শাবির সাবেক ৪ শিক্ষার্থী কারাগারে



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সিলেট
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আন্দোলনে অর্থ সহায়তা দেওয়ার অভিযোগে আটক শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) সাবেক পাঁচ শিক্ষার্থীসহ অজ্ঞাত ১৫০ জনের বিরুদ্ধে সিলেট মহানগর পুলিশের জালালাবাদ থানায় মামলা হয়েছে।

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) বিকেলে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে চারজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া আরেক আসামি এ এফ এম নাজমুল সাকিব (৩২) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় তাকে সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সন্ধ্যায় সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম) বিএম আশরাফ উল্যাহ তাহের বার্তা২৪.কম-কে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, গ্রেফতার পাঁচ আসামির মধ্যে চারজনকে সিলেট মহানগর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (এমএম-২) মো. সুমন ভূঁইয়ার আদালতে হাজির করা হলে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

চার শিক্ষার্থী হলেন- শাবিপ্রবির সাবেক শিক্ষার্থী হাবিবুর রহমান খান (২৬), রেজা নুর মঈন (৩১), একেএম মারুফ হোসেন (২৭) ও ফয়সাল আহমেদ (২৭)।

এর আগে, মঙ্গলবার রাতে জালালাবাদ থানায় মামলাটি করেন সিলেট নগরের আম্বরখানার বাসিন্দা সুজাত আহমেদ লায়েক। মামলায় আটক পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

এদিকে, সাবেক পাঁচ শিক্ষার্থীকে গ্রেফতারের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে তাদের মুক্তি দাবি করেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। বুধবার দুপুরে সমিতির সভাপতি অধ্যাপক তুলসী কুমার দাস ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোহাম্মদ মহিবুল আলম এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ নিন্দা জানান।

এতে বলা হয়, আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের জন্য মানবিক সহায়তা প্রদানকারী পাঁচজন সাবেক সাস্টিয়ানকে গ্রেফতারের বিরুদ্ধে শাবি শিক্ষক সমিতি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে।

গত সোমবার রাতে রাজধানীর বিভিন্ন স্থান থেকে শাবিপ্রবির পাঁচ সাবেক শিক্ষার্থীকে আটক করে ঢাকা মহানগর পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ। মঙ্গলবার বিকেলে তারদের জালালাবাদ থানায় হস্তান্তর করা হয়।

টাঙ্গাইলে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, টাঙ্গাইল
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

  • Font increase
  • Font Decrease

টাঙ্গাইলে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী মো. রিয়াজ উদ্দিন (৩৫) এর মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১৬ মে) দুপুরে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন এই রায় দেন।

মো. রিয়াজ উদ্দিন ঘাটাইল উপজেলার গারো বাজার এলাকার বশির উদ্দিনের ছেলে। তিনি জামিনে মুক্ত হওয়ার পর পলাতক রয়েছেন।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ সরকারি কৌশুলি (পিপি) আলী আহমদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ১০ হাজার টাকা যৌতুকের জন্য মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত রিয়াজ উদ্দিন ২০০৯ সালের ১০ আগস্ট তার স্ত্রী লিজা আক্তার (২০) কে মারধর করেন। গুরুতর আহত অবস্থায় লিজাকে প্রথমে ফুলবাড়িয়া উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই বছর ২৭ আগস্ট লিজা মারা যান।

লিজা ফুলবাড়িয়া উপজেলার এনায়েতপুর গ্রামের আব্দুল কদ্দুসের মেয়ে।

ঘটনার পর লিজার ভাই আজাহার আলী বাদি হয়ে ২০০৯ সালের ১৯ আগস্ট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে ঘাটাইল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. সুলতান ওই বছর ২০ নভেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। মামলায় ১৫ জন সাক্ষীর মধ্যে ১০ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত এই রায় দেন। দণ্ডিত রিয়াজের অনুপস্থিতেই রায় ঘোষণা করেন আদালত।

;

জাপানি দুই শিশু: বাবার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার আবেদন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনার বাবা বাংলাদেশি নাগরিক ইমরান শরীফের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার আবেদন করেছেন শিশু দুটির মা জাপানি নাগরিক নাকানো এরিকো।

সোমবার (১৬ মে) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগে এ আবেদন করা হয়। আদালত আবেদনটি শুনানির জন্য আগামী ২৩ মে (সোমবার) দিন ধার্য করেছেন।

এ বিষয়ে আইনজীবী শিশির মনির বলেন, সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের আদেশে বলা হয়েছে, জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনা তাদের জাপানি মা নাকানো এরিকোর সঙ্গে রাজধানীর বারিধারায় থাকবে। তবে তাদের বাবা প্রতিদিন শিশুদের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন।

এ নির্দেশনা অমান্য করে ইমরান শরীফ জোর করে মাঝে মাঝেই শিশুদের নিয়ে বাইরে যান। এ কারণে আমরা আদালত অবমাননার আবেদন করেছি। আগামী সোমবার (২৩ মে) পরবর্তী শুনানির দিন ঠিক করেছেন আদালত।

এর আগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকার পারিবারিক আদালতে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত দুই শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনা তাদের মা নাকানো এরিকোর কাছে থাকবে বলে রায় দেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। পাশাপাশি এ বিষয়ে দেওয়া হাইকোর্টের রায় বাতিল করা হয়। এবং বিচারিক আদালতে মামলা নিষ্পত্তির জন্যে বলা হয়।

রায়ে বলা হয়, এই সময়ে নাকানো এরিকো শিশুদের নিয়ে দেশত্যাগ করতে পারবেন না। তবে বাবা ইমরান শরীফ শিশুদের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন।

;

অবকাশ শেষে খুলেছে সুপ্রিম কোর্ট



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পবিত্র ঈদুল ফিতর ও গ্রীষ্মকালীন অবকাশ শেষে খুলেছে সুপ্রিম কোর্ট। অবকাশকালীন হাইকোর্টের কয়েকটি বেঞ্চ ও চেম্বার কোর্ট চালু থাকলেও বন্ধ ছিল আপিল বিভাগ।

সোমবার (১৬ মে) সকাল ৯টা থেকে আপিল বিভাগে প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ এবং জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মো. নুরুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের দুটি বেঞ্চে বিচারকাজ শুরু হয়।

প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন বেঞ্চের অন্য দুই বিচারপতি হলেন- বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম।

বিচারপতি মো. নুরুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চের অন্য দুই বিচারপতি হলেন, বিচারপতি বোরহান উদ্দিন ও বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ।

;

চেক ডিজঅনারের মামলায় কিউকমের সিইও রিপনের বিরুদ্ধে সমন জারি



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
চেক ডিজঅনারের মামলায় কিউকমের সিইও রিপনের বিরুদ্ধে সমন জারি

চেক ডিজঅনারের মামলায় কিউকমের সিইও রিপনের বিরুদ্ধে সমন জারি

  • Font increase
  • Font Decrease

ই-কমার্স কোম্পানি কিউকমের সিইও রিপন মিয়ার বিরুদ্ধে ‘চেক ডিজঅনারের’ মামলায় সমন জারি করেছেন আদালত। ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক আফনান সুমী এ সমন জারির আদেশ প্রদান করেন।

গত ২৭ এপ্রিল সমন জারির নির্দেশ দিয়ে আদালত বলেন আগামী ২৯মে আসামিকে স্ব-শরীরে আতালতে উপস্থিত হওয়ার জন্য।

বাংলাদেশি অন ডিমান্ড রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান পিকমি লিমিটেডের শেয়ার ক্রয়ের বিপরীতে জনাব রিপন মিয়া বাদী জনাব ওমর আলীকে নির্দিষ্ট অংকের চেক প্রদান করেন। কিন্তু বাদী চেকটি নগদায়নের জন্য বিগত ২৭-০২-২০২২ ইং তারিখে ব্যাংকে উপস্থাপন করলে চেকটি ২৮-০২-২০২২ ইং তারিখে তৃতীয় বারের মতো ডিজঅনার হয়। ব্যাংক কর্তৃক চেকটি ডিজঅনার হলে বাদী তার আইনজীবীর মাধ্যমে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে বিগত ২১-০৩-২০২২ ইং তারিখে আসামির প্রতি নেগোশিয়েবল ইন্সট্রুমেন্টস এক্ট, ১৮৮১ এর ১৩৮(১) (খ) ধারায় লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করেন।

;