বলা হয়, এই অপরাধের কারণ এখনও জানা যায়নি। ন্যাশনাল গার্ডের কমান্ডার নিকোলাই বালান ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে গেছেন।

সূত্র: আল-জাজিরা

;

ফার্মেসিতেই মিলবে সাধ্যের মধ্যে টিকা!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গত ১৯ জানুয়ারি ভারতের সেন্ট্রাল ড্রাগ স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশনের (সিডিএসসিও) বিশেষজ্ঞ দল (এসইসি) কোভাক্সিন এবং কোভিশিল্ড করোনার এই দুই টিকাকে বাজারে ছাড়ার অনুমতি দেয়। জানা যায় এখন থেকে ভারতের ওষুধের দোকানগুলোতেই মিলবে করোনার এই দুই টিকা। এমনটাই জানিয়েছিল সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্রের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার।

এরপর থেকেই টিকার দাম কত হবে, তা নিয়েও চিন্তাভাবনা শুরু হয়ে গিয়েছে।

ইতিমধ্যেই ওষুধের দোকানগুলোতে করোনা টিকা বিক্রির ছাড়পত্রের জন্য কেন্দ্রীয় নিয়ামক সংস্থার কাছে ইতিমধ্যেই আবেদন করেছে কোভিশিল্ডি প্রস্তুতকারক সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউট এবং কোভ্যাক্সিন প্রস্তুতকারক সংস্থা ভারত বায়োটেক।

অনুমতি পাওয়ার পরই  খোলাভাবে ওষুধের দোকানেই পাওয়া যাবে করেনার টিকা।

এবিষয়ে এক সূত্র জানিয়েছে, সকল স্তরের মানুষের সামর্থের কথা চিন্তা করেই টিকার দাম নির্ধারণের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ‘ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং অথোরিটি’ (এনপিপিএ)-কে।

আরও জানা যায়, কোভাক্সিন এবং কোভিশিল্ড ভিন্ন সংস্থার হলেও দুটি টিকা একই দামে বিক্রি করা হতে পারে।

অনুমান করা হচ্ছে প্রতি টিকার দাম হতে পারে ২৭৫ টাকা। তার সঙ্গে যুক্ত হতে পারে অতিরিক্ত পরিষেবা বাবদ ১৫০ টাকা বলে সূত্রটি জানিয়েছে।

বর্তমানে ভারতের বেসরকারি হাসপাতালে কোভ্যাক্সিনের প্রতি টিকার দাম ১ হাজার ২০০ টাকা ও কোভিশিল্ডের দাম ৭৮০ টাকা।  

সূত্র- আনন্দবাজার

 

;