করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করা এক স্বাস্থ্যকর্মীর মুখ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করা এক স্বাস্থ্যকর্মীর মুখ

করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করা এক স্বাস্থ্যকর্মীর মুখ

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ ভাইরাসের প্রকোপ দিন দিন বেড়েই চলছে। এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে হিমশিম খাচ্ছে উন্নত দেশগুলোও। অন্যদিকে ভাইরাসটি থেকে রক্ষা পেতে সম্মিলিতভাবে কাজ করে যাচ্ছে গোটা বিশ্ব।  

করোনার এ লড়াইয়ে রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিতে টানা কাজ করে যাচ্ছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। বিশ্রাম বা ঘুমের সময়ও পাচ্ছেন না তারা। সংক্রমিত লোকদের সাধ্যমতো সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

এদেরই একজন ৩৫ বছর বয়সী ডা. নিকোলা সাগরবি। রাত-দিন রোগীদের সুস্থ করে তুলতে লড়াই করছেন এই স্বাস্থ্যকর্মী। দীর্ঘ সময় পিপিআই ও মাস্কবন্দি থাকা নিকোলার মুখের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ইতালির বাগিওভাড়া মোদিনা এলাকার সিভিল হাসপাতালের আইসিইউ‘র প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চিকিৎসক ডা. সাগরবি।

করোনার প্রাদুর্ভাবের পর গত ১৩ মার্চ থেকে সাগরবি আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় প্রতিদিন ১২ ঘণ্টা কাজ করছেন। এ সময় তার পরনে থাকে প্রতিরক্ষামূলক সরঞ্জাম। রোগীদের সেবা শেষে সাগরবি রাত আটটায় যখন তার মুখের মাস্ক খোলেন, তখন তার মুখ ক্ষত-বিক্ষত দেখা যায়। একদিন মাস্ক খোলার পর সাগরবি একটি সেলফি তোলেন। যদিও তিনি সেলফি তুলতে তেমন একটা ভালোবাসেন না।

মাস্ক খোলার পর সেলফিটি তোলোর বিষয়ে সাগরবি ই-মেইলে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে বলেন, আমি মূলত দুইটি কারণে ছবিটি তুলেছি। প্রথমত, এটা আমার বাবা-মাকে পাঠাব। এবং তাদের বলব, আজকের মতো আমার কাজ শেষ করলাম। এখন বাড়িতে যাচ্ছি সামান্য আহত অবস্থা।    

দ্বিতীয়ত, আমার এক বছর বয়সী মেয়ে আছে। যখন সে বড় হবে তাকে আমি ছবি দেখিয়ে এই মুহূর্তের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে বলব।

সাগরবি তার ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন। ছবিটি মুহূর্তের মধ্যে ৭৫ হাজার শেয়ার হয়।  এক লাখ ১৯ হাজার মানুষ তাতে শ্রদ্ধার সঙ্গে প্রতিক্রিয়া দেখান। ছবিটি বেশ জনপ্রিয় হয়, তাকে অনেকেই সুপারম্যানের সঙ্গে তুলনা করেন।

বিশ্বব্যাপী মহামারির মুহূর্তে ধারণ করা প্রত্যেকটি ছবি একেকটি গল্প তৈরি করছে। স্বাস্থ্যকর্মী নিকোলা সাগরবি ছবিটিও একটি লড়াইয়ের গল্প।

আপনার মতামত লিখুন :

এ সম্পর্কিত আরও খবর