অপরাধীদের বিরুদ্ধে আমরা সজাগ রয়েছি, ব্যবস্থা নিচ্ছি: প্রধানমন্ত্রী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি সংগৃহীত।

ছবি সংগৃহীত।

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদার ওপর হামলার ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। এটা চরম গর্হিত অপরাধ, এতে কোনো সন্দেহ নেই। আমরা এর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছি।,

বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকালে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে সংসদ নেতা এসব কথা বলেন।

এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আপনারা তো জানেন ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে সপরিবারে হত্যা করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু তখন রাষ্ট্রপতি ছিলেন। তার নিজের বাসায় ঢুকে তাকে সহ তার পরিবারের সদস্যদের হত্যা করা হয়েছে। সেই খুনিদের ইনডেমনিটি দিয়ে বিচারের হাত থেকে মুক্ত করেছে যারা, তারা কতো বড় ক্রিমিনাল? এই ধরনের খুনি ক্রিমিনালদের যখন প্রশ্রয় দেয়া হয়, মানসিকভাবে সেই দেশের মানুষের কী রকম চরিত্র হতে পারে সেটাও হচ্ছে বিবেচ্য বিষয়।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘একথা তো বাস্তব যে আপনার ঘরে ঘরে বেডরুমে বেডরুমে তো কেউ পাহারা দিতে পারে না। তারপরেও আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণের জন্য এবং দেশে যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে সেজন্য অপরাধীদের বিরুদ্ধে সব সময় আমরা সজাগ রয়েছি। ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘ঘটনা যেকোনো সময় ঘটতে পারে, কিন্তু সেই ঘটনার সঙ্গে সরকারের পক্ষ থেকে যারা অপরাধী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছি কিনা সেটাই হচ্ছে বড় প্রশ্ন। যখনই কোনো অপরাধের সঙ্গে জরিত কারো নাম আসবে, তখনই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। অপরাধের সঙ্গে জরিত ব্যক্তিরা কে কি করে আমি সেটা দেখতে চাই না। আমরা তার বা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি এবং নেব। এটাই হচ্ছে বড় কথা। সেটা আমরা করে যাচ্ছি। এর বেশি আর কিছু বলার নেই।’

তিনি আর বলেন, ‘যে দেশে খুনিদের পুরস্কৃত করা হয়েছে, দূতাবাসে চাকরি দিয়ে অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয়া হয়েছে, সেখানে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ঠিক করে নিয়ম মাফিক দেশ চালানো খুব কঠিন দায়িত্ব। সেই দায়িত্ব আমরা সরকারে আসার পর পালন করে যাচ্ছি। প্রকাশ্যে ৫০০টা বোমা হামলা হয়েছে, সন্ত্রাসীরা-অস্ত্রধারীরা অস্ত্র নিয়ে মিছিল করেছে, এ ধরনের বহু ঘটনা আগে আমাদের দেশে ছিল। কিন্তু আস্তে আস্তে সেগুলোকে একটা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে মানুষের জানমালের নিরাপত্তা দেয়ার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছি। আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, গোয়েন্দা সংস্থা যথেষ্ট সক্রিয় আছে। যখনই যে ঘটনা ঘটে, আমরা কিন্তু সঙ্গে সঙ্গে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেই।’