ধর্মীয় বিষয়ে অজ্ঞরাই সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

ইসলাম ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহ, ছবি: সংগৃহীত

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহ, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ইসলাম ও মুসলিম উম্মার কল্যাণে নিবেদিত। তিনি সারাদেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ করছেন। বাংলাদেশের হজযাত্রীদের কল্যাণে তিনি নানামুখী ব্যবস্থা গ্রহণের মাধ্যমে হজ ব্যবস্থাপনাকে অনেক সহজ ও নিরাপদ করেছেন। সরকারের কূটনৈতিক তৎপরতার প্রেক্ষিতে এ বছর সৌদি আরব বাংলাদেশি হজযাত্রীদের জন্য ১০ হাজার হজের কোটা বাড়িয়েছে। নানা ধরনের প্রতিকূলতা ডিঙিয়ে কওমি মাদরাসার সনদের সরকারি স্বীকৃতি দিয়েছেন। মুসলিম বিশ্বের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে তিনি যুগান্তকারী নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।

বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) দুপুরে সিলেট আল মদিনা ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইনস্টিটিউট আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব এডভোকেট শেখ মো. আবদুল্লাহ এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ধর্ম মানুষের কল্যাণে কাজ করে। ধর্মীয় বিষয়ে অজ্ঞই ধর্মের নামে সমাজে নানা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। তাই ধর্মকে ব্যবহার করে কেউ যাতে সমাজের বিশৃঙ্খলা ও অনাচার সৃষ্টি করতে না পারে, সে বিষয়ে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

সিলেট আল মদিনা ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইনস্টিটিউটের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী, সাবেক সংসদ সদস্য সফিকুর রহমান চৌধুরী, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান শরীফ হোসেন, মাওলানা মুহিব্বুল হক ও বেফাকুল মাদারিসিল কওমিয়া আল আরাবিয়ার সহ-সভাপতি মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন রাজু।

এর পর বিকেলে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী সিলেট জেলার দক্ষিণ সুরমা উপজেলার নির্মাণাধীন মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করেন এবং দক্ষিণ সুরমা উপজেলার জামিয়া তাওয়াক্কুলিয়া রেঙ্গা মাদরাসার বার্ষিক দস্তারবন্দী ও শতবর্ষ উদযাপন মহাসম্মেলনে যোগদান করেন।

আপনার মতামত লিখুন :