ঋণের জন্য সাড়ে ৭ হাজার আইনজীবীর আবেদন

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বেকার হওয়ায় অর্থকষ্টে পড়েছেন আইনজীবীরা। বিশেষ করে নতুন কিংবা অপেক্ষাকৃত নবীন আইনজীবীদের অবস্থা বেশি খারাপ।

এমন অবস্থায় নিয়ম না থাকা সত্বেও ঢাকা বারের অভিভাবক খ্যাত সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণের ঐক্যমতের ভিত্তিতে ঋণ প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয় ঢাকা আইনজীবী সমিতি।

গত ১৩ মে ঢাকা বারের সাধারণ সম্পাদক মো. হোসেন আলী খান হাসান ঋণ নিতে ইচ্ছুক আইনজীবীদের অনলাইনে দরখাস্ত আবেদন করতে বলেন। ২০ এপ্রিল ছিল আবেদনের শেষ দিন।

বারের সহ সাধারণ সম্পাদক আখতারুজ্জামান হিমেল জানান, ২০ তারিখ রাত ১২টা পর্যন্ত ৭ হাজার ৫১১টি আবেদন জমা পড়েছে। আবেদনগুলো যাচাই বাছাই চলছে। আগামী ২৩ এপ্রিল সকাল ১০টায় কার্যনির্বাহী কমিটির সভা আহবান করা হয়েছে। সে সভায় ঋণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঢাকা আইনজীবী সমিতির এক কর্মকর্তা জানান, কোনো কোনো আইনজীবী ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণের আবেদন করেছেন। তবে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত ঋণ দেওয়া হতে পারে। আবেদন করা সকল আইনজীবীকে ঋণ প্রদান করা হলে প্রায় সাড়ে ৭ কোটি টাকা ঋণ দিতে হবে আইনজীবী সমিতিকে।

ঢাকা আইনজীবী সমিতিতে নিয়মিত আইনজীবীর সংখ্যা ১৮ হাজার দুইশ’। তবে নির্বাচনে প্রায় ১০ হাজার আইনজীবী তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

করোনার এই দুঃসময়ে আইনজীবীদের জন্য কিছু করার দাবি জোরালো হচ্ছিল আইনজীবীদের। এমন প্রেক্ষিতে নিয়ম না থাকা সত্বেও ‍ঋণ ব্যবস্থা চালুর সিদ্ধান্ত নেয় আইনজীবী সমিতি। এছাড়া করোনাকালীন আইনজীবীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় দুটি মেডিকেল হেল্পলাইন চালু করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :