ই-কমার্স বাণিজ্যে তুঙ্গে ওয়ালমার্ট, উপার্জন বেড়েছে দ্বিগুণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাষ্ট্রের বহুজাতিক সুপারশপ চেইন প্রতিষ্ঠান ওয়ালমার্ট। বিশ্বের বৃহত্তম অনলাইন শপিং রিটেইলার আমাজন এর সঙ্গে পাল্লা দেওয়া এ প্রতিষ্ঠানটি অন্যতম সর্ববৃহৎ খুচরা বিক্রেতা হিসেবে পরিচিত। সম্প্রতি করোনা পরিস্থিতিতে ওয়ালমার্টের ই-কমার্স বিক্রয় দ্বিগুণ হিসেবে বেড়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ মে) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ওয়ালমার্টের শেয়ারের দাম প্রায় ৪ শতাংশ বেড়েছে। বহুজাতিক সুপারশপ চেইন প্রতিষ্ঠানের বিক্রয় ৭৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। শেষ তিন মাসে এর একই স্টোরে বিক্রয় ১০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

করোনা মহামারিতে অর্থনীতিতে ‘অভূতপূর্ব পরিবর্তন’— এর কথা উল্লেখ করে প্রতিষ্ঠানটি।

ওয়ালমার্ট জানিয়েছে, এক বছর আগে নিট আয়ের পরিমাণ ৩.৮৪ বিলিয়ন ডলার যা এখন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩.৯৯ বিলিয়ন ডলার। অনলাইনে কেনাকাটার পরিমাণ বেড়েছে ৭৪ শতাংশ। এক বছর আগে একই সময়ে এর পরিমাণ ছিল ৩৭ শতাংশ। যা বর্তমানে দ্বিগুণ হারে বেড়েছে।

মহামারি চলাকালীন প্রথম দিকে ওয়ালমার্ট মুদি (প্রতাহিক ব্যবহৃত দ্রব্যাদি), হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও টয়লেট পেপার মজুত করে রেখে বিক্রি করেছিল। কিন্তু পরবর্তীতে দেখা যায়, মহামারিতে বাসায় লকডাউনে বসে থাকায় গ্রাহকরা বিভিন্ন ধরনের আইটেম যেমন— চুলের রঙ, ট্রিমার, সেলাই মেশিন কিনতে অনলাইন শপিংয়ের দিকে ঝুঁকছিলেন।

কিছুদিন আগেও করোনা পরিস্থিতিতে তাদের বিক্রি কয়েকগুণ বেড়ে যাওয়ার কথা বলে ওয়ালমার্ট। পরিস্থিতি সামাল দিতে নতুন করে ২ লাখ কর্মী নিয়োগ দিয়েছে ওয়ালমার্ট। এমনকি প্রতিষ্ঠানটি প্রায় পাঁচ হাজার সুপারশপের কর্মীদের ৫৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বোনাস দেওয়ার পরিকল্পনার কথাও জানায়।