নিখোঁজের পাঁচদিন পর ইজিবাইক চালকের মরদেহ মিলল মর্গে



উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, গৌরীপুর (ময়মনসিংহ)
ইজিবাইক চালক

ইজিবাইক চালক

  • Font increase
  • Font Decrease

ময়মনসিংহের গৌরীপুর থেকে নিখোঁজের পাঁচ দিন পর শাহীনুর ইসলাম খান (৫০) নামে এক ইজিবাইক চালকের মরদেহ মর্গ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার(১৭ এপ্রিল ) দুপুরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গ থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত চালক উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়নের নন্দীগ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে।

এর আগে সোমবার (১২ এপ্রিল) বাড়ি থেকে ইজিবাইক নিয়ে বের হওয়ার পর নিখোঁজ হয় সে। পুলিশের ধারণা ছিনতাইকারীরা চেতনানাশক দিয়ে শাহীনুরকে অজ্ঞান করে ইজিবাইকটি ছিনিয়ে নেয়। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয় ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে শাহীনুর ইসলাম খান মুদী দোকানী ছিলেন। গত ৬ এপ্রিল ইজিবাইক কিনে এলাকায় ভাড়ায় যাত্রী আনা নেওয়া করতেন। গত ১২ এপ্রিল সকালে ইজিবাইক নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয় শাহীনুর। কিন্তু রাতে বাড়ি না ফেরায় পরিবার অনেক খোঁজাখুজি করেও সন্ধান না পেয়ে মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) গৌরীপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করে। পরে তাকে খুঁজে বের করতে তৎপর হয় পুলিশ।

এদিকে খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে জেলা কোতোয়ালি থানা পুলিশের মাধ্যমে শনিবার ময়নসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে শাহীনুরের সন্ধান পান পরিবার। এর আগে গত সোমবার (১২ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে ৪টায় হাসপাতালের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছিল শাহীনুরকে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরদিন মৃত্যু হয় তার।

নিহতের ভাই রফিকুল ইসলাম বলেন, তার ভাই বাড়ি থেকে নিখোঁজ হওয়ার পর শনিবার মর্গে মরদেহ পেয়েছেন। কি ভাবে কি হলো বুঝতে পারছেন না। ইজিবাইকটিও পাওয়া যাচ্ছে না।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান আবদুল হালিম সিদ্দিকী বলেন, ধারণা করা হচ্ছে সংঘবদ্ধ অপরাধী চক্র ইজিবাইকটি ছিনতাই করতে চালককে অজ্ঞান করে ফেলে রেখেছিল। সেখান থেকে কেউ তাকে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। পুলিশ ঘটনা তদন্ত করছে। পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।