ক্রোধের বিষক্রিয়া



লাইফস্টাইল ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ক্রোধ সর্বজনীন সমস্যা। ছবি: সংগৃহীত

ক্রোধ সর্বজনীন সমস্যা। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ক্রোধ সর্বজনীন সমস্যা। ক্রোধ বা রাগ কি? আমরা রাগ করি কেন? কেন আমরা রাগ কাটিয়ে উঠতে চাই? ক্রোধ আমাদের পাশাপাশি অন্যদের জন্যও বিপজ্জনক এবং ক্ষতিকারক। এটি আমাদের এমন কিছু বলতে এবং করতে বাধ্য করে যা করে পরে অনুশোচনা করি। এটি আমাদের কর্মদক্ষতা এবং কার্যকারিতা হ্রাস করে।

আমরা প্রায়শই বলি, ‘ক্রোধ খারাপ কারণ এটি মানুষকে কষ্ট দেয় এবং এটি সাহায্য করে না।’ তবুও আমরা এর অপসারণে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয় না। ক্রোধ থেকে মুক্তি পেতে আমাদের গভীর ও তীব্র বোঝাপড়া দরকার। ধ্বংসাত্মক এবং দুর্দশার কারণ এমন কিছু কেন বহন করবেন?

মনে করুন আপনি এক গ্লাস দুধ পান করতে চলেছেন সেসময় কেউ যদি আপনাকে বলে যে এটিতে বিষ রয়েছে। আপনি কি তাৎক্ষণিকভাবে এটি ফেরে দেবেন না? ঠিক সেরকমই যখন আমরা বুঝতে পারি রাগ ক্ষতি করে তাৎক্ষণিকভাবে ক্রোধ হ্রাস করা উচিত।

আমরা রাগ করি কেন?

যখন অহংকার আহত হয়, আকাঙ্ক্ষাগুলো বাধাগ্রস্থ হয় বা প্রত্যাশা পূরণ না হয় তখন আমরা রাগান্বিত হই। বরং অহঙ্কার আহত হয়ে সঠিক স্থান দেখানোর জন্য অন্য ব্যক্তির কাছে কৃতজ্ঞ থাকা উচিত। আমরা যখন আমাদের নিজস্ব প্রত্যাশা পূরণ করতে অক্ষম হই, তখন কীভাবে আমরা অন্যের কাছ থেকে সেই প্রত্যাশা পূরণের আশা করতে পারি? কোনো আবেগ নিজেই ভালো বা খারাপ হয় না। এটিকে আমরা খারাপ করি। স্বার্থপরতার কারণে রাগ খারাপ। অনিয়ন্ত্রিত ক্রোধ আমাদের দাসত্ব করে তোলে।

স্বার্থপর ইচ্ছা পূরণ না হলে রাগ হওয়ার পরিবর্তে রাগকে সমাজে অন্যায়ের প্রতিবাদে বা অসত্যে রুখতে পরিচালিত করুন। ক্রোধকে দ্বিখণ্ডিত করুন এবং মনের শান্তি অর্জন করুন।