ফেসবুকের বিকল্প হয়ে ভারতের বাজারে এলো 'এলিমেন্টস'

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কলকাতা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সম্প্রতি জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বলেছিলেন, গড়ে তুলতে হবে 'আত্মনির্ভর ভারত'। এরপরই লাদাখের গালোওয়ান উপত্যকায় ভারত-চীন সংঘর্ষে কুড়ি জন সেনা নিহত হওয়ার পর, গত সপ্তাহে চীনের ৫৯টি অ্যাপকে নিষিদ্ধ করেছিল ভারত সরকার। কিন্তু সেগুলির বিকল্প কী হবে এই নিয়ে দেশবাসীর মধ্যে নানান প্রশ্ন উঁকি মারছে।

এরপরই মোদি সরকার ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলিকে ‘অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জ’ ছুড়ে দিয়েছিল। শনিবার স্বয়ং তার সূচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। আর তার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পুরোপুরি দেশীয় একটি অ্যাপও চালু হয়ে গেল ভারতে। যার নাম, ‘এলিমেন্টস’। নির্মাতাদের দাবি, ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামের মতো জনপ্রিয় সামাজিক মাধ্যমগুলোর সঙ্গে পাল্লা দেবে এই মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনটি। অ্যাপটি তৈরি করেছেন এক হাজারেরও বেশি পেশাদার প্রযুক্তিবিদ। তারা সকলেই রবিশঙ্করের আর্ট অফ লিভিং ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবক।

ইংলিশসহ আটটি ভারতীয় ভাষায় এই অ্যাপ ব্যবহার করা যাবে। রোববার (৬ জুলাই) ‘মেড ইন ইন্ডিয়া অ্যাপস’ উদ্বোধন করলেন উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু। জানা গেছে, বর্তমানে চলতি বিদেশি অ্যাপগুলি অর্থাৎ ই-লার্নিং, ওয়ার্ক ফ্রম হোম, বিজনেস, গেমিং, অফিসের উপযোগী বিষয়, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ইত্যাদি অ্যাপ এবং অ্যাপ্লিকেশন সমতুল্য ভারতেই তৈরি করা হবে। নতুন অ্যাপ উদ্ভাবনে সহায়তায় জয়ীদের জন্য থাকবে আকর্ষণীয় পুরস্কার।

টুইটারে মোদি লিখেছেন, ‘ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি ও স্টার্ট আপ সংস্থাগুলিকে উৎসাহ দিতে অটল ইনোভেশন মিশনের অধীনে আত্মনির্ভর ভারত অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জের সূচনা করেছে বৈদ্যুতিন ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক। এর মূল লক্ষ্য বর্তমান অ্যাপগুলির বিপণন এবং নতুন অ্যাপ তৈরি। এই পদক্ষেপ আত্মনির্ভর অ্যাপ ইকোসিস্টেম তৈরি করবে’।

ভবিষ্যতে তিনি নিজেও সেগুলির কয়েকটি ব্যবহার করতে পারেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। পরে তিনি এই লিঙ্কটি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট লিঙ্কডইনেও শেয়ার করেছেন। তবে নতুন অ্যাপ্লিকেশন ‘এলিমেন্টস’ ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামের মত কতটা ভারতীয়দের মনে জায়গা করে নিতে পারে তা সময় বলবে।

আপনার মতামত লিখুন :