অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান আটক



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুড়িগ্রাম
অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান আটক

অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান আটক

  • Font increase
  • Font Decrease

দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগে কুড়িগ্রামের উলিপুরে গুনাইগাছ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ খোকাকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার(১৩ মে) বিকেল ৪ টার দিকে তাকে তার নিজ কার্যালয় থেকে আটক করা হয়। উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে শনিবার (০৮ মে) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে আটককৃত চেয়ারম্যানের দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ আনেন ওই ইউনিয়নের  সংরক্ষিত মহিলা সদস্য মমতাজ পারভীন।

তিনি অভিযোগ করেন, ২০২১ সালের ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে গুনাইগাছ ইউনিয়নে ৬ হাজার ১৭৮ পরিবারের মাঝে ৪৫০ টাকা করে ২৭ লাখ ৮০ হাজার ১শ টাকা এবং করোনাকালীন সরকারের বিশেষ সহায়তা ৬২৫ পরিবারের মাঝে ৪ শত টাকা করে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্ধ আসে। এরপর চেয়ারম্যান তা বিতরণের জন্য সংরক্ষিত ইউপি সদস্যদের কাছে প্রকৃত দরিদ্রদের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি গ্রহণ করতে বলেন এবং সকল ইউপি সদস্যদের সমন্বয়ে তালিকা অনুযায়ী তা বিতরণ করার কথা বলে ২৯ এপ্রিল পরিষদের রেজুলেশন খাতায় স্বাক্ষর নেন।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, চেয়ারম্যান বয়স্ক ও বিধবা ভাতার কার্ড করে দেওয়ার কথা বলে ইউপি সদস্যদের কাছ থেকে তালিকা গ্রহণ করেন এবং তার নিজস্ব লোকজন দিয়ে তালিকা অনুযায়ী হতদরিদ্রদের কাছ থেকে টাকা আদায় করেন। দরিদ্রদের মধ্যে যারা টাকা দিতে পারেনি তাদেরকে বাদ দিয়ে তুলনামূলক স্বচ্ছল ব্যক্তিদেরকে টাকার বিনিময়ে তিনি কার্ড করে দিয়েছেন।

অপরদিকে, হতদরিদ্র ভুক্তভোগীদের এ অভিযোগ নিয়ে চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলতে গেলে ইউপি সদস্যদের অশ্লীল ভাষায় গালাগালি সহ তাদের সাথে দূর্ব্যবহার করে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে ইউপি সদস্যরা জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেছেন।

এ ব্যাপারে উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ইমতিয়াজ কবির বলেন, তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ গুলোর ব্যাপারে প্রাথমিকভাবে সত্যতা পাওয়া গেছে। এজন্য তাকে আটক করা হয়েছে। চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, আমি সে সময় উপস্থিত ছিলাম। তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া গেছে। এখন চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।