ধর্ষণের কথা আদালতে স্বীকার হেফাজত নেতা ফয়েজীর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ধর্ষণের মামলায় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় বিলুপ্ত কমিটির প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া নোমান ফয়েজী আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। ফয়েজী বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই নারীকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১৩ মে) দুপুরে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জয়ন্তী রাণীর আদালতে এ জবানবন্দি দেন তিনি।

চট্টগ্রাম আদালতের জেলা পুলিশের কোর্ট পরিদর্শক হুমায়ূন কবীর বলেন, ধর্ষণ মামলায় জবানবন্দি শেষে আসামি ফয়েজীকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তিনি দোষ স্বীকার করে ঘটনার বিস্তারিত বর্ণনা করেছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জবানবন্দিতে জাকারিয়া নোমান ফয়েজী জানান- ফেসবুকে এক নারীর সঙ্গে পরিচয় হয় তার। সেই সূত্র ধরে ওই নারীকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে হাটহাজারী মাদরাসার পাশে নিয়ে এসে বাসা করে দেন। ওই ভাড়া বাসায় তারা স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে থাকতেন। পরে ওই নারী যখন বুঝতে পারেন ফয়েজী তাকে বিয়ে করবেন না, তখন ওই নারী হাটহাজারির ওই বাসা ছেড়ে চট্টগ্রাম শহরে চলে আসেন। সেখানেও ফয়েজী গিয়ে আবার বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণ করেছেন। ওই নারীকে তিনি প্রায় দেড় বছর বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ করেছেন বলে জবানবন্দিতে জানান।

এর আগে গত ৬ মে বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ২টার দিকে চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানায় এক নারী বাদী হয়ে ধর্ষণের মামলাটি দায়ের করেন।

গত শনিবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি) সেন্টারে ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।