ভেগানদের মাঝে বি১২ অভাবের আশঙ্কা বেশি

সাব্বির আজিম খান, লাইফস্টাইল ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভেগানদের খাদ্যভাসে অবশ্যই পর্যাপ্ত পরিমাণ ভিটামিন-বি১২ থাকা প্রয়োজন বলে সতর্ক করেছে খাদ্য বিশেষজ্ঞরা। কারণ প্রয়োজনীয় এই ভিটামিনের অভাব মনগড়া কোন বিষয় নয় মোটেও। বিশেষত ভেগানদের মাঝে।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, ভেগান ডায়েটে উচ্চমাত্রায় ফাইবার বা আঁশ এবং নিম্নমাত্রায় কোলেস্টোরেল উপস্থিতি থাকে। এতে ভিটামিন-বি১২ এর মতো কিছু প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান অনুপস্থিত রয়ে যায়।

ভেগান ডায়েটে প্রাণী ও প্রাণীজাত কোন ধরনের খাদ্য উপাদান গ্রহণ করা হয় না। নিরামিষাশী বা ভেজিটেরিয়ানরা ডিম, মধু খেলেও, ভেগানরা ডিম বা মধু কোনটাই গ্রহণ করে না।

ভেগান ডায়েট ও পুষ্টির অভাব সম্পর্কে ভেগান সমাজ জানাচ্ছে, সাপ্লিমেন্ট জাতীয় খাবারগুলোতে ভিটামিন-বি১২ এর মতো পুষ্টি উপাদানগুলো উপস্থিত থাকে। যা প্রয়োজনীয় ভিটামিনের চাহিদা পূরণ করবে।

পুষ্টি বিশেষজ্ঞদের মতে, পূর্ণবয়স্ক একজন মানুষের জন্য ১.৫ মাইক্রোগ্রাম বি১২ এর প্রয়োজন। মাছ, মাংস, ডিম ও দুগ্ধ জাতীয় খাবারে ভিটামিন-বি১২ এর মতো পুষ্টি উপাদানগুলো পাওয়া যায়। তবে সবজি কিংবা ফলজাতীয় খাবারে এইসব পুষ্টি উপাদানের উপস্থিতি নেই বললেই চলে।

vegan

এ কারণে পুষ্টি বিশেষজ্ঞরা ভিটামিন-বি১২ এর মতো পুষ্টি উপাদানগুলোর ঘাটতি মেটাতে সাপ্লিমেন্ট বা সিরিয়াল জাতীয় খাবার গ্রহণ করতে পরামর্শ দিচ্ছেন।

ভিটামিন-বি১২ এর অভাবে স্নায়ুর মারাত্মক ক্ষতি হয়। ৩-৪ বছর সময় পর শরীরে এই রোগের বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দেয়। প্রাথমিক অবস্থায় হাত বা পায়ে সুঁইয়ের আঘাতের মতো ব্যথা অনুভব হয়।

বি১২ ঘাটতির কারণে মারাত্মক ঝুঁকির সম্ভাবনা থাকে উল্লেখ করে একজন পুষ্টিবিদ বলেন, ‘অনেকেই ভাবেন ভেগানদের বি১২ এর প্রয়োজন নেই। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ সংক্রান্ত বিভিন্ন পোস্ট দেখা যায়। কিন্তু এগুলোর কোনো ভিত্তি নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘বি১২ এর অভাবে থাকা এক কোন নারী মা হলে তার সন্তান জন্মের পর থেকেই স্নায়ু রোগের উপসর্গ দেখা দেয় শিশুটির মাঝে। যার ফলে দীর্ঘমেয়াদী ক্ষতি হয় শিশুটির।’

আপনার মতামত লিখুন :