গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা, যুবকের আমৃত্যু কারাদণ্ড



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নোয়াখালীতে ফারজানা আক্তার টুনি নামে এক গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যায় দায়ের করা মামলায় অভিযুক যুবককে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে আসামিকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও ১ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

রোববার (২১ মার্চ) বিকালে নোয়াখালী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক সৈয়দ ফখরুল আবেদীন এ দণ্ডাদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আবদুর রহীম জাবেদ আরিফকে (২৭) নোয়াখালী সদর উপজেলার কালাদরাপ ইউনিয়নের শুল্লকিয়া এলাকার চারুবানু গ্রামের আবদুল মান্নানের ছেলে।

মামলার এজাহার সূত্রে রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি গোলাম আকবর জানান, বাড়ির সড়ক দিয়ে চলাচল নিয়ে উপজেলার চারুবানু এলাকার আবদুল বাসেতের স্ত্রী ফারজানা আক্তার টুনির সঙ্গে আসামি আবদুর রহিম জাবেদের সাথে বিরোধ চলছিল। ২০১৫ সালের ১২ জুলাই জাবেদের সাথে টুনির কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনার জের ধরে জাবেদ ধারালো দা দিয়ে টুনির মাথায় কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরে নিহতের বাবা নুরুল আমিন বাদী হয়ে পরদিন ১৩ জুলাই আবদুর রহিম জাবেদকে আসামি করে মামলা করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সুধারাম থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইকবাল হোসেন ৩১ ডিসেম্বর আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

দীর্ঘ শুনানির পর ১৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে অভিযুক্ত আসামি আবদুর রহিম জাবেদকে আমৃত্যু কারাদণ্ড প্রদান করেন। রায়ে তাকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দেয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী গোলাম আকবর ও আসামির পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন আইনজীবী আবদুর রহিম রাসেল।