‘করোনা নিয়ে রাজনীতি করবেন না’-ট্রাম্পকে ডব্লিউএইচও প্রধান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ডোনাল্ড ট্রাম্প ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান

ডোনাল্ড ট্রাম্প ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে ‘চীন কেন্দ্রিক’ অ্যাখ্যা দিয়ে ফান্ড দেওয়া বন্ধ করার হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মঙ্গলবার ( ৭ এপ্রিল) এক সংবাদ সম্মেলন ট্রাম্প বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে বিপুল পরিমাণ ফান্ড দেয় আমেরিকা। কিন্তু তারা একের পর এক ভুল করেছে। সংস্থাটি চীনের প্রতি পক্ষপাতদুষ্ট। ফান্ড বন্ধ করার বিষয়ে আমরা  চিন্তা-ভাবনা করব।

ট্রাম্পের এমন বক্তব্যের কড়া জবাব দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। জেনেভায় এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির প্রধান তেদরোস আধানোম গেব্রোয়াসু বলেছেন, দয়া করে করোনাভাইরাসকে রাজনীতির সঙ্গে জড়াবেন না। যদি আপনার দেশের জনগণের আর একটি মরদেহের কফিনও দেখতে না চান, তাহলে এটি নিয়ে রাজনীতি করা থেকে দূরে থাকুন।

তিনি বলেন, আমার ছোট মেসেজ করোনাভাইরাস অনেক বিপজ্জনক ভাইরাস। কোভিড-১৯ কে রাজনীতি থেকে আলাদা করে ভাবুন। এই সময় যুক্তরাষ্ট্রে ভাইরাসটি মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ থাকা দরকার।

করোনাভাইরাসের সংকটের শুরু থেকে পরিকল্পনা করে কাজ করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলে জানান তেদরোস আধানোম গেব্রোয়াসু।

তিনি বলেন, চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে বছরের শুরুর দিনে করোনাভাইরাস প্রথম শনাক্ত হয়। এরপর থেকে ডব্লিউএইচও‘র প্রধান কার্যালয়সহ বিভিন্ন দেশের আঞ্চলিক অফিসগুলোতে টিম গঠন করা হয়; তারা করোনার সংক্রমণ রোধে কাজ শুরু করে। ৫ জানুয়ারি করোনার প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে সদস্য দেশগুলোকে অবহিত করা হয়। এরপর একটি স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক গাইডলাইন প্রস্তুত করে তা অনুসরণ করার নির্দেশও দেওয়া হয়।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে আমরা যা যা করতে পারি তার সব করে যাচ্ছি। সময় নষ্ট না করে কিভাবে জীবন বাঁচাতে পারি সে লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি বলে জানান ডব্লিউএইচও প্রধান।   

মঙ্গলবারের সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সমালোচনা করে ট্রাম্প আরও বলেন, করোনা মহামারি রুখতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে সংস্থাটি। আমেরিকা যখন সীমান্ত বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, তখনও সংস্থাটি তার বিরোধিতা করেছিল বলে ট্রাম্পের দাবি।

আপনার মতামত লিখুন :