ফল খাওয়ার পরে পানি পান করা কতটা নিরাপদ?



লাইফস্টাইল ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
ফল খাওয়ার পর পানি খাওয়া কতটা নিরাপদ? ছবি: সংগৃহীত

ফল খাওয়ার পর পানি খাওয়া কতটা নিরাপদ? ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গ্রীষ্মের প্রচণ্ড উত্তাপে আনেকেই পানির পরিবর্তে ফল খান। কারণ ফলে থাকে পানি, ফাইবার, ভিটামিন, এবং বিভিন্ন খনিজ পদার্থ। যা এই গরমে শরীরকে শীতল ও হাইড্রেট রাখে। অনেকেই আবার ফল খেয়ে পানি পান করেন। কিন্তু ফল খাওয়ার পর পানি পান করা কতটা নিরাপদ? “ফল খেয়ে জল খেতে নেয়, জম বলে আয় আয়” আমরা প্রায় সকলেই ছোটবেলা থেকে এই কথা শুনে আসছি। বিজ্ঞানসম্মত ভাবে এই কথা একেবারেই ঠিক। ফল খাওয়ার পরে কেন পানি পান করা উচিত নয় তা জেনে নিন।

ফলের পরে পানি কী নিরাপদ?

ফলের মধ্যে প্রচুর হাইড্রেটিং পাউয়ার থাকে যা তৃষ্ণা নিবারণে যথেষ্ট। তবে ফল খাওয়ার পরেও যদি তৃষ্ণার্ত বোধ করেন তবে সর্বনিম্ন ৩০ মিনিটের জন্য অপেক্ষা করার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। ৩০ মিনিট পর আপনি সর্বোচ্চ এক চুমুক পানি পান করতে পারবেন। বেশিরভাগ চিকিৎসক এবং ডায়েটিশিয়ানরা ফল এবং পানি পানের মধ্যে ৪০-৫০ মিনিটের ব্যবধানের পরামর্শ দেন।

হজম হ্রাস করে

পানি হজম প্রক্রিয়াটি ধীর করে ফেলে। এটি গ্যাস্ট্রিক অ্যাসিডকে পাতলা করে। যা খাবারকে পাকস্থলীতে দীর্ঘসময় ধরে রাখে। ফলে পেটকে এই খাবার পরে হজম করার জন্য দ্বিগুণ প্রচেষ্টা করতে হয় এবং অজস্র খাবার খুব বেশি সময় ধরে পড়ে থাকার কারণে অ্যাসিড রিফ্লাক্স, পেটফাঁপা, ডায়রিয়ার মতো বিভিন্ন সমস্যা সৃষ্টি হয়।

পানি হজম প্রক্রিয়াটি ধীর করে ফেলে। ছবি: সংগৃহীত

গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা

বেশিরভাগ ফলের মধ্যে চিনি এবং খামির থাকে যা পেটে হজম এনজাইম তৈরি করে। পানি পান করার ফরে হজম এনজাইম পানির সাথে মিশে যায়। ফলে পেটে কার্বন ডাই অক্সাইড এবং অ্যালকোহল তৈরি হয় যা গ্যাস এবং পেটফাঁপা অন্যতম কারণ। বিশেষত কমলা, তরমুজ, পেঁপে, আনারস, স্ট্রবেরি, আম এবং শসা জাতীয় ফল খাওয়ার পরে ৩০ মিনিটের মধ্যে পানি পান করা উচিত নয়।

পিএইচ স্তরের ব্যাঘাত ঘটায়

পেটের সাধারণ পিএইচ স্তরটি অ্যাসিডিক এবং এটি ১.৫ থেকে ৩.৫ অব্দি হয়। ফল খাওয়ার সাথে সাথে পানি পান করার ফলে এই পিএইচ হ্রাস পেতে পারে। যা পেটের ব্যথা এবং বদহজম সৃষ্টি করে।